বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Cucumber Buying Guide: শসা তেতো কি না কেনার সময়ে বুঝবেন কীভাবে? তেতোভাব কাটানোর উপায়ই বা কী
শসা কেনার আগে কী কী দেখে নেবেন?
শসা কেনার আগে কী কী দেখে নেবেন?

Cucumber Buying Guide: শসা তেতো কি না কেনার সময়ে বুঝবেন কীভাবে? তেতোভাব কাটানোর উপায়ই বা কী

  • তেতো শসা মোটেই খাওয়া উচিত নয়। তাতে শরীরে নানা সমস্যা হতে পারে। কী করে শসার তেতোভাব কাটাবেন?

গরমে শসা খেতে ভালো তো লাগেই, পাশাপাশি এই ফলের প্রচুর গুণ আছে। শরীরে জলের মাত্রা ধরে রাখা থেকে শুরু করে খাবার হজম করানো— এই ফলটি বহু উপকার করতে পারে।

কিন্তু কোনও কোনও শসা প্রচণ্ড তেতো হয়। এই শসা খাওয়া উচিত নয়।

তেতো শসা খেলে কী কী সমস্যা হতে পারে?

  • তেতো শসায় এমন কিছু পদার্থ থাকে, যা শরীরে টক্সিন জমা করায়।
  • তেতো শসা বেশি খেলে ডিহাইড্রেশনের মতো সমস্যাও হতে পারে।
  • তেতো শসা বেশি খেলে তলপেটে ব্যথা, পেটের সমস্যা এবং কিডনির নানা সমস্যা হতে পারে।

কিন্তু শসা তেতো কি না বোঝার উপায় কী?

অনেকেই বলছেন, শসা তেতো হবে কি না, তা দেখে বোঝার বিশেষ উপায় নেই। যে কোনও শসাই তেতো হতে পারে। শসায় আছে কিউকারবিটাসিন ‘বি’ ও ‘সি’ নামের দু’টি যৌগ। এদের কারণেই শসায় তেতো ভাবটা থাকে।

কিন্তু একটি বিশেষ প্রক্রিয়ায় এই তেতোভাব অনেকটা কাটিয়ে ফেলা যায়।

কী করে শসার তেতোভাব কাটাবেন?

এ জন্য শসা কাটার সময়ে একটি বিশেষ কাজ করতে হবে। এর মুখের দিকটা কেটে চক্রাকারে ঘষতে থাকুন। দেখবেন, সাদা ফেনা উঠছে। যত ক্ষণ এই ফেনা উঠবে, তত ক্ষণ ঘষতে থাকুন।

শসার তেতোভাব কাটানোর উপায়। 
শসার তেতোভাব কাটানোর উপায়। 

এরপর শসা কেটে মুখে দিন, দেখবেন তেতো স্বাদ থাকে না। ওই ফেনার সঙ্গে কিউকারবিটাসিন বেরিয়ে যায়। তাই শসা থেকে তেতোভাব কমে যায়।

বন্ধ করুন