বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > অনুরাগ কশ্যপের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন স্মৃতি ইরানি
অনুরাগের বিরুদ্ধে ওঠা মিটু অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন স্মৃতি 
অনুরাগের বিরুদ্ধে ওঠা মিটু অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন স্মৃতি 

অনুরাগ কশ্যপের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন স্মৃতি ইরানি

  • নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি এবার প্রতিক্রিয়া দিলেন অনুরাগ কশ্যপের বিরুদ্ধে ওঠা ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ নিয়ে।

বাঙালি অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ গত শনিবার যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন বলিউডের নামী পরিচালক-প্রযোজক অনুরাগ কশ্যপের বিরুদ্ধে। ‘অনুরাগ এপিসোড’ ঘিরে এখন সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া। আশ্চর্যজনকভাবে এই মামলায় তাপসী পান্নু, স্বরা ভাস্কর, টিসকা চোপড়া সহ বলিউডের একাধিক অভিনেত্রী অনুরাগের সমর্থনে মুখ খুলেছেন। পরিচালকের সমর্থনে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন তাঁর দুই প্রাক্তন স্ত্রী আরতি এবং কালকি কোয়েচলিনও।  এবার এই মামলা নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। জাতীয় মহিলা কমিশন আপতত রয়েছে স্মৃতি ইরানির জিম্মায়। কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণ দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। 

গত শনিবার টুইটারে পায়েল লেখেন- অনুরাগ তাঁর সঙ্গে জোর জবরদস্তি করার চেষ্টা করেছিলেন। তাঁর প্রাণ সংশয় হতে পারে, একথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিরাপত্তার জন্য আর্জি জানান পায়েল, এবং দোষীর উপযুক্ত শাস্তি দাবি করে সাহায্য প্রার্থনা করেন।

স্মৃতি ইরানি এই মর্মে রিপাবলিক টিভিকে জানান- ‘আমি সাংবিধানিক দায়িত্বে রয়েছি জাতীয় মহিলা কমিশনের দেখভালের জন্য। তবে ইতিমধ্যে জাতীয় মহিলা কমিশনের তরফে এই বিষয়ে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। তাই আমি এই মুহূর্তে এই বিষয় নিয়ে আমার কিছু বলাটা ঠিক নয়, কারণ সেটা তাঁদের এক্তিয়ারভুক্ত এলাকা। এই বিষয়টা নিয়ে কীভাবে তাঁরা এগোতে চায় তা তাঁদের উপর নির্ভরশীল’।

অনুরাগ কশ্যপের আইনজীবী, প্রিয়াঙ্কা খিমানি সোমবার সকালে একটি আনুষ্ঠানিক বিবৃতি জারি করে পায়েল ঘোষের তোলা সব অভিযোগকে খারিজ করেছেন। সেখানে বলা হয়- ‘আমার মক্কেল, অনুরাগ কশ্যপ অত্যন্ত মর্মাহত ওঁনার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার মিথ্যা অভিযোগ আনবার কারণে। এইসব অভিযোগ পুরোপুরি ভুয়ো, খারাপ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং অসত্য। এটা দুর্ভাগ্যজনক যে একটা সামাজিক গুরুত্বপূর্ন আন্দোলনকে অনেকেই নিজের ফায়দা তোলবার জন্য ব্যবহার করছে। এখন মিটু আন্দোলনটা কারুর চরিত্র হননের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে-এটা খুব চিন্তাজনক এবং দুর্ভাগ্যপূর্ন। এই প্রকৃতির কল্পিত অভিযোগগুলি এই আন্দোলনকে মারাত্মকভাবে দুর্বল করে দেয় এবং যৌন হয়রানি ও নির্যাতনের প্রকৃত শিকার নারীদের বেদনা এবং আঘাতের বিষয়ে কিছু মানুষ সন্দেহহীনভাবে বাণিজ্যিক ফায়দা তুলতে চায়। আমার ক্লায়েন্টকে তার আইনগত অধিকার এবং প্রতিকার সম্পর্কে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে এবং নিয়ম মেনে এগুলো অনুসরন করা হবে’।

এর আগে শনিবার রাতে টুইটারে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগকে ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন অনুরাগ কশ্যপ।

শনিবারই পায়েল ঘোষের টুইট দেখে জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা অভিনেত্রীকে সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছিলেন। রবিবার এই মর্মে কমিশনের তরফে একটি ভিডিয়ো বার্তা জারি করা হয়। 

ভিডিয়োয় রেখা শর্মা জানান- এই অভিযোগ অত্যন্ত চাঞ্চল্যকর। এবং আমরা পায়েল ঘোষকে বিস্তারিত লিখিত অভিযোগ জমা দেওয়ার কথা জানিয়েছি। আমরা আশ্বাস দিয়েছি আমারা এই লড়াই পায়েলের পাশে আছি। পুলিশকেও আমরা লিখব, আদালতেও তাঁকে সবরকম সাহায্য করা হবে'।

বন্ধ করুন