বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Video: বাড়ির সব কাজ করছেন, মেজাজ তো খারাপ হবেই! অভিযোগ 'গুনগুন' খ্যাত তৃণার
তৃণা সাহা। ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক
তৃণা সাহা। ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক

Video: বাড়ির সব কাজ করছেন, মেজাজ তো খারাপ হবেই! অভিযোগ 'গুনগুন' খ্যাত তৃণার

  • বিয়ের সাত মাস পেরোতে না পেরোতেই সংসারে কী এমন হলো যে মাথা গরম হয়ে গেল ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তৃণা সাহার। শুধু তাই নয়, নেটমাধ্যমেও সে ব্যাপারে জানালেন তিনি।

অভিনেতা নীল ভট্টাচার্যের সঙ্গে গত ডিসেম্বরের ৪ তারিখে সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন অভিনেত্রী তৃণা সাহা। বিয়ের সাত মাস পেরোতে না পেরোতেই সংসারে কী এমন হলো যে মাথা গরম হয়ে গেল ছোটপর্দার এই জনপ্রিয় অভিনেত্রীর। শুধু তাই নয়, নেটমাধ্যমে সে ব্যাপারে সোচ্চারও হলেন।

ইনস্টাগ্রামে রিল ভিডিওর মাধ্যমে 'মেজাজ গরম' এর কারণ জানালেন 'গুনগুন'। বলা ভালো 'দেখালেন'-ও বটে। ভিডিওতে দেখা গেল বাড়ির সমস্ত কাজ করতে হয় তাঁকে। ঘর ঝাঁট দেওয়া থেকে শুরু করে ঘর গুছোনো, জিনিসপত্র মুছে রাখা থাকা শুরু করে ঠিক জায়গামতো রাখা, এক কথায় সব। আর এ সবকিছু এক হাতে করলে মাথা গরম হওয়ারই কথা। আর তারপর এহেন পরিস্থিতিতে তাঁর স্বামী যদি 'এত মনমরা হয়ে থাকো কেন তুমি সবসময়?' তাহলে আর অভিনেত্রীর মেজাজ গরম হওয়াটা আর কি দোষের!

 

তবে জানিয়ে রাখা ভালো এই 'গল্প' কিন্তু মোটেই তৃণা এবং নীলের বাস্তব জীবনের গল্প কিংবা এ ঘটনা নয়। স্রেফ রিল দুনিয়ার গল্প। আসলে রিল ভিডিওর লঞ্চ হওয়ার এক বছর উপলক্ষে আরও পাঁচজনের মতো তৃণাও একটি ভিডিও বানালেন। সঙ্গে জুড়লেন একটি গল্পও। লিখলেন,' ঘর ঘর কী কাহিনি'। ভিডিওর শুরুতেই ফুটে উঠল 'গুনগুন'এর স্বামীর জিজ্ঞেস করা একটি প্রশ্ন। ‘স্বামী: ‘তুমি সব সময়ে এত মনমরা হয়ে থাকো কেন? হাসো আর আনন্দে থাকার চেষ্টা করো।’ এর জবাবেই তাঁর ঘরের সব কাজ করার ঘটনাটি তুলে ধরেছেন তিনি। অভিনেত্রীর মতে, এই কারণেই যে কোনও পরিবারে স্ত্রীর মেজাজ খারাপ থাকে।

তবে এই বার্তা কিন্তু ভরা ছিল কৌতুকরসেই। নীল-তৃণার সংসারের অন্দরের কাহিনি মোটেই যে এরকম নয় তা বলাই বাহুল্য। তবে ভিডিওটি মজার হলেও এর মাধ্যমে প্রায় প্রতিটি সংসারে স্ত্রীরা যে ভাবে খাটাখাটনি করেন, সেই ঘটনাই হালকা চালে তুলে ধরলেন 'গুনগুন'।

 

বন্ধ করুন