বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Home Remedies for Black Neck: ঘাড়-গলার কাছে ত্বক কালো হয়ে যাচ্ছে? এর কারণ কী? কীভাবেই বা কমাবেন এই ছোপ দাগ
গলায় এবং ঘাড়ে কালো ছোপের কারণ কী?

Home Remedies for Black Neck: ঘাড়-গলার কাছে ত্বক কালো হয়ে যাচ্ছে? এর কারণ কী? কীভাবেই বা কমাবেন এই ছোপ দাগ

  • Black Neck Remedies: অনেকেরই ঘাড় এবং গলার পাশের ত্বক কালো হয়ে যায়। এর কারণ কী? এর প্রতিকারই বা কী?

ঘাড় বা গলার ত্বক কালো হয়ে যাওয়া, বা কালো ছোপ পড়া অনেকের কাছেই খুব অস্বস্তিকর একটি সমস্যা। অন্যের সামনে অস্বস্তির কারণ তো হয়ে দাঁড়ায় বটেই, অনেকে এর কারণে পছন্দের পোশাকও পরতে পারেন না। কিন্তু কেন এই সমস্যা হয়?

ঘাড়ের ত্বক কালো হয়ে যাওয়ার কারণ কী?

চিকিৎসকরা বলেন, এর পিছনে রয়েছে মূলত দু’টি কারণ। প্রথমত, তীব্র সূর্যালোক এবং দ্বিতীয়ত, দূষণ। এই দু’টি কারণেই এই এলেকার ত্বক কালো হয়ে যায়। এর পাশাপাশি ত্বকের অন্য সমস্যাও থাকতে পারে। সেটি ভালো করে পরীক্ষা করে বলতে পারেন চিকিৎসকরা।

ঘাড় বা গলার কালো ত্বককে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনবেন কীভাবে?

সমস্যাটি যদি মারাত্মক কোনও কারণে না হয়ে থাকে, তাহলে ঘরোয়া কিছু প্রতিকারের মাধ্যমে এই ত্বক স্বাভাবিক রঙে ফেরানো যায়। জেনে নিন, কীভাবে।

লেবু ও বেসন ব্যবহার: ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে লেবু ও বেসন দিয়ে তৈরি পেস্ট লাগাতে পারেন।

  • এক চা চামচ বেসনের মধ্যে আধা চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন।
  • যে পেস্টটি তৈরি হবে, সেটি একটু শুকিয়ে নিন।
  • এটি আপনার ঘাড়ে ১৫-২০ মিনিটের জন্য রাখুন।
  • এর পরে পরিষ্কার জল দিয়ে ঘাড় ধুয়ে ফেলুন।
  • সপ্তাহে দু’বার এই পেস্টটি লাগান।

লেবু ও হলুদ ব্যবহার: লেবু ও হলুদ ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে পারে। এটি খুব নিরাপদ ও ত্বকের জন্য ভালো।

  • লেবুর রসে এক চিমটি হলুদ যোগ করে নিন।
  • একটি পেস্ট বানিয়ে নিন।
  • পেস্টটি অল্প শুকিয়ে গেলে ঘাড়ে বা গলার কালো ত্বকের উপরে লাগাতে হবে।
  • এই পেস্টটি ১৫ মিনিট পর পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

তবে মনে রাখবেন, শুধুমাত্র দূষণ বা রোদের কারণে ঘাড় বা গলার ত্বক কালো হয়ে গেলেই এভাবে পরিষ্কার করা যায়। অন্য কোনও সমস্যা হলে, তা সাধারণ ঘরোয়া উপায়ে সামলানো যাবে না। তখন চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে প্রতিকার করতে হবে।

বিশেষ করে ঘাড় বা গলার ত্বক কালো হয়ে যাওয়া বা কালচে ছোপ পড়ার সঙ্গে যদি চুলকানির সমস্যা হয়, তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। কারণ এটি ত্বকের কোনও ধরনের সংক্রমণের কারণে হতে পারে। সেক্ষেত্রে ওষুধ দিয়েই চিকিৎসা করাতে হবে।

বন্ধ করুন