বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Health Tips: কম হবে ওজন, ত্বক ও হার্টের জন্য উপকারী - এই ৫ কারণে শীতকালে রোজ খান কমলালেবু
কমলালেবুতে উপস্থিত ভিটামিন সি সংক্রমণ আটকায় ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে।

Health Tips: কম হবে ওজন, ত্বক ও হার্টের জন্য উপকারী - এই ৫ কারণে শীতকালে রোজ খান কমলালেবু

কমলালেবুতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে, এর পাশাপাশি পাচন তন্ত্রও মজবুত হয়। এতে উপস্থিত দ্রাব্য ফ্যাট পেটকে অনেকক্ষণ পর্যন্ত ভরে রাখে।

শীতকালে বাজার ভরে থাকে রসালো, কমলা রঙের ফলে। শীতের মরশুমে কমলালেবু খেতে ভালোবাসেন সকলে। মরশুমি ফল হওয়ায় এটি পুষ্টিকর উপাদানে ভরপুর থাকে। শীতকালে কমলালেবু খেলে কী কী উপকার পেতে পারেন, জেনে নিন —

১) ওজন কম করতে সাহায্য করে- কমলালেবুতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে, এর পাশাপাশি পাচনতন্ত্রও মজবুত হয়। এতে উপস্থিত দ্রাব্য ফ্যাট পেটকে অনেকক্ষণ পর্যন্ত ভরে রাখে। যার ফলে অতিরিক্ত খাবার খাওয়ার প্রবণতা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। সেই কারণে শরীরে ক্যালোরির পরিমাণও কম হয়। তবে কমলালেবুর রসের তুলনায় এর ফল খেলে অধিক উপকার পেতে পারেন।

২) রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও ত্বকের জন্য উপকারী- শীতকালে ত্বক, স্বাস্থ্য ও হজম প্রক্রিয়া তিনটিই দুর্বল হয়ে পড়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। কমলালেবুতে উপস্থিত ভিটামিন-সি সংক্রমণ আটকায় ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে। এই ভিটামিন সি ত্বককে সুস্থ করে সতেজ থাকতে সাহায্য করে।

৩) সর্দি-কাশি থেকে রক্ষা করে- শীতকালে ঘরে ঘরে সর্দি-কাশি লেগেই থাকে। তাই এই মরশুমে বেশি করে কমলালেবু খান। এর ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী হয়। একটি সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী সর্দি-কাশিতে ভিটামিন সি উপকারী প্রমাণিত হয়। কমলালেবুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি থাকে। তাই এটি সর্দি-কাশি থেকে রক্ষা করে।

৪) হৃদযন্ত্রের জন্য ভালো- আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশানের একটি সমীক্ষা অনুযায়ী টক ফল বিশেষত আঙুর ও কমলা লেবু স্ট্রোকের ঝুঁকি কম করে। মনে করা হয় কমলালেবুতে উপস্থিত ফ্ল্যাভেনয়েডস হৃদরোগের সম্ভাবনা থেকে রক্ষা করে। রক্ত কোষের কারর্যকরিতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে এটি।

৫) কিডনি স্টোনের ঝুঁকি কম করতে সাহায্য করে- প্রস্রাবে সাইট্রেটের অভাবের কারণে কিডনি স্টোন হতে পারে। এই সাইট্রেট এক ধরনের সাইট্রিক অ্যাসিড, যা সাধারণত কমলালেবুর মতো টক ফলে পাওয়া যায়। যাঁদের কিডনিতে ছোট আকারের স্টোন থাকে, তাঁরা এক গ্লাস করে কমলালেবুর রস পান করলে উপকার পেতে পারেন। এর ফলে প্রস্রাবে সাইট্রেটের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। এর ফলে স্টোন তৈরির সম্ভাবনা কমে। 

বন্ধ করুন