বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মুস্তাফার সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক অবৈধ? মুখ খুললেন প্রিয়মণি
মুস্তাফা-প্রিয়মণি
মুস্তাফা-প্রিয়মণি

মুস্তাফার সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্ক অবৈধ? মুখ খুললেন প্রিয়মণি

  • প্রিয়মণির সঙ্গে মুস্তফা রাজের বিয়ে বৈধ নয়, দিন কয়েক আগে অভিযোগ তুলেছিলেন মুস্তফা রাজের প্রথম স্ত্রী আয়েশা।

মুস্তাফা রাজের সঙ্গে নাকি ‘দ্য ফ্যামিলি ম্যান’ খ্যাত অভিনেত্রী প্রিয়মণির বিবাহ বৈধ নয়, এমনই অভিযোগ তুলেছেন মুস্তাফার প্রথম স্ত্রী আয়েশা। যদিও সেই অভিযোগকে নস্যাৎ করেছেন প্রিয়মণি। স্বামী মুস্তাফার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক সম্পূর্ণ নিরাপদ বলেই জানিয়েছেন তিনি।

সদ্য এক সাক্ষাৎকারে আয়েশার অভিযোগের ভিত্তিতে প্রিয়মণি বলেন, ‘কথোপকথনই আসল চাবিকাঠি। আমার এবং মুস্তাফার সম্পর্ক এখনও পর্যন্ত অত্যন্ত নিরাপদ। ও এখন আমেরিকায় রয়েছে; সেখানেই ও কাজ করে। আমরা একে অপরের সঙ্গে রোজ কথা বলি’। তিনি আরও বলেন, ‘ও কাজে ব্যস্ত থাকলে ফাঁকা হয়ে পরে ফোন করে নেয় বা মেসেজ করে। উলটোটাও হয়। আমি শ্যুটিং থেকে ফ্রী হলে, আমিও একই জিনিস করি’। ২০১৭ সালে প্রিয়মণির সঙ্গে বিবাহ হয় মুস্তাফা রাজের।

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে মুস্তাফার প্রথম স্ত্রী আয়েশা অভিযোগ করেন মুস্তাফার সঙ্গে প্রিয়মণির বিয়ে নাকি বৈধ নয়। তাঁর দাবি, এখনও পর্যন্ত মুস্তাফার সঙ্গে তাঁর বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি। তাঁরা আইনত এখনও বিবাহিত। মুস্তাফা রাজ এবং আয়েশার দুই ছেলেমেয়ে রয়েছে। রিপোর্ট বলছে, ২০১৩ থেকে মুস্তাফা এবং আয়েশা আলাদা থাকতে শুরু করেন।

এই অভিযোগ প্রকাশ্যে আসার পর মুস্তাফা জানিয়েছেন, তিনি দুই সন্তানের সব খরচ চালান। আয়েশা তাঁর কাছ থেকে আরও টাকা আদায়ের লক্ষ্যে এই সমস্ত অভিযোগ করছেন। এক সাক্ষাৎকারে মুস্তাফা বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে যে সমস্ত অভিযোগ করা হচ্ছে তা মিথ্যে। সন্তানদের দেখাশোনার জন্য আয়েশাকে নিয়মিত টাকা দিই। ওর আমার থেকে আরও টাকার দরকার। চাপ দিয়ে সেটা করার জন্যই এইসব বলছে’। পাশাপাশি তিনি প্রশ্ন তোলেন, এত বছর পর এই অভিযোগ কেন?

অন্যদিকে সংবাদমাধ্যমের সামনে আয়েশার অভিযোগ ছিল, ‘মুস্তাফা এখনও আমার সঙ্গে বিবাহিত সম্পর্কে জড়িত। সেই কারণে প্রিয়মণির সঙ্গে ওর বিয়ে বৈধ নয়। ও যখন প্রিয়মণিকে বিয়ে করেছে, তখন আমরা কোনও ডিভোর্স ফাইল করিনি। আদালতে ও নিজেকে ব্যাচেলার বলে দাবি করেছিল’। এত বছর পরে এই অভিযোগ কেন? প্রশ্নের উত্তরে আয়েশা বলেন, ‘দুই সন্তানের মা হিসেবে আমি আর কী করতাম? যে কেউ সৌহার্দ্যপূর্ণ ভাবে সমাধান করতে চাইবে। আমিও তাই চেয়েছিলাম। কিন্তু যখন সেটা হল না, কিছু পদক্ষেপ তো নিতেই হবে’।

 

বন্ধ করুন