বয়ফ্রেন্ড রহমান শালের সঙ্গে সুস্মিতা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
বয়ফ্রেন্ড রহমান শালের সঙ্গে সুস্মিতা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

১৭ বছরের ছোট বয়ফ্রেন্ডকে কবে বিয়ে করছেন সুস্মিতা সেন? উত্তর দিলেন নায়িকা

  • রোমান শালের সঙ্গে সুস্মিতার প্রেম সম্পর্ক কারুরই অজানা নয়। দুই মেয়ে আলিশা ও রেনে এবং রোমানকে নিয়েই এই প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরীর সুখের সংসার। তবে কী এবার বিয়ের পর্বটাও সেরে ফেলছেন সুস্মিতা?

তিনি শুধু বিউটিফুল নন, তিনি বোল্ড। আর এই ব্যতিক্রমী ব্যক্তিত্বের জন্যই আজও আসমুদ্র হিমাচলের মনে ঝড় তোলেন এই বঙ্গ ললনা। কথা হচ্ছে প্রাক্তন ব্রহ্মাণ্ড সুন্দরী সুস্মিতা সেনের। সম্পর্কে রাখঢাক রাখাটা বরাবরই পছন্দ নয় সুস্মিতার, তাই ১৭ বছরের ছোট বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গেও নিজের সম্পর্ক গোপন রাখেননি তিনি। এবার কি তবে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে সুস্মিতা-রোমানের সম্পর্ক? অবশেষে কী প্রথমবারের জন্য সাতপাকে বাঁধা পড়বেন ৪৫ ছুঁইছুঁই এই নায়িকা? মঙ্গলবার ফ্যানেদের এই প্রশ্নের উত্তর দিলেন সুস্মিতা সেন। নববর্ষের দিন দুই মেয়ে আলিশা ও রেনে এবং বয়ফ্রেন্ড রহমানকে সঙ্গে নিয়ে ইনস্টাগ্রাম লাইভে ফ্যানেদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিলেন সুস্মিতা। সেখানেই বহু ফ্যান সুসের কাছে জানতে চায়-তাহলে তোমরা বিয়েটা কবে করছো? সু্স্মিতার অকপট জবাব- 'রোমান এই প্রশ্নটা আসলে তোমার জন্য'।

লাইভ চ্যাটের মুহুর্তে রহমান সুস্মিতা
লাইভ চ্যাটের মুহুর্তে রহমান সুস্মিতা


এই প্রেমিকের সঙ্গে মসকরা করার কোনও সুযোগ হাতছাড়া করেননি সুস্মিতা। মেয়েদের সামনেই ঠাট্টা করলেন রোমানকে নিয়ে। লাইভ চ্যাটের শুরুতেই সুস্মিতা বলেন 'দুদিন আগেই একটা প্রতিবেদন পড়ছিলাম, যেখানে রহমানের পদবি আর শাল নেই স্কার্ফ হয়ে গেছে! মানে শালটাই কী কম খারাপ ছিল আবার স্কার্ফ বানিয়ে দিল!' ছেড়ে কথা বলেননি সুস্মিতার হ্যান্ডসাম কাশ্মিরি বয়ফ্রেন্ডও। স্পষ্ট জানিয়ে দেন-'আমার পদবি নিয়ে বেশি মজা করো না'।

ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে হামেশাই বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে নানান রোম্যান্টিক মুহুর্ত শেয়ার করে নেন সুস্মিতা। তবে ফ্যানেদের সবচেয়ে পছন্দ এই ফিটনেস ফ্রিক জুটির ওয়ার্ক আউটের ভিডিয়ো। দিন কয়েক আগেও লকডাউনের সময়ে শরীরে শরীর মিলিয়ে বেশ কিছু উত্তেজক ওয়ার্ক আউটের ছবি পোস্ট করেছিলেন এই প্রেমিক যুগল। যেখানে বোঝাই যাচ্ছিল লকডাউনেও অবিচ্ছেদ্য এই জুটি।


লকডাউন প্রসঙ্গে ইনস্টাগ্রাম লাইভে সুস্মিতা জানান, 'বুঝতে পারছি এটা কারুর জন্যই সহজ নয়। আমি সবচেয়ে বেশি মিস করছি কাজ। হ্যাঁ কাজ না করতে পারাটা খুব দুঃখের। তবে এই খারাপ সময়টা বেশিদিন থাকতে পারে না। আমাদের আসল উদ্দেশ্য ফিরে পেতেই হবে। আশা করি অবশেষে মে মাসের শুরুতে সবটা পাল্টে যাবে'।


বন্ধ করুন