বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Government launches Uwin app: কোউইনের আদলেই এবার ইউউইন, কষ্ট করে মনে রাখতে হবে না শিশু ও মায়ের টিকার রুটিন

Government launches Uwin app: কোউইনের আদলেই এবার ইউউইন, কষ্ট করে মনে রাখতে হবে না শিশু ও মায়ের টিকার রুটিন

ভারতের সার্বিক টীকাকরণ প্রকল্প এবার একটি অ্যাপেই নথিভুক্ত থাকবে (REUTERS)

Uwin app for India's immunisation programme after Cowin: কোউইনের সাফল্য দেখেই এবার কেন্দ্রের নতুন পদক্ষেপ ইউউইন অ্যাপ। হবু মায়েরা এতে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। এরপর থেকে অ্যাপই মনে করিয়ে দেবে টীকার কথা।

টীকার কার্ড সবসময় সামলে রাখা, একটি টীকা হয়ে গেলে তাতে টিক দিয়ে রাখা, আবার ক্যালেন্ডারে দাগ দিয়ে রাখা কখন পরের টীকা নিতে হবে। সদ্যজাত শিশুর টীকা নিয়ে এমন অনেক কিছুই খেয়াল রাখতে হয়। তবে আর কিছুদিন পর থেকে এত ঝক্কি পোয়াতে হবে না। একটি অ্যাপেই সমস্ত হিসেবনিকেশ করে রাখা যাবে। কিছু ক্ষেত্রে অ্যাপ নিজেও মনে করিয়ে দিতে পারে টীকার কথা। সম্প্রতি কোউইন অ্যাপের সাফল্য দেখে এমন পদক্ষেপই নিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কোউইন অ্যাপের আদলেই আসছে ইউউইন অ্যাপ। ভারতের সার্বিক টীকাকরণ প্রকল্প (ইউনিভার্সাল ইমিউনাইজেশন প্রোগ্রাম) এবার একটি অ্যাপেই নথিভুক্ত থাকবে। দেশের প্রতিটি রাজ্যের দুটি করে জেলা ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে পরীক্ষামূলকভাবে এই অ্যাপ চালু হয়ে গিয়েছে। দেশজু়ড়ে মোট ৬৫ টি জেলায় আপাতত চালু থাকবে এই অ্যাপ। ১১ জানুয়ারি উদ্বোধন করা হয়।

কীভাবে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি চলবে?

গর্ভাবস্থার সময় থেকে অ্যাপটিতে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। এরপর শিশুর জন্মের তারিখ ও অন্যান্য তথ্যও ওতে নথিভুক্ত করা যাবে। অ্যাপেই জন্মের সময়কার ডোজ ও সময়ের হিসেব দেওয়া থাকবে। শুধু সেই দেখে টীকা দেওয়াতে হবে সদ্যজাত একরত্তিকে। এরপরের বেশ কিছু ডোজ ও তার সময়ও একইভাবে লেখা থাকবে অ্যাপের মধ্যে। নতুন এই ব্যবস্থার ফলে দুটো জিনিস হবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞমহল।

প্রথমত, সরকারের কাছে দেশজুড়ে টীকা প্রকল্পের তথ্য আরও নির্দিষ্টভাবে থাকবে। এছাড়া, পুরো প্রক্রিয়াটি ডিজিটাইজড হওয়ায় কাজেরও সুবিধা হবে। তাছাড়াও, কোনও ডোজ বাদ পড়ার আশঙ্কাও দূর হবে। অ্যাপের রিমাইনন্ডার অর্থাৎ মনে করিয়ে দেওয়ার পদ্ধতি সময়ের আগেই টীকার কথা জানিয়ে দেবে। এছাড়াও এক আধিকারিকের কথায়, এক্ষেত্রে স্বাস্থ্যকর্মী ও টীকা প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা আধিকারিকরা আরও সহজে কাজটি করতে পারবে। রিয়েল-টাইম ডেটা অর্থাৎ টীকা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পোর্টালে সেই তথ্য আপলোড করে দিতে পারবেন। এছাড়াও তাঁর কথায়, সবকটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল একটি সাধারণ ডেটাবেসে কাজ করতে পারবেন। গর্ভবতী মহিলা ও শিশুদের টীকাকরণের জন্য অ্যাপে একটি আভা আইডি (এবিএইচএ বা আয়ুষ্মান ভারত হেল্থ অ্যাকাউন্ট) তৈরি করে দেওয়া হবে। এই আইডির ভিত্তিতেই সমস্ত তথ্য সংরক্ষিত থাকবে। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে এদিন আধিকারিক জানান, কোভিড টীকার মতোই এই টীকাগুলির সময় তারিখ আগে থেকে ঠিক করে রাখা যাবে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন