বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Health Tips: শীতকালে পেয়ারা খেতে ভুলবেন না, বাড়বে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা, দূর হবে সর্দি-কাশি
ডাঁসা পেয়ারা খেলে কফ কমতে পারে।
ডাঁসা পেয়ারা খেলে কফ কমতে পারে।

Health Tips: শীতকালে পেয়ারা খেতে ভুলবেন না, বাড়বে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা, দূর হবে সর্দি-কাশি

  • পেয়ারায় প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি, পটাশিয়াম ও ফাইবার উপস্থিত। এ ছাড়াও এতে ফোলেট ও লাইকোপিনের মতো জরুরি পুষ্টিকর উপাদানও থাকে।

পেয়ারা অনেকেই ভালোবাসেন। এই ফলটি স্বাস্থ্যের পক্ষেও বিশেষ উপকারী। তবে শুধু পেয়ারা নয়, পেয়ারার পাতাও স্বাস্থ্যোপোগী। পেয়ারায় প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি, পটাশিয়াম ও ফাইবার উপস্থিত। এ ছাড়াও এতে ফোলেট ও লাইকোপিনের মতো জরুরি পুষ্টিকর উপাদানও থাকে। এতে ৮০ শতাংশ জল থাকে যা ত্বক হাইড্রেট করতে সাহায্য করে। শীতকালে পেয়ারা খেলে একাধিক উপকারিতা লাভ করতে পারেন। কী কী? জেনে নিন—

সর্দি-কাশী থেকে রক্ষা করে- শীতকালে ঘরে ঘরে সর্দি-কাশী লেগে থাকে। পেয়ারা ও এর পাতায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও আয়রন থাকে, যা সর্দি-কাশীর হাত থেকে রক্ষা করে। এই ফল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। কাশি হলে পাকা পেয়ারা খাবেন না। তবে ডাঁসা পেয়ারা খেলে কফ কমতে পারে। তাই শীতকালে পেয়ারা খাওয়া উচিত। পেয়ারায় উপস্থিতি ভিটামিন সি আবার দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

মধুমেহ থেকে রক্ষা করে- সমীক্ষা অনুযায়ী পেয়ারা রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে। বিশেষত পেয়ারা পাতার অর্ক ইনসুলিন রেসিসটেন্স ও মধুমেহ রোগে উপকারী। খাবার পর পেয়ারা পাতার চা পান করলে রক্তে শর্করার পরিমাণ কম হয়। এই ফলে গ্লাইকেমিক ইন্ডেক্স কম থাকায় রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়তে দেয় না। 

হৃদরোগ থেকে রক্ষা করে- হৃদযন্ত্রের জন্য এই ফল বিশেষ উপকারী। এতে উপস্থিত অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও ভিটামিন মুক্ত র‌্যাডিক্যালগুলির হাত থেকে হৃদযন্ত্র থেকে রক্ষা করে। এতে কলার সমপরিমাণ পটাশিয়াম থাকে যা, হৃদযন্ত্রকে চাঙ্গা রাখে। পেয়ারার পাতাও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমিয়ে ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করে। একটি সমীক্ষা অনুযায়ী খাবার খাওয়ার আগে পাকা পেয়ারা খেলে ৮ থেকে ৯ পয়েন্ট পর্যন্ত রক্তচাপ কমে যেতে পারে।

ওজন কমাতে সহায়ক- ওজন কম করার স্বপ্ন দেখে থাকলে পেয়ারার চেয়ে ভালো ফল আর দুটি নেই। এতে খুব কম পরিমাণে ক্যালোরি থাকে। আবার পেয়ারা অনেক সময় পর্যন্ত পেট ভরা থাকে। এমনকি ভিটামিন ও মিনারেলে সমৃদ্ধ হওয়ায় শরীরে কোনও পুষ্টিকর উপাদানের অভাবও থাকে না। এতে কম পরিমাণে শর্করা থাকে, যার ফলে ওজন বাড়ে না।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে- ফাইবারের গুরুত্বপূর্ণ উৎস পেয়ারা। পেট পরিষ্কার করতে এটি সাহায্য করে। পেয়ারা কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করে। একটি মাত্র পেয়ারা খেলে প্রতিদিনের ফাইবারের চাহিদা পূরণ করতে পারে। পেয়ারা থেকে ১২ শতাংশ ফাইবার পাওয়া যায়। আবার এর পাতা ডায়রিয়ার সমস্যা দূর করে এবং অন্ত্রে উপস্থিত ক্ষতিকর কীটাণু ধ্বংস করে।

ক্যানসার থেকে রক্ষা করে- এই ফলের পাতায় অ্যান্টি ক্যানসার গুণ থাকে। টেস্ট-টিউব ও অ্যানিমাল স্টাডি অনুযায়ী পেয়ারার অর্ক ক্যানসার কোষ বাড়তে দেয় না। এতে উপস্থিত শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট মুক্ত র‌্যাডিক্যাল থেকে রক্ষা করে। পেয়ারায় উপস্থিত লাইকোপিন, কোয়েরসেটিন ও পলিফেনলও ক্যানসার কোষের বৃদ্ধি প্রতিরোধ করে। সমীক্ষা থেকে জানা গিয়েছে যে, পেয়ারার পাতায় উপস্থিত অ্যান্টি-প্রোলিফেরেটিভ পদার্থ ক্যানসার প্রসার আটকাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

বন্ধ করুন