বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘আমার নাতনির কাছে মিস ওয়ার্ল্ড ঐশ্বর্যর মতো নার্স আছে’, কেন বলেছিলেন জয়া বচ্চন?
ঐশ্বর্যকে নার্স বলে 'কটাক্ষ' জয়ার? 
ঐশ্বর্যকে নার্স বলে 'কটাক্ষ' জয়ার? 

‘আমার নাতনির কাছে মিস ওয়ার্ল্ড ঐশ্বর্যর মতো নার্স আছে’, কেন বলেছিলেন জয়া বচ্চন?

  • বউমা ঐশ্বর্য বচ্চনকে ‘কটাক্ষ’ করে এ কথা বলেন জয়া? জানুন বিস্তারিত। 

তৃণমূলের হয়ে ভোট প্রচারে এসে সংবাদ শিরোনামে জয়া বচ্চন। শুক্রবার এই বাঙালি অভিনেত্রীর ৭৩তম জন্মদিন। সোশ্যাল মিডিয়ায় রাত থেকেই উপচে পড়ছে শুভেচ্ছা, যদিও নিজে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম থেকে দূরেই থাকেন বচ্চন ঘরনি। অভিষেক থেকে নাতনি নভ্যা, শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি জয়াকে। পুত্রবধূ ঐশ্বর্য তাঁর শাশুড়ি মা'কে কী বলে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাবেন, সেই অপেক্ষায় ভক্তরা। 

এই শাশুড়ি-বৌমার সম্পর্ক নিয়ে ভক্তদের মনে জিজ্ঞাসার শেষ নেই। ভারতের অন্যতম চর্চিত মিস ওয়ার্ল্ড ঐশ্বর্য বলিউডের শীর্ষে থাকাকালীন গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন বচ্চন পুত্র অভিষেকের সঙ্গে। শ্বশুর-শাশুড়িকে নিয়ে এক ছাদের তলাতেই থাকেন ঐশ্বর্য। জনসমক্ষে খুব সিরিয়াস ব্যক্তিত্ব জয়া বচ্চন। তবে একবার এক রেডিও শো'তে বউমাকে নিয়ে মজা করতে দেখা গিয়েছিল জয়া বচ্চনকে। নাতনি আরাধ্যার কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন,'আমার মনে হয় ঐশ্বর্য মা হিসাবে দুর্দান্ত। এবং কখনও কখনও আমি ওকে রাগিয়ে দেওয়ার জন্য বলি, আরাধ্যা খুব ভাগ্যবতী… ভাবা যায় যে ওর মিস ওয়ার্ল্ড ঐশ্বর্যর মতো একজন নার্স রয়েছে'। 

জয়া মূলত মা হিসাবে ঐশ্বর্যর প্রশংসা করতে গিয়েই এ কথা বলেন। মেয়ের কোনও কাজই অন্য কাউকে কোনওদিন করতে দেননি বিশ্বসুন্দরী। সবটাই একার হাতে সামলেছেন। এরজন্য নিজের ফিল্মি কেরিয়ারকেও শিকেয় তুলেছেন ঐশ্বর্য। 

সারাক্ষণ ‘বহুরানি’ ডাক ফেরে বিগ বি-র মুখে। মেয়ের মতোই অ্যাশকে আগলে রাখেন জয়া। ঐশ্বর্য আর অভিষেকের বিয়ের আগেই বচ্চন পরিবারে ঐশ্বর্যকে উষ্ণ স্বাগত জানাতে পিছপা হননি জয়া। জনসাধারণের সামনেও তাঁকে ঐশ্বর্যকে নিয়ে সুখ্যাতি করতে দেখা গিয়েছিল। ২০০৭ সালে ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ডের অনুষ্ঠানে স্টেজে উঠে অভিনেত্রী জয়া বচ্চন তাঁর হবু পুত্রবধূর প্রশংসা করেছিলেন। বচ্চন পরিবারে তাঁকে স্বাগত জানাতে আর অপেক্ষা করতে পারছে না বলেই মন্তব্য করে বসেন জয়া। যা দেখে লজ্জায় লাল হয়ে যান দর্শকাসনে বসে থাকা নীল নয়না সুন্দরী।

 

আপতত নিজের পলিটিক্যাল কেরিয়ার সামলাতেই ব্যস্ত জয়া বচ্চন। এই তারকা সাংসদকে বেশ কয়েক বছর রুপোলি পর্দায় দেখা যায়নি। অভিনেত্রীর সবচেয়ে চর্চিত ছবির মধ্যে অন্যতম ‘গুড্ডি’, ‘অভিমান’, ‘কাল হো না হো’।

বন্ধ করুন