বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Anemia superfoods: রক্তাল্পতায় ভুগছেন? সমস্যা মিটবে তিনটে সরবত খেলেই, কীভাবে, কখন খাবেন জেনে নিন

Anemia superfoods: রক্তাল্পতায় ভুগছেন? সমস্যা মিটবে তিনটে সরবত খেলেই, কীভাবে, কখন খাবেন জেনে নিন

রক্তাল্পতা শারীরিক জটিলতা আরও বাড়িয়ে দেয়। (Freepik)

Anemia blood deficiency three juices increase blood level: রক্তাল্পতার সমস্যা মেটাতে শরীরে আয়রনের জোগান ঠিক থাকা জরুরি। হিমোগ্লোবিন কমে গেলেই এই রোগ দেখা দেয়। কোন তিনটি সরবত খেলে আর রক্তাল্পতায় ভুগতে হবে না , জেনে নিন।

রক্ত শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে পুষ্টিদ্রব্য পৌঁছে দেয়। এছাড়াও দেহের বিভিন্ন অঙ্গের মধ্যে যোগাযোগ বজায় রাখে এই গুরুত্বপূর্ণ তরল। সেই রক্তের পরিমাণই যদি শরীর থেকে কমে যায় তাহলে একাধিক রোগ দেখা দিতে থাকে। এর মধ্যে প্রাথমিক রোগটি হল অ্যানিমিয়া বা রক্তাল্পতা। রক্তের মধ্যে লোহিত রক্তকণিকা, শ্বেত রক্তকণিকা ও অনুচক্রিকা নামের তিনধরনের কণিকা থাকে। এর মধ্যে লোহিত রক্তকণিকা রক্তের অক্সিজেন ও হিমোগ্লোবিন বহন করে। এর পরিমাণ কমে গেলেই রক্তাল্পতার সমস্যা দেখা দেয়। রক্তের পরিমাণ কমে গেলে শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে। এছাড়াও ত্বক ফ্যাকাশে হতে থাকে।

শীতকালে এমনিতেই হৃদরোগের আশঙ্কা অনেকটাই বেড়ে যায়। তার উপর রক্তাল্পতা শারীরিক জটিলতা আরও বাড়িয়ে দেয়। তাই শরীরে রক্তের জোগান ঠিক থাকা দরকার। তবে রোজকার খাদ্যতালিকায় কিছু নির্দিষ্ট খাবার থাকলেই এই সমস্যার থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

বিশেষজ্ঞদের কথায়, কোনও নির্দিষ্ট রোগ সারাতে আলাদা একটি পদ রান্না করে খেতে অনেকেই আলস্য বোধ করেন। রোজকার কাজের চাপে এর জন্য সময় বার করাও কঠিন হয়ে পড়ে। তবে ফলের সরবত বা কাঁচাই খাওয়া যায় এমন খাবার থাকলে পরিশ্রম অনেকটা কমে। তেমনই রক্তাল্পতা কমাতে তিনটি ফলের রসই যথেষ্ট কার্যকরী। এই ফলগুলি শরীরে রক্তের পরিমাণ ঠিক রাখতে সাহায্য করে।

কুলেখাড়ার‌ রস: অ্যানিমিয়া রোগীদের জন্য আয়রন জোগায় এমন খাবার খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এক্ষেত্রে কুলেখাড়া একটি একটি গুরুত্বপূর্ণ শাক। এতে থাকা আয়রন দেহে হিমোগ্লোবিন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এর ফলে রক্তাল্পতাও কমে। অ্যানিমিয়া সারাতে কুলেখাড়ার জুড়ি মেলা ভার।

অ্যালোভেরার সরবত: চুল কিংবা ত্বকের যত্নে দীর্ঘদিন ধরে এই ভেষজ ব্যবহার করা হয়। তবে এটি রক্ত তৈরি করতেও সাহায্য করে। অ্যালোভেরা প্রধানত অস্থিমজ্জাকে ভালো রাখে। এই মজ্জা থেকেই তৈরি হয় লোহিত রক্ত কণিকা উৎপাদিত হয়। তাই রোজ সকালে এক গ্লাস এলোভেরার সরবত খেলে রক্তাল্পতা কিছুদিনেই কমে যাবে।

আঙুরের রস: আঙুরের মধ্যে কালো আঙুরে প্রচুর পরিমাণে আয়রন রয়েছে। এই আয়রন হিমোগ্লোবিন তৈরি করতে সাহায্য করে। এছাড়াও আঙুরে থাকা পলিফেনল আমাদের দেহে শক্তির জোগান দেয়। তবে বেশি পরিমাণে আঙুরের রস খাওয়াও ঠিক নয়। রক্তাল্পতা কমলেও রক্তের অন্য সমস্যা দেখা দিতে পারে। কাজ থেকে ফেরার পর ক্লান্ত লাগলে আঙুরের রস খাওয়া যেতে পারে। এতে অনেকটাই আরাম পাওয়া যায়।

 

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

বন্ধ করুন