বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > চুল ঝরছে! এই ৫টি ভুল করে থাকলে এখনই নিজের অভ্যাস পালটে ফেলুন
রোজ রোজ শ্যাম্পু করলে হীতে বিপরীত হতে পারে।
রোজ রোজ শ্যাম্পু করলে হীতে বিপরীত হতে পারে।

চুল ঝরছে! এই ৫টি ভুল করে থাকলে এখনই নিজের অভ্যাস পালটে ফেলুন

পরিবেশ, আবহাওয়া, দূষণ এবং ধুলো চুল ঝরার বাহ্যিক কারণগুলির মধ্যে অন্যতম। অন্য দিকে অবসাদ ও খাওয়া-দাওয়ার মতো শারীরিক ও মানসিক অবস্থার কারণেও চুল ঝরে থাকে।

কম বয়স থেকেই চুল পড়তে শুরু করা বর্তমানে একটি সাধারণ সমস্যায় দাঁড়িয়েছে। এর পিছনে নানান বাহ্যিক এবং শারীরিক ও মানসিক কারণ দায়ী হতে পারে। পরিবেশ, আবহাওয়া, দূষণ এবং ধুলো চুল ঝরার বাহ্যিক কারণগুলির মধ্যে অন্যতম। অন্য দিকে অবসাদ ও খাওয়া-দাওয়ার মতো শারীরিক ও মানসিক অবস্থার কারণেও চুল ঝরে থাকে।

তবে এ সমস্ত কারণ ছাড়াও, আমরা নিজেরাও এমন কিছু ভুল করে ফেলি, যার কারণে চুল ঝরতে পারে। তাই চুল পড়ার হাত থেকে মুক্তি পেতে এমন কিছু কাজ আছে, যা এক্ষুনি করা বন্ধ করে দেওয়া উচিত—

১. অতিরিক্ত চুল ধোয়া- চুলের স্ক্যাল্পের হাইজিন বজায় রাখার জন্য শ্যাম্পু করা ও চুল ধোয়া খুবই জরুরি। কিন্তু রোজ রোজ শ্যাম্পু করলে হীতে বিপরীত হতে পারে। কারণ প্রতিনিয়ত শ্যাম্পু করলে স্ক্যাল্পে যে প্রাকৃতিক তৈলাক্ত উপাদন মজুত থাকে তা নষ্ট হতে পারে। বার বার শ্যাম্পু করলে গোড়া থেকে চুল উঠতে শুরু করে এবং চুল ঝরে। তৈলাক্ত স্ক্যাল্প থাকলে সপ্তাহে চার বারের বেশি চুল ধোঁয়া উচিত নয়।

২. তোয়ালে দিয়ে চুল শোকানো- তোয়ালে দিয়ে কী খুব ঘষে ঘষে চুল শোকান? তা হলে এটি বন্ধ করুন। তোয়ালে দিয়ে রাফলি ও তীব্র ভাবে ঘষে চুল মুছলে, ঘর্ষণ সৃষ্টি হয় এবং চুল গোড়া থেকে উঠে যেতে পারে। তাই, এমন না-করে নরম ভাবে চুল শোকান। সাধারণ তোয়ালের পরিবর্তে মাইক্রোফাইবার দিয়ে তৈরি তোয়ালের সাহায্যে চুল পরিষ্কার করুন। এর ফলে ঘর্ষণ কমবে এবং এ ধরণের তোয়ালে চুলের জন্যও নরম হয়।

৩. একাধিক স্টাইলিং প্রোডাক্ট ব্যবহার করা- ব্লো ড্রায়ার, স্ট্রেটনার এবং কার্লারের সাহায্যে চুল সুন্দর করে সাজিয়ে তুলতে পারেন। কিন্তু এই যন্ত্রগুলির থেকে নির্গত তাপ চুলের ফলিকেলসকে নষ্ট করে দেয়। এ ক্ষেত্রে কী করতে পারেন? প্রায়ই যদি এই যন্ত্রগুলি ব্যবহার করতে হয়, তা হলে উন্নতমানের এমন যন্ত্র ব্যবহার করুন, যা দিয়ে কম তাপমাত্রা নির্গত হয়। এমনকি ওই যন্ত্রগুলি ব্যবহারের আগে চুলে হিট প্রোটেক্টিং জেল বা স্প্রে ব্যবহার করুন।

৪. ভেজা চুল আঁচড়ানো- ভিজে চুল আঁচড়ালে তা ভাঙার সম্ভাবনা অনেক বেশি। তাই চুল ভিজে থাকলে আঁচড়াবেন না। চুল প্রায় শুকিয়ে গেলে বড় দাঁতের চিরুনি দিয়ে ধীরে ধীরে চুল থেকে জট ছাড়ান। 

৫. শক্ত হেয়ারস্টাইল- অধিকাংশ মহিলা স্লিক হাই পনিটেল ভালোবাসেন। আবার কেউ কেউ টেনে চুল বাঁধেন বা খোপা করেন। কিন্তু এ ধরণের হেয়ার স্টাইলও চুলের ক্ষতি করতে পারে। খুব বেশি শক্ত করে চুল বাঁধলে ফলিকেলস নষ্ট হতে শুরু করে এবং এর ফলে চুল ঝরে। তাই এই অসময়ের ভাঙন রোধ করার জন্য এই টাইট হেয়ারস্টাইলকে বাতিলের খাতায় রাখাই ভালো।

বন্ধ করুন