বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Almond Health Benefits: পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ ভেজানো আমন্ড কীভাবে খাওয়া যেতে পারে, রইল তার হদিশ

Almond Health Benefits: পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ ভেজানো আমন্ড কীভাবে খাওয়া যেতে পারে, রইল তার হদিশ

কীভাবে খাবেন আমন্ড?

Almond Health Benefits: শুকনো আমন্ডের তুলনায় অনেক বেশি পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ ভেজানো আমন্ড। কীভাবে কোন পদের সঙ্গে খাওয়া যেতে পারে। হদিশ দিচ্ছেন পুষ্টিবিদ।

শুকনো আমন্ডের তুলনায় অনেক বেশি পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ ভেজানো আমন্ড। কীভাবে কোন পদের সঙ্গে খাওয়া যেতে পারে। হদিশ দিচ্ছেন পুষ্টিবিদরা।

শুকনো আমন্ড এমনিতে বেশ পরিচিত একটি খাবার। তবে পুষ্টিগুণের হিসেবে শুকনো আমন্ডের তুলনায় পাল্লা ভারী ভেজানো আমন্ডের। আমন্ড ভেজানো হলে এর মধ্যে থাকা ফাইটিক অ্যাসিড ও ট্যানিন বেরিয়ে যায়। ফলে শুকনো আমন্ডের তুলনায় তাড়াতাড়ি হজম হয় এটি। এছাড়া আমন্ডে থাকা পুষ্টিকর উপকরণ গুলি সহজে শরীর গ্ৰহণ করতে পারে। আমন্ডে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট যা স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া রয়েছে ফাইবার ও প্রোটিনের মতো পুষ্টিকর পদার্থ। আমন্ড যখন ভেজানো হয়, তখন এর থেকে লাইপেজ নামক উৎসেচক নিঃসৃত হয়। এই লাইপেজ ওজন কমাতে সাহায্য করে। ভেজানো আমন্ড নরম হওয়ায় এটি বয়স্কদের পক্ষে খাওয়া ও হজম করা সুবিধাজনক। 

বাদাম ও কাঠবাদামজাতীয় ফল হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। হৃদরোগের আশঙ্কা কমাতে সাহায্য করে। আমন্ড রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে। একইসঙ্গে প্রোটিন, ফাইবার, ভিটামিন-ই, কপার ও ম্যাগনেশিয়ামের মতো প্রয়োজনীয় উপকরণ শরীরে সরবরাহ করে। এমন পুষ্টিকর ভেজানো আমন্ড ব্যবহার করে বাড়িয়ে নেওয়া যেতে পারে কিছু রান্নার স্বাদ। লাইফস্টাইল বিশেষজ্ঞ ও পুষ্টিবিদ আরুশি গর্গ হদিশ দিয়েছেন তেমনই আটটি পদের।

১. ওটস আর আমন্ডের পরিজ সকালের জলখাবার হিসেবে দারুণ পদ হতে পারে। এক্ষেত্রে ওটসের পরিজ তৈরি করে তার উপর ভেজানো আমন্ড ছোট ছোট করে কেটে টপিংস হিসেবে দিতে হবে। আরো পুষ্টিগুণ পেতে এর সঙ্গে যোগ করা যেতে পারে দুধ। 

২. সুজি, আটা বা চালের হালুয়াতেও ভেজানো আমন্ড নিঃসন্দেহে স্বাদ বাড়াবে। এজন্য প্রথমে আমন্ড ভিজিয়ে খোসা ছাড়িয়ে পিউরি বানিয়ে নিতে হবে। এরপর হালুয়ার সঙ্গে মিশিয়ে দিলেই তৈরি সুস্বাদু ও পুষ্টিকর ভিটামিনসমৃদ্ধ খাবার। 

৩. এছাড়াও দুধের মধ্যে ভেজানো আমন্ড ফেলে তৈরি করা যায় বাদাম শেক। এর মধ্যে গুড় দিলে বাদামশেকের স্বাদ আরো বেড়ে যাবে।

৪. ভেজিটেবল গ্ৰেভিতে ভেজানো আমন্ডের পিউরি উপকরণ হিসেবে যোগ করলে রান্নার স্বাদে আসবে নতুন মাত্রা। 

৫. ভেজানো আমন্ড ডিহাইড্রেট করে তৈরি করা যায় আমন্ড পাউডার। এই পাউডার দুধ, কেকমিক্স ইত্যাদির স্বাদ বাড়াতে নিশ্চিন্তে ব্যবহার করা যায়। 

৬. ফলের স্মুদির স্বাদ বাড়াতেও ভেজানো আমন্ড একইভাবে কার্যকরী। 

৭. ঠান্ডাই ভারতের এক ঐতিহ্যপূর্ণ তরল পানীয়। কাজু, পেস্তা, পোস্তবীজের পাশাপাশি ভেজানো আমন্ড মিক্স করে ঠান্ডাই তৈরি করলে তার স্বাদ আলাদা মাত্রায় পৌঁছাবেই।

৮. পাস্তা সস আরও স্বাস্থ্যকর বানাতে এর মধ্যে পাইন নাটসের বদলে দেওয়া যেতে পারে ভেজানো আমন্ড। 

বন্ধ করুন