বিদ্যার 'শকুন্তলা দেবী'
বিদ্যার 'শকুন্তলা দেবী'

গুলাবো সিতাবোর পর ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্মেই আসছে বিদ্যার 'শকুন্তলা দেবী'

  • মানব ক্যালকুলেটর শকুন্তলা দেবী অঙ্কের জটিল হিসাবও সেকেন্ডের মধ্যে করতে সক্ষম ছিলেন।

করোনা সংকটে বলিউডে বড়সড় বদল আসতে চলেছে সেটা প্রত্যাশিতই ছিল।বৃহস্পতিবার সেই পরিবর্তনের সূচনাও হয়ে গিয়েছে অমিতাভ বচ্চন-আয়ুষ্মান খুরানা জুটির গুলাবো সিতাবোর হাত ধরে। থিয়েটারের মুক্তির জন্য অপেক্ষা না করে সরাসরি ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পাবে পরিচালক সুজিত সরকারের এই ছবি। এই ঘোষণার চব্বিশ ঘন্টা যেতে না যেতেই শুক্রবার সকালে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আমাজন প্রাইমের তরফে ফের ঘোষণা করা হল বিদ্যা বালানের বহুপ্রতীক্ষিত ছবি,শকুন্তলা দেবীর বায়োপিকও সরাসরি মুক্তি পাবে আমাজন প্রাইমে। যদিও এই বায়োপিকের স্ট্রিমিং কবে থেকে শুরু হবে তা এখন ঘোষণা করেনি আমাজন প্রাইম কর্তৃপক্ষ।

জাতীয় পুরস্কার জয়ী অভিনেত্রী বিদ্যা বালান ছাড়াও শকুন্তলা দেবীর বায়োপিকে দেখা মিলবে সান্যা মালহোত্রা,অমিত সাধ এবং বাংলার যিশু সেনগুপ্তের। মানব ক্যালকুলেটর শকুন্তলা দেবী অঙ্কের জটিল হিসাবও সেকেন্ডের মধ্যে করতে সক্ষম ছিলেন। তাঁর অসাধারণ গগণ ক্ষমতার জন্যই গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে তাঁর নাম নথিভুক্ত রয়েছে। ছবিতে শকুন্তলা দেবীর মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন সান্যা। মা-মেয়ের জটিল অথচ অদ্ভূত সুন্দর এক সম্পর্কের দিকও এই ছবিতে তুলে ধরা হয়েছে। 

এদিন টুইট বার্তায় বিদ্যা বালান বলেন, 'খুব আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি খুব শীঘ্রই আপনারা আপনাদের প্রিয়জনদের সঙ্গে নিয়ে প্রাইম ভিডিয়োতে শকুন্তলা দেবী দেখতে পাবেন। এই কঠিন সময়েও আপনাদের কাছে বিনোদনের রসদ পৌঁছে দিতে পারায় আমরা গর্বিত।’

এই ছবির পরিচালকের আসনে রয়েছেন অনু মেনন। শকুন্তলা দেবী প্রযোজনার দায়িত্বে রয়েছে সোনি পিকচার্স নেটওয়ার্ক ও বিক্রম মালহোত্রা। ৮ মে এই ছবির মুক্তির তারিখ নির্দিষ্ট ছিল কিন্তু করোনা পরিস্থিতির জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য মুক্তি পিছিয়ে যায় এই ছবির। গত কয়েকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল সরাসরি ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেতে পারে এই ছবি। অবশেষে শুক্রবার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা সেরে ফেলল টিম শকুন্তলা দেবী।

২২ মে জিফাইভে মুক্তি পাবে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির ঘুমকেতু। ১২ জুন থেকে ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্ম আমাজন প্রাইমে শুরু হচ্ছে গুলাবো সিতাবোর স্ট্রিমিং।

প্রায় দু’মাস দেশের মুভি থিয়েটারগুলি বন্ধ রয়েছে। অদূর ভবিষ্যতে তা খোলবার কোনও ইঙ্গিত নেই। অগত্যা অনেক প্রযোজকই ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্মকেই আপতত বেছে নিচ্ছেন ছবি মুক্তির মাধ্যম হিসাবে। যদিও প্রযোজকদের এই সিদ্ধান্তে হতাশ এবং ক্ষুদ্ধ একাধিক খিয়েটার চেন। এতে গভীর সংকটের মুখে পড়তে চলেছে মাল্টিপ্লেক্স চেন ও সিঙ্গল স্ক্রিন থিয়েটার মালিকরা। শোনা যাচ্ছে, অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘লক্ষ্মী বম্ব’, রাজকুমার রাও-এর ‘লুডো’, জাহ্নবী কাপুর অভিনীত বায়োপিক ‘গুঞ্জন সাক্সেনা’-সহ আরও বেশ কিছু ছবি নাকি সরাসরি ওয়েব প্ল্যাটফর্মেই মুক্তি পেতে চলেছে।

বন্ধ করুন