বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Ichche Putul: ‘চুরি নয়,পুরো ডাকাতি’! জলসার ইচ্ছেনদীর গল্প ‘টুকে দিল’ জি বাংলার ইচ্ছে পুতুল?

Ichche Putul: ‘চুরি নয়,পুরো ডাকাতি’! জলসার ইচ্ছেনদীর গল্প ‘টুকে দিল’ জি বাংলার ইচ্ছে পুতুল?

আসছে ইচ্ছে পুতুল

Ichche Putul: শুধু সিরিয়ালের নামে বা প্লটে মিল আছে তা নয়, কেন্দ্রীয় চরিত্রের নামেও অদ্ভূত মিল! ‘ইচ্ছে পুতুল’কে ‘ইচ্ছেনদী ২’ বলে কটাক্ষ নেটপাড়ার। 

দু-বোনের গল্প নিয়ে জি বাংলায় আসছে নতুন মেগা। সেই খবর তো আগেই দিয়েছিলাম আপনাদের। ৩০শে জানুয়ারি থেকে সম্প্রচার শুরু, তাই তড়িঘড়ি মঙ্গলবার নতুন মেগার প্রোমো সামনে আনল জি বাংলা কর্তৃপক্ষ। মৈনাক বন্দ্যোপাধ্যায়, তিতিক্ষা দাস এবং শ্বেতা মিশ্র অভিনীত নতুন ধারাবাহিকের নাম ‘ইচ্ছে পুতুল’। সিরিয়ালের প্রোমো সামনে আসতেই তাজ্জব দর্শক। এই সিরিয়ালের প্রথম ঝলক দেখে স্টার জলসার ‘ইচ্ছে নদী’ ধারাবাহিকের কথাই মনে পড়ছে দর্শকদের। বিক্রম-শোলাঙ্কি-শ্রীতমা অভিনীত ‘ইচ্ছেনদী’তে ফুটে উঠেছিল ত্রিকোণ প্রেমের গল্প। দুই বোন ভালোবাসে একজনকেই। ‘ইচ্ছে পুতুল’-এর গল্পেও তেমনটাই ঘটবে।

প্রোমোতে কী দেখা গেল? ছোট বোনের যা পছন্দ তা কেড়ে নিতে ওস্তাদ দিদি (শ্বেতা মিশ্র)। মেঘ (তিতিক্ষা)-র জন্মদিনের পার্টিতে তাঁর প্রফেসরকে (মৈনাক ভৌমিক) দেখে এক ঝটকায় প্রেমে পড়ে যায় মেঘের দিদি। যদিও বোনের মনের খোঁজ রাখে না সে। পর মুহূর্তেই দেখা যায় পার্টির মধ্যেই অসুস্থ হয়ে পড়েছে মেঘের দিদি। এবং ছোট মেয়েকে চিৎকার করে ডেকে মা বলেন, ‘মেঘ তাড়াতাড়ি আয়, তোর রক্ত ছাড়া তো ওকে বাঁচানো যাবে না’। জবাবে মেঘ বলে, ‘দিদি তোর কিচ্ছু হবে না, আমি আছি কী জন্য়’। বোঝাই যাচ্ছে থ্যালাসেমিয়া বা অন্য কোনও দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত মেঘের দিদি। ছোট থেকেই দিদির জন্য নিজের রক্ত নয় সর্বস্ব উজাড় করে দিয়েছে মেঘ। কিন্তু নিজের ভালোবাসার বলিদান কি সে দিতে পারবে? এই নিয়েই এগোবে গল্প।

<p>ইচ্ছ নদীর সঙ্গে মিল রয়েছে ইচ্ছে পুতুলের গল্পের</p>

ইচ্ছ নদীর সঙ্গে মিল রয়েছে ইচ্ছে পুতুলের গল্পের

প্রমো প্রকাশ্যে আসা মাত্রই নেটিজেনদের ভর্ৎসনার মুখে ‘ইচ্ছে পুতুল’ নির্মাতার। একজন লিখেছেন, ‘এতদিন জানতাম প্লট চুরি হয়, কিন্তু এ তো দেখছি পুরো ডাকাতি। সিরিয়ালের নামে এমন মিল। এমনকী কেন্দ্রীয় চরিত্রের নামটাও ঝেঁপে দিয়েছে’। হ্যাঁ, ইচ্ছেনদী সিরিয়ালে শোলাঙ্কির নাম ছিল মেঘলা আর এখানে তিতিক্ষার নাম মেঘ। অন্য একজন লেখেন, ‘ইচ্ছে নদী ২ নাম দিলেই তো হতো, ইচ্ছে পুতুল দেওয়ার কী দরকার ছিল আবার!’ অপর একজন লিখেছেন- ‘ব্যাস ইচ্ছেনদী কে কপি মেরে দিলো’।

কেউ কেউ তো আবার ধুলোকণার প্রসঙ্গ টেনে লিখেছেন, ‘চড়ুই-এর ভাই এখানে চড়ুইয়ের ক্রাশ হয়ে গেল, বাহ’। শ্বেতাকে ফের একবার একইরকম চরিত্রে দেখেও বিরক্ত অনেকে। এক হিরোকে নিয়ে দুই বোন বা বন্ধুর টানাটানির গল্প বাংলা সিরিয়ালে নতুন নয়। তবুও নির্মাতারা কেন সেই বস্তাপচা গল্প নিয়েই সিরিয়াল তৈরি করছেন প্রশ্ন অনেকের।

সবচেয়ে আশ্চর্যের ব্যাপার হল ‘ইচ্ছেনদী’ ধারাবাহিকটি তৈরি হয়েছিল লীনা গঙ্গোপাধ্যায় এবং শৈবাল বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রযোজনা সংস্থা ম্যাজিক মোমেন্টসের ব্যানারে। ‘ইচ্ছে পুতুল’ তৈরি করছেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের পুত্র অর্ক গঙ্গোপাধ্য়ায়। জি বাংলায় ‘লক্ষ্মী কাকিমা সুপারস্টার’-এর জায়গা নিতে চলেছে এই আসন্ন সিরিয়াল।

বন্ধ করুন