বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > থেমে যেতে চলেছে কাদম্বিনীর লড়াই! তিন মাসেই ইতি পড়তে চলেছে জি বাংলার এই সিরিয়ালে
বন্ধ হচ্ছে জি বাংলার কাদম্বিনী
বন্ধ হচ্ছে জি বাংলার কাদম্বিনী

থেমে যেতে চলেছে কাদম্বিনীর লড়াই! তিন মাসেই ইতি পড়তে চলেছে জি বাংলার এই সিরিয়ালে

  • অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহেই শেষ সম্প্রচার কাদম্বিনীর, খবর সূত্র মারফত। যদিও এই নিয়ে এখনও মুখে কুলুপ চ্যানেল কর্তৃপক্ষের।

শীঘ্রই বন্ধ হয়ে যেতে চলেছে ধারাবাহিক কাদম্বিনী । সূত্রের খবর চ্যানেলের পক্ষ থেকে শিল্পীদের এই কথা ইতিমধ্যেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। স্বভাবতই মন খারাপ কলাকুশলীদের । মেগার অন্যতম শিল্পী ধ্রুব সরকার তথা পর্দার ' নিরঞ্জন মিত্র ' আনন্দবাজার ডিজিজটালকে জানিয়েছেন , 'চ্যনেলের পক্ষ থেকেই বলা হয়েছে শুট হয়তো এই মাসে শেষ হবে। খুব সম্ভবত অক্টবরের পাঁচ তারিখ শেষ টেলিকাস্ট হবে ‘কাদম্বিনী’ ।

জানা যাচ্ছে এই পিরিয়ড ড্রামা টিআরপির তালিকায় ভালো প্রদর্শন করতে না পারার জেরেই মাসখানেক আগে শুরু হওয়া এই সিরিয়াল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। আসলে প্রতিদ্বন্দ্বী চ্যানেল স্টার জলসাতেও একই সময়ে শুরু হয়েছে কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়ের জীবনী নিয়ে তৈরি সিরিয়াল ‘প্রথমা কাদম্বিনী’।  দুটি সিরিয়ালই আশানুরূপ ফল করতে ব্যর্থ। এই সপ্তাহেও জি বাংলার কাদম্বিনী চারের অঙ্ক পেরোতে সফল হয়নি। স্টার জলসার অর্থাত্ শোলাঙ্কি রায় অভিনীত কাদম্বিনীর ফল টিআরপি তালিকায় এই সপ্তাহে কিছুটা ভালো (৫.৩)।

টেলিপাড়ার অন্দরে খবর প্রচলিত ধারাবাহিকের থেকে একদম আলাদা হওয়াটাই কাল হল কাদম্বিনীর। জি বাংলা অনেকটাই চেষ্টা করলেও দর্শকদের মন ওঠেনি এই ধারাবাহিকে | ' দর্শক সেই একঘেয়ে নায়ক নায়িকার প্রেমই দেখতে চান, জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক টেলি পাড়ার এক সদস্য। হয়তো ৫ই অক্টোবর শেষ সম্প্রচার হবে এই টেলি নিবেদনের |

গত ৬ই জুলাই শুরু হয়েছিল কাদম্বিনীর সম্প্রচার। জি-বাংলার এই মেগায় নাম ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে ঊষসী রায়কে। মোটা দুই বিনুনি, মাঝকপালে ছোট্ট টিপ, শাড়ি, কানের ছোট্ট রিং-এ যা শহরের ড্রয়িং রুমে বয়ে এনেছিল উনিশ শতকের নারী আন্দোলনের বাতাস আনতে সক্ষম হলেও এই সিরিয়াল নিয়ে অল্প-বিস্তর বিতর্কও হয়েছে। কাদম্বিনীদেবীর পরিবারের তরফে এই সিরিয়ালটি নিয়ে ‘জি’ কর্তৃপক্ষকে চিঠিও দেওয়া হয়েছিল। তাঁদের দাবি কাদম্বিনী এবং তাঁর স্বামী দ্বারকানাথের জীবন সম্পর্কে সঠিক তথ্য দেওয়া হয়নি এই ধারাবাহিকে। 

উল্লেখ্য বাংলার প্রথম মহিলা ডাক্তার কাদম্বিনীগঙ্গোপাধ্যায়। খাস ইংল্যান্ড থেকে তিনটি মেডিক্যাল ডিপ্লোমা নিয়ে দেশে ফিরে প্র্যাকটিস শুরু করেছিলেন এই বিদূষী নারী। 

বন্ধ করুন