বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > অতিরিক্ত ওজন নিয়ে দুশ্চিন্তা? বাটিতে খাবার খেলেই মিলতে পারে সুফল
ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে বাটি খাবারের বিকল্প নেই

অতিরিক্ত ওজন নিয়ে দুশ্চিন্তা? বাটিতে খাবার খেলেই মিলতে পারে সুফল

  • সম্প্রতি এক পুষ্টিবিদ গবেষণা করে দেখিয়েছেন, খাবার কয়েকটি ছোট বাটিতে ভাগ করে খেলে বেশি খাওয়ার প্রবণতা কমে। যা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে খুবই সাহায্য করে।

বর্তমান সময়ে দ্রুত পাল্টাতে থাকা জীবনযাত্রার কারণে অনেকেই অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাসে অভ্যস্ত হয়ে পড়েন। এই অনিয়মিত খাদ্যাভাসের ফলে শরীরে নানা সমস্যা দেখা দেয়। সেই সমস্যাগুলির মধ্যে অনিয়ন্ত্রিত হারে ওজন বেড়ে যাওয়ার সমস্যাটি অনেকের কাছেই খুব গুরুতর হয়ে ওঠে। নিয়মিত শরীর চর্চার পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর  ও পরিমিত খাবার খেলে বাড়তি ওজন ঝরিয়ে ফেলা সম্ভব। কিন্তু পরিমাণ মতো ঠিক কীভাবে খাওয়া যেতে পারে তা অনেকেই বুঝতে পারেন না। সঠিক পরিমাণ খাদ্য গ্রহণ করতে হলে বাটি পদ্ধতিতে খাদ্য গ্রহণের  বিকল্প আর কিছুই হতে পারে না। সম্প্রতি এক গবেষণায় উঠে এসেছে এমনই এক তথ্য।

অনেকেরই সামনে প্রচুর খাবার থাকলে বেশি খাবার খেয়ে ফেলার প্রবণতা থাকে। এই কারণেই এক বিশিষ্ট পুষ্টিবিদ ‘বল মেথড বা বাটি পদ্ধতির’ সঙ্গে আমাদের পরিচয় করিয়ে দিলেন। 

এই পদ্ধতিতে খাবারের সঠিক পরিমাপের জন্য কয়েকটি ছোট বাটিতে খাবার ভাগ করা হয়। যাতে অতিরিক্ত খাবার খাওয়ার সুযোগ না থাকে। গবেষণায় প্রমাণিত বাটি ভর্তি করে খাবার খেলেই ওজন কমবে।

কীভাবে বাটি পদ্ধতি প্রয়োগ করবেন?

প্রতিদিন আপনার খাবারের জন্য ৩টি ছোট বাটি নিন। প্রতিটি বাটি আপনার পছন্দের খাবারে পূরণ করুন। এর অতিরিক্ত কিছু খাবেন না।  বাটিতে দ্বিতীয়বার খাবার নেবেন না। বাটির খাবার ছাড়া অন্য আইটেম খাবেন না।যদি কোনো বাটিতে বেশি ক্যালোরিযুক্ত খাবার থাকে তাহলে ৩ বাটির বদলে ২ বাটি খাবার খান। প্রতিবেলার খাবারের জন্যই বাটি বেছে নিন।

গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, একটি বড় পাত্রে খাবার রাখলে খাবারের পরিমাণকে কেবল কম বলে মনে হবে। ফলে বেশি খেয়ে ফেলতে পারেন।তবে ছোট পাত্রে খেলে বেশি খাওয়ার প্রবণতা কমে। আবার ওজনও নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

 গবেষকদের মতে, যে কোনও  খাবার খাওয়ার আগে অবশ্যই এক গ্লাস জল পান করুন। এতে শরীর আর্দ্র থাকে এবং  খাওয়ার পরিমাণও কমে।

 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন