বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'আজীবন আমার সঙ্গে জীবিত থাকবে', হাতে সিদ্ধার্থের ছবি ট্যাটু করালেন শেহনাজের দাদা
শেহবাজ-সিদ্ধার্থ
শেহবাজ-সিদ্ধার্থ

'আজীবন আমার সঙ্গে জীবিত থাকবে', হাতে সিদ্ধার্থের ছবি ট্যাটু করালেন শেহনাজের দাদা

  • শরীরে সিদ্ধার্থের ট্যাটু করালেন শেহনাজের দাদা শেহবাজ গিল।

সিদ্ধার্থ শুক্লাকে আজীবন মনে রাখতে প্রিয় বন্ধুর ট্যাটু হাতে করিয়ে নিলেন শেহবাজ গিল। অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্লা নেই প্রায় দুই সপ্তাহ হতে চলল। সিদ্ধার্থের মুখের আদলে ট্যাটু করলােন শেহবাজ। শুধু বন্ধুত্বই নয় সম্পর্কে শেহবাজ শেহনাজ গিলের দাদা। বিগ বস জয়ী সিদ্ধার্থের সঙ্গে শেহনাজ গিলের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে বিগ বসের ঘরেই। সেখানেই শেহবাজের সঙ্গে পরিচয় সিদ্ধার্থের।

শেহনাজ, সিদ্ধার্থের খুনসুটি থেকে মান-অভিমান, ভালবাসা সবকিছুরই সাক্ষী ছিলেন শেহবাজ। তাই সিদ্ধার্থের মুখের ট্যাটুর নিচে শেহনাজের স্বাক্ষরটিও ট্যাটু করিয়েছেন শেহবাজ। ট্যাটুর ছবি শেয়ার করে ক্যাপশনে শেহবাজ লেখেন, ‘তোমার স্মৃতি তোমার মতোই স্বচ্ছ। আমার সঙ্গেই আজীবন তুমি জীবিত থাকবে। আমাদের স্মৃতিতেই সারাজীবন তুমি বেঁচে থাকবে’।

সিদ্ধার্থের চলে যাওয়ায় যাঁরা সবচেয়ে বেশি কষ্ট পেয়েছেন, তাঁদের মধ্যে প্রথমেই আসে সিদ্ধার্থের মা রীতা শুক্লা ও চর্চিত প্রেমিকা শেহনাজ গিল। শোকে কাতর শেহেনাজের ছবি লেন্সবন্দি হয়ে ছড়িয়ে পড়তেই তা ভাইরাল হয়েছিল নিমেষে। সদাহাস্য শেহেনাজের ওই ভিডিয়ো এখনও চোখে ভাসে ‘সিডনাজ’ ভক্তদের। শোকে পাথর হয়েছেন শেহনাজ।

সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমকে সিদ্ধার্থের মা জানিয়েছেন, শেহনাজের খেয়াল রাখছেন তিনি। শেহনাজকে তাড়াতাড়ি কাজে ফিরতে হবে। তাহলেই এই শোক কাটিয়ে উঠতে পারবে সে। রীতা জানিয়েছেন, তিনি চান না তাঁর ছেলের শোকে নিজের জীবন নষ্ট করুক শেহনাজ। তাই তিনি নিজেই শেহনাজের দায়িত্ব নিয়েছেন।

গত ২ সেপ্টেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মাত্র ৪০ বছর বয়সে না ফেরার দেশে চলে যান সিদ্ধার্থ শুক্লা। দাদা শেহবাজের সঙ্গে প্রেমিকের শেষকৃত্যে হাজির হয়েছিলেন শেহনাজ গিল। মানসিক ভাবে ভেঙে পড়তে দেখা গিয়েছে তাঁকে।

বন্ধ করুন