বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘ধর্ষকের সঙ্গে সহযোগিতা করুন’, পরিচালকের বিতর্কিত মন্তব্যে নিন্দার ঝড় টুইটারে
পরিচালক ড্যানিয়েল শ্রবণ (সৌজন্যে-ফেসবুক)
পরিচালক ড্যানিয়েল শ্রবণ (সৌজন্যে-ফেসবুক)

‘ধর্ষকের সঙ্গে সহযোগিতা করুন’, পরিচালকের বিতর্কিত মন্তব্যে নিন্দার ঝড় টুইটারে

  • ‘কন্ডোম সঙ্গে রাখুন, ধর্ষকের সঙ্গে সহযোগিতা করুন’- দক্ষিণী চিত্র পরিচালকের এই বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে এখন বিতর্কের ঝড় টুইটারে।
  • ড্যানিয়েল শ্রবণের কথায় ‘কেবল অহিংসভাবে ধর্ষণের মাধ্যমেই নৃশংসভাবে খুন রুখে দেওয়া সম্ভব’।

‘কন্ডোম সঙ্গে রাখুন, ধর্ষকের সঙ্গে সহযোগিতা করুন’- দক্ষিণী চিত্র পরিচালকের এহেন বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে এখন বিতর্কের ঝড় টুইটারে। ধর্ষনের পর নৃশংস খুনের হাত থেকে বাঁচতে নিজের ফেসবুকের দেওয়ালে এরকম পরামর্শ দিয়েছেন ড্যানিয়েল শ্রবণ। হায়দরাবাদ গণধর্ষণকাণ্ডে ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ, সেই সময়ই ড্যানিয়েল শ্রবণের এমন আলটপকা মন্তব্য মেনে নিতে পারছেন না কেউই।

ধর্ষিত হওয়ার পর কিভাবে খুন হওয়া থেকে বাঁচবেন সেই নিয়ে ফেসবুকে একটি লম্বা চাওড়া পোস্ট করেছেন ড্যানিয়েল । পরিচালকের কথায় 'ধর্ষণ এমন কোনো সিরিয়াস ব্যাপার নয়, তবে খুনের মতো ঘটনা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ’। এখানেই থেকে না থেকে তিনি আরও লেখেন, ‘পুলিশকে ফোন করে সাহায্য না চেয়ে মহিলাদের উচিত কন্ডোম সঙ্গে রাখা। মহিলাদের উচিত ধর্ষণে সহযোগিতা করা । ধর্ষণ করতে এলে ধর্ষককে কন্ডোম অফার করা । তাহলে অন্তত ধর্ষণের পর খুন হতে হবে না’। ড্যানিয়েল শ্রবণের কথায় ‘কেবল অহিংস ধর্ষণের মাধ্যমেই নৃশংসভাবে খুন রুখে দেওয়া সম্ভব’।

এই পোস্ট ভাইরাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নিন্দার ঝড় ওঠে টুইটারে। সেক্রেড গেমস অভিনেত্রী কুরবা সৈত বলেন, ‘ ড্যানিয়েল শ্রবণ আর যেই হোন না কেন, তার মানসিক চিকিত্সার প্রয়োজন।



প্রতিবাদ জানান অভিনেত্রী চিন্ময়ী শ্রীপদাও। ড্যানিয়েলের পোস্টের সারাংশ লিখে নায়িকা জানান, ‘এরাই ধর্ষকদের পরোক্ষভাবে মদত জোগাচ্ছে’।



শুধু সেলেবরাই আম জনতাও ড্যানিয়েলের এই মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে টুইটারের দেওয়ালে ।



গত ২৭ নভেম্বর হায়দরাবাদের ২৬ বছরের পশু চিকিত্সকে গণধর্ষণের ঘটনায় ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে চার অভিযুক্তকে । পরের দিন সকালে ৪৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে চাট্টানপল্লি এলাকার এক কালভার্টের নীচ থেকে ওই পশু চিকিত্সকের অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার করা হয় । পুলিশ জানিয়েছে, শামশাবাদ টোল প্লাজার কাছ থেকে ওই পশু চিকিত্সকে তুলে নিয়ে যায় চার অভিযুক্ত, এরপর নৃসংশভাবে ধর্ষণ করার পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় তাঁকে । এরপর শাদনগরের পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় ।

বন্ধ করুন