বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বিধানসভায় অগ্নিমিত্রা-লাভলি দ্বৈরথ! কেন নারীকে অসম্মান, BJP-কে প্রশ্ন অভিনেত্রীর
বিধানসভায় অগ্নিমিত্রা-লাভলি দ্বৈরথ!
বিধানসভায় অগ্নিমিত্রা-লাভলি দ্বৈরথ!

বিধানসভায় অগ্নিমিত্রা-লাভলি দ্বৈরথ! কেন নারীকে অসম্মান, BJP-কে প্রশ্ন অভিনেত্রীর

  • মহিলাদের নিয়ে কুরুচিক কথা, বিধানসভায় বিজেপি বিধায়কদের একহাত নিলেন লাভলি মৈত্র।  

‘বিজেপি নেতা-নেত্রীরা কি মহিলাদের যথাযোগ্য সম্মান দিতে পারেন না?’, বিধানসভায় কিছুটা এরকমই প্রশ্ন তুললেন তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে সোনারপুর দক্ষিণের বিধায়ক অভিনেত্রী লাভলি মৈত্র। বলা যায় নিজের ভাষণে একপ্রকার তুলোধনা করলেন বিরোধী দল বিজেপিকে। ছাড় পেলেন না ইন্ডাস্ট্রি-র সহকর্মী অগ্নিমিত্রা পল-ও। যদিও লাভলি-র বক্তব্যের সঙ্গে সহমত পোষণ করেছেন অনেকেই। 

নারী এবং শিশু কল্যাণ দফতরের বাজেট ভাষণে বক্তব্য রাখতে উঠে লাভলি বলেন, ‘কেন ক্রমাগত অভিনেত্রীদের নিয়ে কুরুচিকর কথা বলে চলেছে বিরোধি হল বিজেপি। ওঁদের ভাষা প্রয়োগ দেখে নিজেরই তো লজ্জা লাগে।’ একহাত নিলেন বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পল-কে। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে কটু কথা বলতে শোনা গিয়েছিল অগ্নিমিত্রাকে। সে প্রসঙ্গে টেনে এনে লাভলি বলেন, ‘২০১১ সালের আগে বাংলায় মহিলাদের অবস্থা কী ছিল? গতকাল, আমাদের বিরোধী দলের এক সদস্যা কীভাবে একজন মহিলা মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করলেন?’

নারী ও শিশু কল্যান প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের একের পর এক কর্মসূচীর প্রশংসা করে লাভলি বলেন, ‘আমি যেই রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিত্ব করছি, তারা মহিলাদের কথা ভাবে। সৌন্দর্য আসলে বাহ্যিক নয়, অন্দরের। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তো বারবার বলেছেন, প্রত্যেকটা মেয়েকে শিক্ষিত করতে পারলেই সমাজ এগোবে। আমাদের কন্যাশ্রী বিশ্বে স্বীকৃতি পেয়েছে।আমার বিশ্বাস, নারী কল্যাণে আমাদের বাংলা এক ঐতিহাসিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে। বাংলার মা-বোনেরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দু’হাত ভরে আশীর্বাদ করছেন।’

বন্ধ করুন