বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'ফেম গুরুকুল'-এ ইলা অরুণের বকা খেয়ে কাঁদতে দেখা গিয়েছিল অরিজিৎকে, দেখুন ভিডিয়ো
ইন্ডিয়ান আইডল নয়, ফেম গুরুকুল দিয়ে গানের জগতে পা রাখেন অরিজিৎ সিং
ইন্ডিয়ান আইডল নয়, ফেম গুরুকুল দিয়ে গানের জগতে পা রাখেন অরিজিৎ সিং

'ফেম গুরুকুল'-এ ইলা অরুণের বকা খেয়ে কাঁদতে দেখা গিয়েছিল অরিজিৎকে, দেখুন ভিডিয়ো

‘ফেম গুরুকুল’ দিয়েই প্রথম দর্শকদের সামনে আসেন অরিজিৎ। দেখে নিন সে সময়ে অরিজিতের জীবনের সবচেয়ে বড় বিতর্কিত ঘটনা।  

৩৪ বছরে পা দিলেন অরিজিৎ সিং। তাঁর গায়িকীর জাদুতে মুগ্ধ জেন ওয়াই। অরিজিতের কনসার্ট মানে লাখ লাখ মানুষের ভিড়। তবে ইন্ডিয়ান আইডল নয়, অরিজিৎ সিং-কে প্রথম দেখা গিয়েছিল ‘ফেম গুরুকুল’ রিয়েলিটি শো-তে। ২০০৫ সালে সোনি টিভিতে টেলিকাস্ট হয়েছিল এই রিয়েলিটি শো। ‘ইন্ডিয়ান আইডল’ আর ‘বিগ বস’-এর কম্বিনেশনে তৈরি এই শো-য়ে একই ছাদের তলায় সর্বক্ষণ ক্যামেরার সামনে থাকতে হত প্রতিযোগীদের। সেখানেই তাঁরা সংগীতের বিভিন্ন গুরুর থেকে প্রশিক্ষণ নিতেন।

‘ফেম গুরুকুল’-এর একটি এপিসোডের ভিডিয়ো ফের ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে তরুণ অরিজিৎকে দেখা যাচ্ছে কিংবদন্তী গায়িকা ইলা অরুণের সামনে বসে চোখের জল ফেলতে। ‘হেড মিস্ট্রেস’ ইলা অরিজিৎকে বকা দিচ্ছেন তাঁর বিশ্বাস ভাঙার জন্য। ভিডিয়োতে অরিজিৎকে বারবার ক্ষমা চাইতে ও চোখের জল ফেলতেও দেখা গিয়েছে। এমনকী ইলা জানান, অরিজিৎ তাঁর অন্যতম প্রিয় ছাত্রের জায়গা হারিয়েছে। ইলা চলে যাওয়ার পর কান্নায় ভেঙে পড়তেও দেখা গিয়েছে অরিজিৎকে।

ফোর্বস ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে একবার অরিজিৎ জানিয়েছিলেন ‘ফেম গুরুকুল’-এ তাঁর অংশগ্রহণ করার কারণ। গায়ক বলেন, ‘আমি দেখতে চেয়েছিলাম কোথায় আমি দাঁড়িয়ে আছি। যতক্ষণ না তুমি প্রতিযোগিতায় নামছ, ততক্ষণ নিজের ক্ষমতা সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা তুমি পাবে না!’ শোয়ের অন্যতম জুড়ি মেম্বার শঙ্কর মহাদেবনের কারণেও ‘ফেম গুরুকুল’ বেছে নিয়েছিলেন বলেই জানিয়েছেন অরিজিৎ। তাঁর কথায়, ‘ওই শোয়ের পরেও শঙ্করজি-র সঙ্গে আমার যোগাযোগ ছিল। এখনও আছে। যখনই আর্থিক সমস্যায় পড়েছি, শঙ্করজির কাছে গিয়ে কাজ চেয়েছি।’

‘ফেম গুরুকুল’-এ হিমেশ রেশামিয়ার আশিক বানায়া আপনে, উদিত নারায়নের ‘আজা মাহিয়া’, কিশোর কুমারের ‘মেরি সোনি’-র মতো গান গেয়েছিলেন অরিজিৎ। ষষ্ঠ স্থানে শো থেকে কম ভোটের কারণে আউট হয়ে যেতে হয় অরিজিৎকে। ‘ফেম গুরুকুল’ জিতে নেয় কাজি তৌকির ও রূপরেখা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

বন্ধ করুন