বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Devi Shetty on Corona Vaccine: করোনা ভ্যাকসিনই কি হার্ট অ্যাটাক বাড়িয়ে দিয়েছে? এবার স্পষ্ট করলেন চিকিৎসক দেবী শেট্টি

Devi Shetty on Corona Vaccine: করোনা ভ্যাকসিনই কি হার্ট অ্যাটাক বাড়িয়ে দিয়েছে? এবার স্পষ্ট করলেন চিকিৎসক দেবী শেট্টি

হার্ট অ্যাটাকের পিছনে কি করোনা ভ্যাকসিন?

Dr Devi Shetty on Corona Vaccine and Heart Attack Relation: করোনার টিকাই কি বাড়িয়ে দিয়েছে হার্ট অ্যাটাকের প্রবণতা? এবার এই বিষয়টি নিয়ে কথা বললেন চিকিৎসক দেবী শেট্টি।  

গত বছর খানেকের মধ্যে হার্ট অ্যাটাকের খবরের পরিমাণ মারাত্মক হারে বেড়ে গিয়েছে বলে মনে করেন অনেকেই। নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়া বা সংবাদ মাধ্যমে নামী-অনামী মানুষের আচমকা হার্ট অ্যাটাক বা তার কারণে মৃত্যুর খবর আসতেই থাকে। অনেকেরই ধারণা, এর পিছনে রয়েছে করোনা ভ্যাকসিনের ভূমিকা। এই সন্দেহ কতটা ঠিক? কী বলছেন চিকিৎসক? সম্প্রতি এই প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছিলেন ভারতের অন্যতম নামজাদা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দেবীপ্রসাদ শেট্টি, যিনি জনসাধারণের মধ্যে দেবী শেট্টি নামেই বেশি পরিচিত।

সম্প্রতি সংবাদমাধ্যম ANI-এর এক সাক্ষাৎকারে দেবী শেট্টিকে জিজ্ঞাসা করা হয়, করোনা ভ্যাকসিনের সঙ্গে ক্রম বর্ধমান হার্ট অ্যাটাকের কোনও সম্পর্ক আছে কি না। এই প্রশ্নের উত্তরে প্রথমেই চিকিৎসক মজা করে বলেন, ‘আমার স্ত্রী সব সময়ে বলেন, হার্ট অ্যাটাকের কারণ হল করোনা ভ্যাকসিন।’

কিন্তু আসলে বিষয়টি কী? সত্যিই কি এই দুইয়ের মধ্যে সম্পর্ক আছে? দেবী শেট্টির মত, করোনা এবং করোনার ভ্যাকসিন আসার অনেক আগে থেকেই হার্ট অ্যাটাক বাড়ছে। হয়তো সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে বিষয়টি এখন বেশি করে গোচরে এসেছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে, আগে হার্ট অ্যাটাক হত না।

চিকিৎসকের কথায়, ‘এখন সোশ্যাল মিডিয়া এসে যাওয়ায়, আমার স্কুলের বন্ধুদের অনেকের সঙ্গেই যোগাযোগ হয়েছে। তাঁদের সঙ্গে আগে যোগাযোগের কোনও রাস্তাই ছিল না। অর্থাৎ বোঝা যাচ্ছে, এখন খবর সরবরাহটা সহজ হয়েছে। সেই কারণেই আরও বেশি করে হার্ট অ্যাটাকের খবরগুলি আমাদের সামনে আসছে।’

স্পষ্ট করে ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ তিনি যদিও বলেননি, কিন্তু তাঁর কথায় আভাস রয়েছে, করোনা টিকার সঙ্গে হার্ট অ্যাটাকের সম্পর্ক থাকার তেমন সম্ভাবনা নেই। তবে তিনি অন্য একটি বিষয় নিয়ে মানুষকে সচেতন করেছেন। সেটি হল দূষণ।

তাঁর কথায়, ‘জাপানের প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে দেখেছি, হার্ট একদম শিশুদের হার্টের মতো তরতাজা। জাপানে দূষমের মাত্রা কম। কিন্তু ভারতে প্রাপ্ত বয়স্ক মানেই হার্টে কালো কালো ছোপ। এর সঙ্গে ধূমপান এবং দূষণের সম্পর্ক রয়েছে।’

মূলত দিল্লি বা উত্তর ভারতের বেশ কিছু জায়গা, যেখানে দূষণের মাত্রা বেশি, সেই সব জায়গায় হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা এই কারণেই বাড়ছে বলে তাঁর মত।

বিপদ এড়াতে নিয়মিত হার্টের পরীক্ষা, স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার উপরে তিনি জোর দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কলকাতার নামজাদা হৃদরোগ-বিশেষজ্ঞ সরোজ মণ্ডলও একই ধরনের কথাই বলেছিলেন। তাঁরও মত ছিল, করোনা টিকার সঙ্গে প্রত্যক্ষ ভাবে হার্ট অ্যাটাক বেড়ে যাওয়ার সম্পর্ক থাকা উচিত নয়। যদি ভ্যাকসিনের কারণে রক্ত জমাট বাঁধার মতো ঘটনা ঘটে এবং তা থেকে হার্ট অ্যাটাক হয়— তাহলে এত দিন পরে সেই ঘটনা ঘটত না। চিকিৎসক মণ্ডলও সেই সময়ে হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাকে বলেন, হার্ট অ্যাটাক বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ মানসিক চাপ বেড়ে যাওয়া। সম্প্রতি ANI-কে দেওয়া দেবী শেট্টির সাক্ষাৎকারেও প্রায় সেই ধরনের কথাই শোনা গেল।

টুকিটাকি খবর

Latest News

রক্তক্ষয়ী আন্দোলন থেকে স্বাভাবিকের পথে বাংলাদেশ, কমপক্ষে ২০০ মানুষের মৃত্যু কলকাতা সহ ১৪টি বড় শহরে যানবাহন ব্যবস্থা ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা বাজেটে তেকাঠির তলায় শক্তি বাড়াতে এবার যুব বিশ্বকাপে খেলা গোলকিপারকে সই করাল মোহনবাগান ছয় কোটি কৃষকের জমি রেজিস্ট্রি করবে কেন্দ্র, করা হবে ফসল শুমারিও বসে যেতে চলেছে বহু বাস, পিপিপি মডেলে চালানোর অনুমতি চেয়ে চিঠি মালিকদের কেন্দ্রীয় বাজেটে চা শিল্পে হতাশা, তবে গবেষণা খাতে আশার আলো টেস্টে ইংল্যান্ড একদিনে ৬০০ রান করবেই... ব্রিটিশ ব্যাটার অলি পোপের ভবিষ্যদ্বাণী শ্রীলেখা অরিন্দম সৃজিতের গল্পে সাজছে নতুন OTT প্ল্যাটফর্ম, ফ্রাইডেতে থাকছে আর কী মলদ্বারে আটকে ১৬ ইঞ্চি 'সাধের লাউ', এক্স-রে দেখে হতবাক চিকিৎসক, এরপর যা হল… NEET দুর্নীতি নিয়ে প্রস্তাব পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায়, BJP বলল ‘অপার খাটের নীচে…’

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.