বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Health Benefits of Laughing: মন খুলে হাসুন, আর হাসতে হাসতে জানুন আপনার জীবনে হাসির উপকারিতা

Health Benefits of Laughing: মন খুলে হাসুন, আর হাসতে হাসতে জানুন আপনার জীবনে হাসির উপকারিতা

হেসেই দেখুন, প্রচুর উপকার পাবেন আপনি। (pixabay)

Benefits of laughter: হাসুন, একবার হেসেই দেখুন। দেখবেন কত উপকার পাবেন আপনি। 

যখন আপনি সত্যিই ভেতর থেকে খুশি থাকেন, তখনই আপনার মুখে ফুটে ওঠে এক অনাবিল হাসি। তবে ইতিবাচক পরিস্থিতিতে তো সবাই হাসতে পারে, নেতিবাচক পরিস্থিতিতেও যারা হাসতে পারে, তারাই দিনের শেষে হয়ে যায় জয়ী। হাসির মাধ্যমে সকলের মধ্যে পজিটিভ এনার্জি ছড়িয়ে দেওয়ার জন্যই প্রতিবছর পালন করা হয় জাতীয় হাসি দিবস।

কবে পালন করা হয় জাতীয় হাসি দিবস?

প্রতিবছর ৩১ মে জাতীয় হাসি দিবস পালন করা হয়।

কীভাবে শুরু হলো হাসি দিবস?

এই দিনটির নেপথ্যে রয়েছেন মদন কাটারিয়া নামক এক ভারতীয় চিকিৎসক। তিনি প্রথম এই দিনটির পরিকল্পনা করেছিলেন। মদন কাটারিয়া তার রোগীদের প্রতিদিন হাসির ব্যায়াম করার জন্য পরামর্শ দিতেন। ১৯৯৮ সালে তিনিই মে মাসের শেষ রবিবার এই দিনটি উদযাপন করেন। বর্তমানে সারা বিশ্বের ১১৫টির বেশি দেশ হাসি দিবস উদযাপন করেন।

(আরো পড়ুন: যদি আপনি ত্রিশোর্ধ্ব মহিলা হন, তাহলে আজকেই করার এই ৮ টি মেডিক্যাল পরীক্ষা)

কেন যে কোনও পরিস্থিতিতে হাসা উচিত?

দীর্ঘ জীবন: আপনি যত হাসি খুশি থাকবেন তত আপনি দীর্ঘজীবী হবেন। যে মানুষ সব সময় হাসিখুশি থাকে তার জীবনে পজিটিভ এনার্জি আরো বেশি বেড়ে যায় এবং সেই মানুষটির জীবনে কোনও রোগ দেখা যায় না ফলে সবসময় হাসতে থাকা মানুষটি হয় দীর্ঘজীবী।

মানসিক চাপ কমায়: বর্তমানে কাজ বা পারিবারিক চাপে সবসময় স্ট্রেস বা উদ্বিগ্ন থাকেন মানুষ। তবে এই পরিস্থিতিতেও যদি আপনি হাসতে পারেন তাহলে আপনা আপনি আপনার মানসিক চাপ কমে যাবে। সব সময় হাসি খুশি থাকা মানুষ ঠান্ডা মাথায় অনেক কঠিন পরিস্থিতিতে লড়াই করতে পারে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: সব সময় হাসতে থাকা মানুষ শারীরিকভাবে সুস্থ থাকে সবসময়। এটি আপনার শরীরের ইমিউন সিস্টেমকে উন্নত করে এবং যে কোনও রোগের সঙ্গে লড়াই করতে আপনাকে সহায়তা করে।

(আরো পড়ুন: ঋতুকালীন ছুটি পাবেন মহিলারা, বাঙালি প্রধান বিচারপতির উদ্যোগে বড় সিদ্ধান্ত সিকিম হাইকোর্টের)

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে: সব সময় হাসি খুশি থাকলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে থাকে এবং আপনার হার্টের সমস্যা আপনার থেকে দূরে থাকে। মানসিক প্রেসার না থাকলে স্বাভাবিকভাবেই আপনার স্নায়ুগুলি শান্ত এবং শীতল হয়ে যায় এবং কোনও রকম শারীরিক সমস্যা আপনার ধারে কাছে ঘেঁষতে পারে না।

শরীরের ব্যাথা কমায়: এন্ডোরফিন এবং সেরোটোনিন নামক দুটি হরমোন নিঃসরণ করতে সাহায্য করে হাসি। এই দুটি হরমোন সঠিকভাবে নিঃসরণ হলে আপনার শরীরের যাবতীয় ব্যথা কমে যায় এবং আপনি হয়ে ওঠেন শারীরিক এবং মানসিকভাবে সুস্থ।

ওজন কমায়: চিকিৎসকদের মত অনুযায়ী, রোজ ১০ থেকে ১৫ মিনিট যদি আপনি হাসেন তাহলে ৪০ ক্যালোরি বার্ন করতে পারেন আপনি। শারীরিক কসরত করার তুলনায় এই ক্যালোরি কমার পরিমান হয়তো কম কিন্তু অন্যান্য উপকারগুলি পাওয়ার জন্য মুখে হাসি থাকা ভীষণ প্রয়োজন।

টুকিটাকি খবর

Latest News

সুপ্রিম কোর্টের নির্দের পরই শহর ও সেন্টার ধরে ধরে NEET UG-র ফল প্রকাশ NTA-র কৃষ্ণনগরে মাছ ব্যবসায়ীরকে গুলি করে টাকা ছিনতাই, ধৃত তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতাসহ ২ হাতে জয়ন্তর ট্যাটু! আড়িয়াদহকাণ্ডে গ্রেফতার আরেক কালপ্রিট রাহুল গুপ্ত 'সাহস থাকলে…' হাসিনের সঙ্গে সুখের হয়নি বিয়ে, সানিয়াকে সত্যিই বিয়ে করছেন শামি প্রথমেই সূর্যের কথা বলেননি গম্ভীর, হার্দিক ক্যাপ্টেন না হওয়ার কারণ একেবারেই অন্য ‘তোর বাপ আমি ***’, ‘চোর’ শুনে বললেন শুভেন্দু, জুতো দেখিয়ে বললেন ‘নোংরা কালচার’ ভিকি-তৃপ্তির নতুন ছবি ‘ব্যাড নিউজ’-এর সঙ্গে বিশেষ যোগ সুস্মিতা সেনের! কী বলুন তো জেনে নিন শ্রাবণ মাসে ভোলেনাথের আশীর্বাদ পেতে কী করবেন আর কী করবেন না শক্তি বাড়াল নিম্নচাপ, দক্ষিণবঙ্গের কোথায় কবে ভারী বৃষ্টি হতে চলেছে? শীর্ষ নেতৃত্বের শিলমোহর নিয়ে বসেছিলেন মসনদে, কালনার সেই পুরপ্রধানকে শোকজ করল TMC

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.