বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিকে তুখোড় রেজাল্ট ‘বং গাই’ কিরণের! দেখে চোখ কপালে নেটিজেনের
কিরণ দত্তের মাধ্যমিকের রেজাল্ট

মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিকে তুখোড় রেজাল্ট ‘বং গাই’ কিরণের! দেখে চোখ কপালে নেটিজেনের

  • জনপ্রিয় বাঙালির ইউটিউবার বিশ্বাস করেন মাধ্যমিকের ফলাফল কারও জীবন নির্ধারণ করতে পারেনা। তিনি মনে করেন প্রথাগত শিক্ষা ভীষণই দরকার।

চলতি বছর মাধ্যমিকের রেজাল্ট মুক্তির পরই নেটমাধ্যনে হৈ হৈ রব। শুভেচ্ছায় ভাসছেন উত্তীর্নকারীরা। অনেকেই মাধ্যমিকের রেজাল্ট নিয়ে নিজেদের মতামত জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই বিষয়ে মুখ খুলতে দিকে গিয়েছে জনপ্রিয় ইউটিউবার কিরণ দত্তকে। নেটমাধ্যমে নিজের মার্কশিটের ছবি শেয়ার করে নিজের মতামত প্রকাশ করেছেন।

জনপ্রিয় বাঙালির ইউটিউবার বিশ্বাস করেন মাধ্যমিকের ফলাফল কারও জীবন নির্ধারণ করতে পারেনা। কারণ পরবর্তীকালে এই ফলফলের আর সেরকম কোনও গুরত্ব নেই, এমনটাই মনে করেন তিনি। নেটমাধ্যমে পুরনো দীর্ঘ পোস্টে কিরণের লেখা, ‘কিসসু কাজে লাগেনা বিশ্বাস কর ভাই/বোন। এই নম্বর আমার জীবনে কোনো কাজে লাগেনি।সবাই সবকিছুতে ফার্স্ট হয়না, সবার আলাদা আলাদা ফার্স্ট হবার ফিল্ড থাকে।সেটা খুঁজে বের করতে হবে। তারপর মনপ্রাণ দিয়ে সেটায় লেগে থাকতে হবে। সেটা যে পড়াশোনাই হতে হবে কোনো কথা নেই। কিন্তু হ্যাঁ সেই ভালোলাগার কাজে খুব মন দিতে হবে।’

কিরণ দত্তের মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্ট
কিরণ দত্তের মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্ট
কিরণের পুরনো পোস্ট
কিরণের পুরনো পোস্ট

যদিও কিরণ নেটমাধ্যমে তাঁর মাধ্যমিকের ফলাফলের ছবি শেয়ার করেছেন। তাঁর রেজাল্ট দেখে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন নেটিজেনের একাংশ। তিনি মনে করেন প্রথাগত শিক্ষা ভীষণই দরকার।  

আরও লিখেছিলেন, ‘মাধ্যমিক,উচ্চমাধ্যমিক দুটোতেই ভালো রেজাল্ট করি। কিন্তু আমি খুশি ছিলাম না।আমার ভালো লাগতো না ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে। আমার ভিডিয়ো বানাতে ভালো লাগতো। আমার বাবা মাকে আমি একদিন বোঝাই, পুরোটা বোঝাই।আমি এভাবে ভালো থাকবো। জীবন টাকে জীবন মনে হবে আমার। বাবা মা সেদিন বুঝেছিল’। বলাইবাহুল্য কিরণ দত্তের মাধ্যমিকের ফলাফল দেখে চোখ কপালে নেটিজেনদের।

বন্ধ করুন