বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Makar Sankranti 2023: কয়েকদিন পরেই পৌষ সংক্রান্তি, কবে সংক্রান্তির তিথি? পুণ্য লগ্ন কখন?

Makar Sankranti 2023: কয়েকদিন পরেই পৌষ সংক্রান্তি, কবে সংক্রান্তির তিথি? পুণ্য লগ্ন কখন?

উৎসবের সময় মানুষ সূর্য দেবতার পূজা করে। (AFP)

Makar sankranti date and exact puja muharat:প্রতিবছর মকর সংক্রান্তি গুরুত্ব সহকারে সারা দেশে পালিত হয়। এদিন সূর্য মকর রাশিতে প্রবেশ করে। জেনে নিন কবে, কখন শুরু হচ্ছে সংক্রান্তির পুণ্যলগ্ন। 

হিন্দু উৎসবগুলির মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উৎসব হল মকর সংক্রান্তি। সব পার্বণের মধ্যে এটি সবচেয়ে শুভ উৎসব, এমনটাও অনেকে বিশ্বাস করেন। তাই প্রতিবছরেই মহা আড়ম্বরে পালিত হয় মকর সংক্রান্তির তিথি। এই তিথিতে সূর্য মকর (মকর) রাশিতে (রাশিচক্রের চিহ্ন) প্রবেশ করে। তাই ভগবান সূর্যকে উৎসর্গ করে এই বিশেষ পুজো করা হয়। একইসঙ্গে এই তিথি থেকে শুরু হয় ফসল কাটার মরসুম। প্রতি মরশুমে এই দিনে নতুন ফসলের পুজো হয়। আনন্দে মেতে ওঠে পরিবার ও আত্মীয়স্বজন।

দৃক পঞ্চং রীতি অনুসারে, মকর সংক্রান্তি তামিলনাড়ুতে পোঙ্গল ও পূর্ব উত্তর প্রদেশে খিচড়ি নামে পরিচিত এই উৎসব। পাশাপাশি গুজরাট ও রাজস্থানে উত্তরায়ণ এবং হরিয়ানা ও পাঞ্জাবে মাঘি হিসেবে বিখ্যাত মকর সংক্রান্তি। এই সংক্রান্তি এমনিতে জানুয়ারি মাসে পালিত হয়, তবে 2023 সালে এর সঠিক তারিখ কবে, তা নিয়ে কিছুটা সন্দেহ রয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক, কবে এই পুণ্য উৎসবটির তিথি

১৪ না ১৫ জানুয়ারি? কবে মকর সংক্রান্তি?

পঞ্জিকা মতে, লোহরির একদিন পর মকর সংক্রান্তি পালিত হয়। এই বছর উৎসবটি ১৫ জানুয়ারি রবিবার পড়েছে। তবে দৃক পঞ্চং রীতি অনুসারে, সংক্রান্তি তিথি শুরু হবে ১৪ জানুয়ারি আটটা বেজে সাতান্ন মিনিটে (৮:৫৭)। এদিকে, মকর সংক্রান্তির পুণ্যকাল সাতটা বেজে পনেরো মিনিট (৭:১৫) শুরু হয়ে থাকবে বিকেল পাঁচটা বেজে ছেচল্লিশ মিনিট (৫:৪৬) পর্যন্ত। অর্থাৎ তিথির মোট সময়কাল ১০ ঘন্টা ৩১ মিনিট। এবং মকর সংক্রান্তি মহাপুণ্যকাল সকাল সাতটা বেজে পনেরো মিনিটে (৭:১৫) শুরু হয়ে নটায় (৯:০০) শেষ হবে। এই লগ্নের মোট সময়কাল এক ঘন্টা ৪৫ মিনিট।

কেন পালিত হয় মকর সংক্রান্তি?

হিন্দুদের মধ্যে সবচেয়ে শুভ উৎসব হিসেবেই পালিত হয় মকর সংক্রান্তি। ভারতের অধিকাংশ অঞ্চলে সংক্রান্তি উৎসব দুই থেকে চার দিন স্থায়ী হয়। উৎসবের সময় মানুষ সূর্য দেবতার পূজা করে। পবিত্র জলাশয়ে স্নানের সময় ঈশ্বরের উদ্দেশ্যে ভক্তি নিবেদব করে। পাশাপাশি অভাবীদের ভিক্ষা দান করেও পুণ্য অর্জনের রীতি রয়েছে। এদিন বাড়িতে বাড়িতে পিঠে পুলি ও পায়েশ তৈরি করারও রীতি রয়েছে।

 

 

বন্ধ করুন