বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > করোনাযুদ্ধে হেরে গেলেন গুজরাতি সিনেমার সুপারস্টার নরেশ কনোডিয়া
প্রয়াত নরেশ কনোদিয়া 
প্রয়াত নরেশ কনোদিয়া 

করোনাযুদ্ধে হেরে গেলেন গুজরাতি সিনেমার সুপারস্টার নরেশ কনোডিয়া

  • দাদা মহেশ কনোডিয়ার মৃত্যুর দু-দিন পরেই চলে গেলে নরেশও। গুজরাতি চলচ্চিত্রে এক যুগের অবসান।

প্রয়াত গুজরাতি সিনেমার প্রবাদপ্রতিম ব্যক্তিত্ব নরেশ কনোডিয়া। কোভিড-যুদ্ধে হেরে গেলেন রুপোলি পর্দার এই বর্ষীয়ান অভিনেতা। মঙ্গলবার সকালে চলে গেলেন ৭৭ বছর বয়সী এই তারকা। এদিন ইউএন মেহতা ইনস্টিটিউড অফ কার্ডিওজলি অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টারে মৃত্যু হয় নরেশ কোনিডয়ার। ৩০০টিরও বেশি গুজরাতি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।

অভিনয়ের পাশাপাশি রাজনীতির ময়দানেও বিরাট সাফল্য পেয়েছিলেন নরেশ। কারজান বিধানসভা আসনে জয় লাভ করে ২০০১ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত এই এলাকার বিধায়ক ছিলেন নরেশ। শুধু তাই নয়, সংগীত শিল্পী হিসাবেও খ্যাতি লাভ করেছিলেন তিনি। দাদা মহেশের সঙ্গে যৌথভাবে ‘মহেশ-নরেশ অ্যান্ড পার্টি’ নামের একটি অর্কেস্ট্রা চালাতেন তিনি। উল্লেখ্য দু-দিন আগেই মৃত্যু হয়েছে নরেশ কনোডিয়ার দাদা মহেশ কনোডিয়ারও। রবিবারই দীর্ঘ রোগভোগের পর চলে যান মহেশ।প্যারালিসিসের কারণে গত ৬ বছর শয্যাশায়ী ছিলেন তিনি। 

১৯৭০ সালে ভেলাইন আভেয়া ফুল ছবির সঙ্গে অভিনয় কেরিয়ার শুরু করেছিলেন নরেশ। এরপর আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। এরপর যোগ সংযোগ, কাংকু নি কিমাত, লাজু লক্ষণ, উনচি মেদিনা উনচা মোল'-এর মতো অজস্র হিট ছবি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন তিনি। 

নরেশ কনোডিয়ার পুত্র হিতু বর্তমানে ইদারের বিধায়ক। অভিনেতার প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি। 

বন্ধ করুন