বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > দিয়া মির্জার বিয়ে নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন স্বামী বৈভবের প্রথম স্ত্রী, সুনয়না
দিয়া-বৈভব দুজনেই দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন
দিয়া-বৈভব দুজনেই দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন

দিয়া মির্জার বিয়ে নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন স্বামী বৈভবের প্রথম স্ত্রী, সুনয়না

  • প্রাক্তন স্বামীর স্ত্রীকে নিয়ে কী বললেন পেশায় যোগা ইনসট্রাক্টর সুনয়না রেকি? 

সদ্যই দ্বিতীয়বারের জন্য সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন অভিনেত্রী দিয়া মির্জা। তবে শুধু দিয়া নয়, তাঁর স্বামী বৈভব রেকিও দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন। বৈদিক মতে বিয়ে করেছেন দিয়া-বৈভব, শুধু তাই নয় পরিবেশ সচেতন দিয়ার বিয়ের অনুষ্ঠান ছিল ইকো-ফ্রেন্ডলি। এর জেরে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশংসা কুড়িয়েছেন নায়িকা। কিন্তু দিয়ার বিয়ের সুবাদে গত কয়েকদিনে সংবাদমাধ্যমে বারবার একটি নাম উঠে এসেছে, সুনয়না। দিয়ার স্বামী বৈভব রেকির প্রথম স্ত্রী তিনি। অবশেষে এই বিয়ে নিয়ে মুখ খুললেন সুনয়না।

সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে এই বিয়ে নিয়ে নিজের মতামত জানিয়েছেন সুনয়না। এবং বৈভবের এই সিদ্ধান্তের প্রতি তিনি পূর্ণ সমর্থন ও আস্থা প্রকাশ করেছেন। সুনয়না ভীষণ খুশি যে তাঁর মেয়ে সামাইরার পরিবারের পরিসর আরও খানিকটা বৃদ্ধি পেল। বৈভব-সুনয়নার কন্যা সামাইরা।ভিডিয়োতে সুনয়না জানান, ‘আমি সুনয়না রেকি। আপনারা তো আমার নাম শুনেই থাকবেন, যদি না থেকে থাকেন তাহলে সেটা এখন সংবাদ শিরোনামে রয়েছে। হ্যাঁ, আমার প্রাক্তন স্বামী দিয়াকে (মির্জা) বিয়ে করেছে, এবং তারপর থেকে আমি প্রচুর ডিএম (ডিরেক্ট মেসেজ) এবং হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ পাচ্ছি… সকলে আমায় প্রশ্ন করছে আমি ঠিক আছি তো? সকলকে তাঁদের চিন্তার জন্য ধন্যবাদ। আমাকে নিজের বলে ভাবার জন্য ধবন্যবাদ। আমরা একদম ঠিক আছি, শুধু ঠিক নয়, আমার মেয়ে ভীষণরকমভাবে এক্সাইটেড। আমি তো দেখলাম বেশ কিছু ভিডিয়ো যেখানে ও ফুল ছুঁড়ছে। এটা ওর জন্য বেশ ভালো যে পরিবারের পরিসরটা বেড়ে গেল। কারণ বম্বেতে আমাদের আর কোনও পরিবার নেই, তাই বেশ ভালো যে পরিবার বাড়ল। জীবনের পরিসর বাড়ানো সবসময়ই ভালো’।

দিয়া-বৈভবের বিয়ের অনুষ্ঠানে সামাইরা, ডান দিকে মায়ের সঙ্গে আড্ডায় মশগুল
দিয়া-বৈভবের বিয়ের অনুষ্ঠানে সামাইরা, ডান দিকে মায়ের সঙ্গে আড্ডায় মশগুল

উল্লেখ্য, দিয়া-বৈভবের বিয়েতে অংশ নেয় বৈভব-সুনয়নার মেয়ে সামাইরা। সেই ভিডিয়ো রীতিমতো ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়াতে। পেশায় যোগা কোচ সুনয়না যোগ করেন, ‘আমি এই সুযোগ নিয়ে আরও একটা বিষয় জানাতে চাই, শিশুদের জন্য তাঁদের জীবনে ভালোবাসা দেখাটা খুব জরুরি। সামাইরা সেইরকম ভালোবাসা ওর বাবা-মার মধ্যে দেখতে পায়নি যখন ও খুব ছোট ছিল, কিন্তু ওর ভাগ্য ভালো যে ও নিজের বাবাকে ভালোবাসার মানুষের সঙ্গে দেখতে পাচ্ছে। ও নিজের মধ্যেও এখন সেই এনার্জিটা খুঁজে পাবে যা ভবিষ্যতে ওর কাজে লাগবে, যে বিয়ের মধ্যে ভালোবাসা থাকে। সেটা খুব স্পেশ্যাল আমি খুশি সামাইরার, ওর ড্যাড আর দিয়ার জন্য’।

বৈভব-সুনয়নার বিয়ে এবং সম্পর্ক ভাঙা নিয়ে খুব বেশি তথ্য মেলে না। তবে সুনয়নার এই ভিডিয়ো বার্তা সাফ করে দিল, সম্পর্ক ভাঙলেও কোনও তিক্ততা নেই দুজনের মনে। অন্যদিকে ১১ বছর প্রেমের সম্পর্ক থাকবার পর ২০১৪ সালে বিয়ে করেছিলেন দিয়া মির্জা ও সাহিল সাঙ্ঘা। তবে পাঁচ বছর পর ২০১৯ সালে এই দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানেন দুজনে। দিয়া-বৈভবের বিয়ে নিয়ে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি প্রযোজক সাহিল সাঙ্ঘা। 

বন্ধ করুন