প্রাক্তন অভিনেত্রী জাইরা ওয়াসিম
প্রাক্তন অভিনেত্রী জাইরা ওয়াসিম

'প্রশংসা করো না, আমার ইমানের জন্য ক্ষতিকারক',অনুরাগীদের কাতর আর্জি জাইরার

  • ইমান বিপন্ন হচ্ছে এই কথা বলেই প্রায় গত বছর জুন মাসে, মাত্র ১৮ বছর বয়সে অভিনয় কেরিয়ারে ইতি টেনে দিয়েছিলেন আমির খানের 'দঙ্গল গার্ল' জাইরা ওয়াসিম।

বিপন্ন ধর্ম-বিশ্বাস, এই কারণ দেখিয়েই সকলকে চমকে দিয়ে মাত্র ১৮ বছর বয়সে অভিনয় থেকে অকালঅবসর নিয়েছিলেন বলিউডের সিক্রেট সুপারস্টার জাইরা ওয়াসিম। ববিতা ফোগাতের সাম্প্রতিক মন্তব্যের জেরে ফের চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে জাইরা। এর মাঝেই শুক্রবার রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই প্রাক্তন অভিনেত্রী অনুরাগীদের কাছে কাতর আর্জি জানালেন-'আমার প্রশংসা বন্ধ করো'। কেন এমন অনুরোধ জাইরার? জাইরার কথায়, 'এই প্রশংসা আমার ইমানের জন্য ক্ষতিকারক'।

দীর্ঘ বিবৃতিতে প্রাক্তন নায়িকা লেখেন, ' আসসালামুয়ালাইকুম সকলকে! আমি মানবিক দিক থেকে তোমাদের সকলের এই নিঃস্বার্থ ভালোবাসাকে স্বাগত জানাই। কিন্তু আমি জোর দিয়ে বলতে চাই (জীবনে) চলার পথের রাস্তায় এই প্রশংসা আমার জন্য মোটেই সন্তোষজনক নয়, বরং এটা আমার বড় পরীক্ষা এবং এটা (প্রশংসা) ভীষণরকমভাবে ক্ষতিকারক আমার ইমানের (বিশ্বাস) জন্য'।


জইরা আরও লেখেন, 'আমি হয়ত ততটাও ধার্মিক নই যতটা আপনারা বিশ্বাস করেন। আমি সকলকে বলতে চাই, দয়া করে আমার প্রশংসা করবেন না, বরং প্রার্থনা করুন যাতে আল্লাহ আমার সব ভুল-ক্রুটি গুলো ক্ষমা করে দেয়-সেগুলো অগুণতি। তাঁর দয়ার আলোয় যেন উনি আমার হৃদয়ের সব বিফলতা মুছে যায়, আমার ইমান যেন আরও মজবুত হয়'।

দঙ্গল, সিক্রেট সুপারস্টারের মতো দুটি ব্লকবাস্টার ছবিতে অভিনয় করেছেন জাইরা। অল্প বয়সেই সেরা সহ অভিনেত্রী হিসাবে জাতীয় পুরস্কারও জেতেন তিনি। ২০১৯ সালের ৩০ জুন আচমকাই অভিনয় জীবনে ইতি টেনে দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন অভিনেত্রী। তাঁর শেষ ছবি 'দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক' মুক্তির আগেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন জাইরা। ছবিতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও ফারহান আখতারের মেয়ে চরিত্রে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। অভিনয় কেরিয়ারের ইতি টানার প্রসঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে জাইরা লিখেছিলেন, 'আমি বুঝতে পেরেছি আমি বহু দিন ধরেই অন্য একজন হয়ে ওঠার চেষ্টা করে চলাচ্ছিলাম। আমি বুঝতে পেরেছি, যদিও আমি এখানে সুন্দর ভাবে ফিট হতে পারব কিন্তু আমি এটার জন্য নয়। এখানে আমাকে অনেক ভালবাসা, সমর্থন, প্রশংসা পেয়েছি, কিন্তু এই ফিল্ড আর যেটা করেছে তা হল আমাকে ধীরে ধীরে অবমাননার দিকে ঠেলে দিয়েছে, ক্রমশ অসচেতন ভাবে আমি আমার ইমান (বিশ্বাস)-এর থেকে দূরে সরে যাচ্ছি। কারণ আমি এমন একটা পরিবেশে কাজ করতাম যা ক্রমাগত আমার ইমানের মাঝে এসে দাঁড়াত, ধর্মের সঙ্গে আমার সম্পর্ক বিপন্ন হয়ে পড়েছিল'।

বন্ধ করুন