বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Alcohol Damaging Sexual Health: মদ্যপান করলে লিভারের বারোটা বাজে, সবাই জানেন! কিন্তু যৌনশক্তিও কমে যায়, জানেন কি
মদ্যপান পুরুষদের কী ধরনের সমস্যায় ফেলতে পারে?

Alcohol Damaging Sexual Health: মদ্যপান করলে লিভারের বারোটা বাজে, সবাই জানেন! কিন্তু যৌনশক্তিও কমে যায়, জানেন কি

  • Side-Effects of Alcohol: অ্যালকোহল পান করা শুধুমাত্র লিভারের জন্যই নয়, যৌনস্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকারক। কী কী হতে পারে এর ফলে? রইল তালিকা। 

অনেকেই মদ্যপান করেন। এর ফলে লিভারের ক্ষতি হয়, তাও জানেন। অনেকেরই দাবি, তাঁরা আলে কালে মদ্যপান করেন। কিন্তু খোঁজ নিলে দেখা যাবে, তাঁরা নিয়মিতই মদ্যপান করেন। এতে শুধু লিভারের ক্ষতি হয়, তাই নয়। এর ফলে যৌনক্ষমতাও কমতে থাকে।

এক্ষেত্রে মনে রাখা দরকার, বেশি মদ্যপানই হোক, কিংবা কম মদ্যপানই হোক— তার প্রভাব পুরুষের যৌনস্বাস্থ্যে পড়বেই। গবেষণা থেকে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে যে, অ্যালকোহল শুধুমাত্র শুক্রাণুর সংখ্যা নয়, তাদের আকৃতি, আকার এবং গুণমানের ওপরও খারাপ প্রভাব ফেলে।

মদ্যপানের ফলে যৌনস্বাস্থ্য কীভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়?

যৌন হরমোনের উপর খারাপ প্রভাব:

  • অত্যধিক অ্যালকোহল পান করলে লিভারের উপর খারাপ প্রভাব পড়ে। পাশাপাশি বাড়ে বন্ধ্যত্বের সমস্যা।
  • গবেষণায় দেখা গিয়েছে, অ্যালকোহল টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কমিয়ে ইস্ট্রোজেনের মাত্রা বাড়ায়, সেই সঙ্গে অনেক হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করে। যা শুক্রাণুর উৎপাদন কমিয়ে দেয়।
  • এটি সুস্থ শুক্রাণুর আকার, আকৃতি এবং প্রসারিত হওয়ার ক্ষমতা হ্রাস করে। এর ফলে শুক্রর ঘনত্বও কমে যেতে পারে।
  • হেলথলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অ্যালকোহল পান করলে অণ্ডকোষের আকার ছোট হতে পারে, যা বন্ধ্যত্বের ঝুঁকি বাড়ায়।
  • অ্যালকোহল পান করলে তাড়াতাড়ি বীর্যপাত হয়ে যেতে পারে।

তবে বিজ্ঞানীরা এর পাশাপাশি সুসংবাদও দিয়েছেন। শুক্রাণুর উপর খারাপ প্রভাবও আটকানোও যেতে পারে। আপনি যদি অ্যালকোহল পান করা বন্ধ করে দেন, তবে আপনি ৩ মাসের মধ্যে আবার সুস্থ শুক্রাণু উপাদন শুরু করতে পারবেন।

বন্ধ করুন