বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > করোনা আক্রান্ত রোগীরা ভুলেও খাবেন এই খাবার, জানুন বিস্তারে
করোনা রোগীদের জন্য এ ধরণের খাদ্য পদার্থ ক্ষতিকর প্রমাণিত হতে পারে।
করোনা রোগীদের জন্য এ ধরণের খাদ্য পদার্থ ক্ষতিকর প্রমাণিত হতে পারে।

করোনা আক্রান্ত রোগীরা ভুলেও খাবেন এই খাবার, জানুন বিস্তারে

করোনা আক্রান্তদের দৈনিক খাদ্য তালিকায় ভিটামিন ডি ও সি সমৃদ্ধ খাবার অন্তর্ভূক্ত করার কথা বলা হচ্ছে।

নিত্যনতুন রেকর্ড গড়ছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। দুশ্চিন্তার ভাজ পড়েছে সকলের মাথায়। রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলার পাশাপাশি খাওয়া-দাওয়ার যত্ন নেওয়ার বিষয়ও পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। করোনা আক্রান্তদের দৈনিক খাদ্য তালিকায় ভিটামিন ডি ও সি সমৃদ্ধ খাবার অন্তর্ভূক্ত করার কথা বলা হচ্ছে। এর পাশাপাশি এমন কিছু খাবার আছে, যা খাওয়া থেকে করোনা আক্রান্তদের দূরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। করোনা আক্রান্ত হয়ে বাড়িতে আইসোলেশনে থাকলে, এ সমস্ত খাবার এড়িয়ে চলাই শ্রেয়।

ভাজাভুজি নৈব নৈব চ- কোভিড পজিটিভ রোগী যদি নিজের মুখের স্বাদ ভালো করার জন্য তেলেভাজা খেয়ে থাকেন, তা হলে তা এক্ষুণি বন্ধ করুন। কারণ তেলেভাজায় ফ্যাটের পরিমাণ বেশি থাকে। কার্লিটেল্সের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী করোনা আক্রান্তদের শীঘ্র সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন। চিকিৎসা চলাকালীন ভাজাভুজি খাওয়া থেকে বিরত থাকতে বলছেন তাঁরা। রিপোর্ট অনুযায়ী এ ধরণের খাদ্য পদার্থ করোনা আক্রান্তদের শরীরে রোগের সঙ্গে লড়ার ক্ষমতা দুর্বল করে দেয় এবং কোলেস্টেরলের পরিমাণ বৃদ্ধি করে হৃদরোগের সম্ভাবনা বৃদ্ধি করে।

ঠান্ডা ও মিষ্টি পানীয়কে না বলুন- করোনা আক্রান্ত রোগীরা চিকিৎসাধীন থাকাকালীন ঠান্ডা পানীয় পান করবেন না। এর ফলে শরীরে ফোলা ভাব দেখা দিতে পারে এবং সেড়ে ওঠার প্রক্রিয়া বাধিত হয়।

মদ্যপান করবেন না- করোনা আক্রান্ত অবস্থায় মদ্যপান করবেন না। কারণ সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য যে সমস্ত ওষুধ খাওয়া হয় তার কার্যকরীতা মদের প্রভাবে হ্রাস পায়। সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য দইয়ের ঘোল বা লেবুর শরবৎ পান করা যেতে পারে।

প্রসেসড ফুডের বাড়বে ক্ষতির সম্ভাবনা- ক্ষিদে পেলে অনেকেই প্রোসেসড ফুড খেয়ে থাকেন। করোনা রোগীদের জন্য এ ধরণের খাদ্য পদার্থ ক্ষতিকর প্রমাণিত হতে পারে। কিছু কিছু প্রসোসেড ফুডে সোডিয়ামের পরিমাণ বেশি থাকে। এর ফলে সুস্থ হয়ে উঠতে বিলম্ব হয় এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও দুর্বল হয়ে পড়ে। চিকিৎসা চলাকালীন সময় রোগীরা ভুলেও ম্যাগি, আলু চিপস, বিস্কিট খাবেন না। বাড়িতে তৈরি খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

খাদ্য তালিকায় রেড মিট রাখবেন না- প্রোসেসড মিট ও রেড মিট— দুইয়েই সম্পৃক্ত ফ্যাটের পরিমাণ বেশি হওয়ায় ব্যক্তির শরীর ফুলে যেতে পারে। করোনা আক্রান্ত না-হলেও রেড মিট এড়িয়ে যান। শরীরে প্রোটিনের অভাব পূরণ করার জন্য মাছ, মুরগীর মাংস, ডিম, পনীর, বিন ও ডাল খাওয়া উচিত।

মশলাদার খাবার খাবেন না­- এমন খাবার গলা জ্বালা করে এবং এর ফলে কাশি শুরু হয়। এই দুটি পরিস্থিতিই কোভিড আক্রান্তদের জন্য কষ্টকর। অধিক মশলার পরিবর্তে খাবারে গোলমরিচ দিয়ে খেতে পারেন। গোলমরিচে রোগনাশক উপাদান উপস্থিত থাকে, যা সুস্থ হয়ে ওঠার গতি বাড়াতে পারে।

ক্যাফিন- এ সময় অধিক ক্যাফিন যুক্ত পানীয় পান করবেন না। এছাড়াও মিষ্টি ফলের রস, সিরাপ ইত্যাদি পান করা বর্জন করুন। এর পরিবর্তে গোটা ফল খান।

বন্ধ করুন