ইয়ামির আচরণে ক্ষুদ্ধ অসমবাসী (ছবি-আইএএনএস) (IANS)
ইয়ামির আচরণে ক্ষুদ্ধ অসমবাসী (ছবি-আইএএনএস) (IANS)

অসমের ঐতিহ্য 'গামোচা' নিতে অস্বীকার ইয়ামির! 'আত্মরক্ষা করছিলাম'-বললেন অভিনেত্রী

  • গুয়াহাটি বিমানবন্দরে গামোচা নিতে অস্বীকার করে অসমবাসীর রোষের মুখে বলিউড অভিনেত্রী ইয়ামি গৌতম। নিজের অবস্থান স্পষ্ট করলেন নায়িকা।

অসমের ঐতিহ্য, অসমের সংস্কৃতির সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে 'গামোচা'। অতিথি অপ্যায়ণের জন্য এই বিশেষ স্কার্ফ বা উত্তরীয় দেওয়ার রীতি যুগ যুগ ধরে চলে আসছে অসমে। অথচ গুয়াহাটি বিমানবন্দরে সেই গামোচা নিতে অস্বীকার করলেন বলিউড অভিনেত্রী ইয়ামি গৌতম। রবিবার একটি প্রমোশ্যানাল ইভেন্টে অসমের রাজধানীতে হাজির হয়েছেন ইয়ামি। ইয়ামির এই আচরণে ক্ষুদ্ধ অসমবাসী। এদিন অসমের একাধিক সংবাদমাধ্যমে সেই ভিডিয়ো সম্প্রচারিত হয়। যেখানে ইয়ামির এই আচরণকে অসমবাসীর জন্য অপমানজনক বলে উল্লেখ করা হয়েছে। ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে একজন পুরুষ ভক্ত ইয়ামিকে সেই গামোচা পরিয়ে দিতে এগিয়ে যাচ্ছে,তখনই তাকে হাত দিয়ে সরিয়ে দেন ইয়ামি। এরপর ইয়ামির সহকর্মীরা তাকে সেখান থেকে দূরে সরিয়ে নিয়ে যায়।



একটি আসমীয় টুইটার পেজ থেকে এই ভিডিয়ো শেয়ার করে লেখা হয়, 'বলিউড অভিনেত্রী অসমের গর্বকে অপমান জানিয়েছেন গুয়াহাটি বিমানবন্দরে, যখন একজন ফ্যান তাঁকে স্বাগত জানাচ্ছিল'।

সেই ভিডিয়ো রি-টুইট করে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করার চেষ্টা করেছেন ইয়ামি। তিনি লেখেন, 'আমার প্রতিক্রিয়াটা একদম আত্মরক্ষাবশত ছিল। মহিলা হিসাবে যদি আমি কোনও কারুর খুব কাছাকাছি আসা থেকে নিজে অসুরক্ষিত বোধ করি, তাহলে আমার বা পৃথিবীর যে কোনও মেয়ের সেটা জাহির করার অধিকার রয়েছে। আমির কারুর ভাবাবেগে আঘাত দিতে চাই নি, কিন্তু ভুল বা বেঠিক বিষয়ের বিরুদ্ধে নিজের আওয়াজ তোলাটাও জরুরি'।

অনেকেই ইয়ামির এই দলিলের সঙ্গে সহমত। কেউ কেউ আবার বলছেন, অন্তত গোমোচাটি ইয়ামি হাতেও নিতে পারতেন। এরপর আরও একটি টুইটে অসম রাজ্যের প্রতি নিজের ভালোবাসা ও শ্রদ্ধার কথা তুলে ধরেন ইয়ামি। তিনি লেখেন, এই নিয়ে তৃতীয়বার আমি অসমে এলাম। আমি সব সময়ই এই রাজ্যের প্রতি নিজের ভালোবাসার কথা জানিয়েছি। একটা একতরফা ঘটনা দেখে বা শুনে প্রতিক্রিয়া দেওয়া বা ঘৃণা ছড়ানোটা ঠিক নয়। আমি এখানেই রয়েছি, এটা একটা সুন্দর রাজ্যে একটা গুরুত্বপূর্ন অনুষ্ঠানের জন্য এবং আমি এখানে আবার ফিরে আসব। শান্তি এবং সম্মান বজায় রাখুন।


এর আগে ২০১৮ সালে এক জুয়েলারি স্টোরের লঞ্চে এসে ইয়ামি অসমের গামোচা-র প্রতি নিজের ভালোবাসার কথা জানিয়েছিলেন। ইয়ামিকে শেষ রূপোলি পর্দায় দেখা গিয়েছে আয়ুষ্মান খুরানার সঙ্গে বালা ছবিতে।

বন্ধ করুন