বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Ewg recent findings: মাছ কিনে জমিয়ে রাঁধছেন? কোন বিষ শরীরে যাচ্ছে, জানেন কি

Ewg recent findings: মাছ কিনে জমিয়ে রাঁধছেন? কোন বিষ শরীরে যাচ্ছে, জানেন কি

স্বাদু জলের মাছ আমরা কে না খেতে পছন্দ করি। (Freepik)

Ewg recent findings eating one freshwater fish is equal to drink polluted water during one month: স্বাদু জলের মাছ আমরা কে না খেতে পছন্দ করি। পুকুর বা নদী থেকে ধরে আনা মাছের স্বাদই আলাদা। তবে এর মধ্যে কী পরিমাণ বিষ রয়েছে জানেন?

প্রতি বছর স্বাদু জলের একটি মাছ খেলেই তা এক মাস বিষাক্ত পদার্থ 'পিএফওএস' মিশ্রিত জল পান করার সমান। এনভায়রনমেন্টাল ওয়ার্কিং গ্রুপের (ইডব্লুজি) বিজ্ঞানীদের একটি নতুন সমীক্ষায় এবার এমন তথ্যই প্রকাশিত হল।

গবেষকরা গণনা করে দেখেছেন যে বছরে একটি মাছ খাওয়া ৪৮পিপিটি (পার্টস পার ট্রিলিয়ন) পিএফওস মেশানো জল খাওয়ার সমান। ইডব্লুজি দীর্ঘকাল ধরে পিএফওএস-এর সংক্রমণের নিয়ন্ত্রণের কথা বলে আসছে। এই গবেষণার ফলে আরও একবার এই বিষাক্ত পদার্থ নিয়ন্ত্রণের প্রয়োজনীয়তা জোরালো হল।

ডায়েটের মাধ্যমেই এই বিষাক্ত পলিফ্লুরোঅক্টেন সালফোনেট (পিএফওএস) মানুষের শরীরে প্রবেশ করছে, এমন ধারণা চালু হওয়ার পর থেকেই একাধিক পরীক্ষা নিরীক্ষা করেন ইডব্লুজি গ্ৰুপ। তখন থেকেই এই বিষাক্ত পদার্থ নিয়ন্ত্রণের জোরালো দাবি উঠেছিল। এই ফলাফল প্রশ্ন তুলে দিয়েছে কিছু নির্দিষ্ট জাতির অস্তিত্ব। আমেরিকার বেশ কিছু অঞ্চলের মানুষ স্বাদু জলের মাছ খেয়েই বেঁচে থাকেন‌ তাদের জীবন এখন বিপদের সম্মুখীন।

বাণিজ্যিকভাবে চাষ করা মাছের তুলনায় স্বাদু জলের মাছে আশ্চর্যজনকভাবে ২৮০ গুণ বেশি রয়েছে এই ধরনের বিষাক্ত পদার্থ। এনভায়রনমেন্টাল প্রোটেকশন এজেন্সি এবং ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের পাঠানো পরীক্ষামূলক তথ্য থেকেও দেখা গিয়েছে স্বাদু জলের মাছের একটি খেলে প্রতিদিন দোকান থেকে কেনা মাছ খাওয়ার মতো একই রকম পিএফএস (আরেক প্রকৃতির বিষাক্ত পদার্থ) এক্সপোজার হতে পারে।

গবেষণার প্রধান লেখকদের একজন ও ইডব্লুজি-এর প্রবীণ বিজ্ঞানী ডেভিড অ্যান্ড্রুস‌ বলেন, 'যারা স্বাদু জলের মাছ খায়, বিশেষ করে নিয়মিত মাছ ধরে এবং খায়, তাদের শরীরে পিএফএস-এর মাত্রা বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে‌। তাঁর কথায়, 'বড় হয়ে আমি প্রতি সপ্তাহে মাছ ধরতে যেতাম। সেই মাছগুলো নিয়মিত খেয়েছি। কিন্তু এখন যখন মাছ দেখি, তখন আমি শুধু পিএফএস দূষণের কথাই ভাবি।'

ইডব্লুজি-এর সরকারি বিষয়ক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট স্কট ফ্যাবার বলেছেন, 'এই পরীক্ষার ফলাফলগুলি সত্যিই শ্বাসরুদ্ধকর।' পিএফওএস-দূষিত স্বাদু জলের মাছ খেলে মানুষের রক্তে সিরামে এই ক্ষতিকর পদার্থের পরিমাণ বাড়ে। এর ফলে স্বাস্থ্যের ঝুঁকি বাড়ে। এমনকি স্বাদু জলের মাছের একবার ব্যবহার করলেও শরীরে পিএফএস-এর মাত্রা বাড়াতে পারে। ডিউক ইউনিভার্সিটির স্নাতক ছাত্র এবং এই প্রকল্পের প্রধান গবেষক নাদিয়া বারবো বলেন, ‘পিএফএএস মাছকে যে পরিমাণ দূষিত করেছে তা বিস্ময়কর।’

 

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

 

বন্ধ করুন