বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Side-Effects of Coffee: শীতের দিনে কফির কাপে চুমুক? শরীর শুকিয়ে যাচ্ছে না তো
এই অভ্যাসের কারণে শরীর শুকিয়ে যাচ্ছে না তো? (ফাইল ছবি)
এই অভ্যাসের কারণে শরীর শুকিয়ে যাচ্ছে না তো? (ফাইল ছবি)

Side-Effects of Coffee: শীতের দিনে কফির কাপে চুমুক? শরীর শুকিয়ে যাচ্ছে না তো

  • শীতের সকালে বা দুপুরে গরম কফির কাপে চুমুক দিলে ঠান্ডা যেন অনেকটা কেটে যায়। আরাম লাগে। কিন্তু এই আরামের কারণে শরীরের কোনও ক্ষতি হচ্ছে না তো?

শীতকালে কফি খেতে অনেকেই ভালোবাসেন। শীতের সকাল বা সন্ধ্যায় গরম কফির কাপে চুমুক দিলে শীতটা আরও আরামদায়ক হয়ে ওঠে। কিন্তু এই কফির কি সবই ভালো? নাকি এই গরম কফি কোনও ক্ষতিও করতে পারে? 

হালে আমেরিকার ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা শরীরের ওপর কফির প্রভাব নিয়ে একটি গবেষণা চালিয়েছেন। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, কফি খেলে মূত্রের উৎপাদন বেড়ে যায়। ফলে শরীর থেকে অনেকটা জল বেরিয়ে যায়। আর তাতেই শরীর শুকিয়ে যায়। 

কিন্তু এখানেও দুটো বিষয় আছে। এই সমস্যা কার ক্ষেত্রে কতটা হবে, তা নির্ভর করছে তিনি নিয়মিত কফি খান, নাকি মাঝেসাঝে কফি খান— তার ওপর। 

  • যাঁরা নিয়মিত কফি খান: যাঁরা প্রতি দিনই দু’ থেকে চার কাপ কফি খান, তাঁদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা তুলনায় কম হয়। তাঁদের শরীর কফির বিভিন্ন উপাদানের সঙ্গে ধাতস্থ হয়ে যায়। ফলে কফি পানের পরে শরীর থেকে খুব বেশি জল বেরিয়ে যায় না। গবেষণা বলছে, কফি খাওয়ার অভ্যাস যত বাড়তে থাকে, ততই কমতে থাকে শরীর শুকিয়ে যাওয়ার পরিস্থিতিও। তাই যাঁরা সারা বছরই সকালে কফি পান করেন, তাঁদের এই সমস্যা কম হয়।
  • যাঁরা মাঝেমধ্যে কফি খান: আলেকালে কফি খেলে শরীর শুকিয়ে যাওয়ার সমস্যা বাড়তে থাকে। সেক্ষেত্রে শরীরে মূত্র উৎপাদন বেড়ে যায়। হঠাৎ করে একদিন দু’-তিন কাপ কফি খেয়ে ফেললে ডিহাইড্রেশনের সমস্যা হতে পারে এমন অনেকের ক্ষেত্রেই। এই ধরনের মানুষদের তাই শীতকালে কফি এড়িয়ে যাওয়াই উচিত। এমনই বলা হচ্ছে গবেষণা। অথবা কফি খাওয়ার আগে এবং পড় বেশি মাত্রায় জল খাওয়া উচিত।

বন্ধ করুন