বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সঙ্গে মিশে গেল জ্যাজ, পপ! জ্ঞান মঞ্চ সাক্ষী থাকল অন্য গানের

শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সঙ্গে মিশে গেল জ্যাজ, পপ! জ্ঞান মঞ্চ সাক্ষী থাকল অন্য গানের

জ্ঞান মঞ্চে অভিনব সঙ্গীতসন্ধ্যা

Kolkata News: শাস্ত্রীয় ঘরানার সঙ্গীতের মিলিয়ে মিশিয়ে পরিবেশিত হল জ্যাজ, পপ মিউজিক। প্রবীণ ও নবীনরা মিলেমিশে পরিবেশন করলেন এই বিশেষ অনুষ্ঠান। পালিত হল নন্দোৎসবের বিশেষ মুহূর্ত।

কসুর পাতিয়ালা ঘরানার বিশিষ্ট সঙ্গীতজ্ঞ গুরু কুমার মুখোপাধ্যায়ের নির্দেশনায় জ্ঞান মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল নন্দোৎসব। গুরুজীর ছাত্রছাত্রীরাই শ্রীকৃষ্ণ আবির্ভাবের রূপরঙগুলি সুমধুরভাবে পরিবেশন করলেন। এই দিনের অনুষ্ঠানে ছিল এক অভিনব চমক। শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের সঙ্গে যৌথভাবে পরিবেশিত হয় জ্যাজ,পপ, লাতিন আমেরিকার সঙ্গীতও। ৪৫ বছর ধরে এই নিয়ে চর্চা করছেন গুরু কুমার মুখোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত, সেই দীর্ঘ অনলস সাধনারই ফসল এই ফিউশন। 

(আরও পড়ুন: না লাগল শুক্রাণু, না লাগল ডিম্বাণু! কীভাবে মানুষের ভ্রুণ বানালেন বিজ্ঞানীরা)

নতুন প্রজন্মের মধ্যে অনেকটাই বেশি জনপ্রিয় বিটিএস, রক, বিগব্যাং ইত্যাদি ঘরানার গান। সেই গানগুলির সঙ্গেই হিন্দুস্তানি সঙ্গীতকে পরিবেশন করা হল গুরুত্বপূর্ণ আঙ্গিকে। গুরুজির নির্দেশনার পাশাপাশি এই দিন মঞ্চে দেখা যায় রাগরীতের ছাত্রছাত্রীদের নিরলস প্রচেষ্টা। শুধু তরুণ শিল্পীরাই নন, একই মঞ্চে সঙ্গীত পরিবেশন করেন প্রবীণেরাও। এই দিন অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে গুরুজি বলেন, 'প্রথমে খুব ছোট গণ্ডির মধ্যেই ছিল এই পরিকল্পনা। পরে ধীরে ধীরে তা নিয়ে বড় করে ভাবা শুরু হয়। অবশেষে আজ এটা মঞ্চস্থ হওয়ায় একটা পূর্ণ রূপ পেল।'

(আরও পড়ুন: কোন কোন উপসর্গ দেখলেই বুঝবেন রেবিস? এই রোগ সম্পর্কে কীভাবে সতর্ক করবেন শিশুদের)

মূলত যুগোপযোগী করে তুলতেই এই বিশেষরকমের আয়োজনের কথা ভাবা হয়েছে বলে জানান গুরুজি। কথা বলতে বলতে এই প্রসঙ্গে টেনে আনেন দুর্গাপুজোর প্রসঙ্গ। থিমপুজোর রমরমা হলেও যেমন মন্ত্র একই থাকে, এই পরিকল্পনাও ঠিক তেমন। করোনার কারণে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ ছিল রাগরীতের বড় মাপের অনুষ্ঠান। গত দুই বছর ধরেই চলছিল অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা। অবশেষে তা বাস্তবায়িত হল। 

বন্ধ করুন