বাড়ি > বায়োস্কোপ > মোদির 'জনতা কার্ফু'র সমর্থনে রজনীকান্তের পোস্ট করা ভিডিয়ো ডিলিট করল টুইটার!
রজনীকান্তের ভিডিয়ো ডিলিট করল টুইটার! (PTI)
রজনীকান্তের ভিডিয়ো ডিলিট করল টুইটার! (PTI)

মোদির 'জনতা কার্ফু'র সমর্থনে রজনীকান্তের পোস্ট করা ভিডিয়ো ডিলিট করল টুইটার!

  • জনতা কার্ফু নিয়ে প্রধামন্ত্রীর সমর্থন করতে গিয়ে করোনাভাইরাস নিয়ে ভুল তথ্য প্রচার রজনীকান্তের! ভিডিয়ো সরিয়ে দিল টুইটার।

রূপোলি পর্দায় সব অসম্ভবকেই তিনি সম্ভব করতে পারেন কারণ তিনি থালাইভা-তিনি রজনীকান্ত। তবে বাস্তব আর পর্দা যে এক নয় তা বোধহয় ভালোভাবেই টের পেলেন রজনীকান্ত। টুইটার থেকে সরিয়ে নেওয়া হল রজনীকান্তের ভিডিয়ো বার্তা।

করোনাভাইরাস নিয়ে ভুল তথ্য দিলেন থালাইভা! তার জেরে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার থেকে তুলে নেওয়া হল শনিবার রজনীকান্তের পোস্ট করা একটি ভিডিয়ো। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জনতা কার্ফুকে সমর্থন করে এদিন একটি ভিডিয়ো বার্তা পোস্ট করেন সুপারস্টার। সেখানেই Covid-19 নিয়ে বেশ কিছু ভুল তথ্য দেন রজনীকান্ত। তারপরই সেটা ডিলিট করে দেয় টুইটার। এতে ক্ষুদ্ধ থালাইভা ভক্তরা। টুইটারে ট্রেন্ড হয় #ShameonTwitterIndia।

রবিবার সকাল সাতটা থেকে রাত ন’টা পর্যন্ত জনতা কার্ফুয়ের ডাক দিয়েছেন মোদি। সেই ভিডিয়োতে মোদির এই ১৪ ঘন্টার কার্ফু প্রসঙ্গে সুপারস্টার রজনী বলেন, ‘এই সময় ঘরে থাকলে করোনাভাইরাস সংক্রমণের চেন ভেঙে যাবে কারণ ১২-১৪ ঘন্টার বেশি সময় নাকি কোনও সারফেসে বেঁচে থাকতে পারে না এই ভাইরাস’। এই তথ্য সম্পূর্ন ভুল-যা টুইটারের ভুল তথ্য বিষয়ক নিয়ম লঙ্ঘন করে। তাই দ্রুত এই ভিডিয়ো সরিয়ে দেয় টুইটার ইন্ডিয়া।

বিজ্ঞানীদের মতে, বেশ কয়েকদিন কোনও পৃষ্ঠতলে বেঁচে থাকতে পারে এই মারণভাইরাস। সংক্রমিত পৃষ্ঠতল ছুঁলেও কোনও ব্যক্তি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারেন। ভিডিয়ো ডিলিট করে দেওয়ার পর রজনীকান্ত ভক্তরা টুইটারে ক্ষোভ উগরে দেন। কেউ কেউ তো এমনটাও বলে বসেন রজনীকান্ত ভারতীয় লেজেন্ড কেমনভাবে তাঁর টুইট ডিলিট করা হতে পারে?


করোনাভাইরাস বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যে সমস্ত চিকিত্সক, নার্স এবং জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন তাঁদেরও ধন্যবাদ জানান রজনীকান্ত। জানান বিকাল পাঁচটায় ধন্যবাদজ্ঞাপনেও যোগ দেবেন তিনি।

বন্ধ করুন