বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > নেই কোনও ছাড়পত্র, ১৩ মে কবির চলে যাওয়ার ৭৫ বছর
সুকান্ত ভট্টাচার্য। 
সুকান্ত ভট্টাচার্য। 

নেই কোনও ছাড়পত্র, ১৩ মে কবির চলে যাওয়ার ৭৫ বছর

  • এই মানুষটি রবি ঠাকুরের মৃত্যুতে গান লিখেছেন কলকাতার রেডিয়োর জন্য, যেই গানে সুর দিয়েছিলেন স্বয়ং পঙ্কজ কুমার মল্লিক। যক্ষ্মা তাঁকে কেড়ে নেওয়ার পর প্রকাশিত হয়েছিল আটটি কাব্যগ্রন্থ।

রণবীর ভট্টাচার্য

এক সময়ে গড়পড়তা মধ্যবিত্ত বাঙালি বাড়িতে কবিতা মুখস্থ করে আবৃত্তির চল ছিল। অনেক বাড়ির ছেলেমেয়েই আবৃত্তির ক্লাসে ভর্তি হতো। সেখানে রবীন্দ্রনাথ থাকতেন, অনেক কবির সাথে জায়গা করে নিতেন সুকান্ত ভট্টাচার্য। শুধু কি তাই, বইমেলার বাংলা কবিতার বইয়ের তাকে আজও জানান দেয় সুকান্তসমগ্র। ভারতের স্বাধীনতার কয়েক মাস আগেই মৃত্যুকে ডেকে নেন। তাই এই বছর ওনার চলে যাওয়ারও ৭৫ বছর বটে! একদিকে যখন মোসাহেব, পুরস্কার, বিতর্ক একে অন্যকে ডেকে নিচ্ছে, আর অন্য দিকে কবি সুকান্ত ভট্টাচার্য সেই কালবৈশাখীর মতই থেকে গেলেন বাঙালি জীবনে। বাঙালি সুকান্তের বিপ্লবের মন্ত্রে সমাজ গড়তে ব্যর্থ হয়েছে। শুধুই দীর্ঘশ্বাস সঙ্গী আজ এক অনন্ত বিপ্লবের সঙ্গে...

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ, তেতাল্লিশের মন্বন্তর, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, ফ্যাসিবাদী আগ্রাসন কোনও কিছুই বাদ যায়নি তরুণ কবির কবিতাপট থেকে। কুড়ি বছরের ছোট্ট জীবনে মাত্র ছয় বছর লেখালিখি। রুশ বিপ্লব থেকে সমাজতন্ত্র কিংবা মার্কসবাদ, তরুণ মনকে আকৃষ্ট করেছে অনেক কিছুই। কিন্তু দিনের শেষে রুটির লড়াই বুঝিয়েছে, বাস্তবের মুখোমুখি করেছে। আবার এই মানুষটি রবি ঠাকুরের মৃত্যুতে গান লিখেছেন কলকাতার রেডিওর জন্য, যেই গানে সুর দিয়েছিলেন স্বয়ং পঙ্কজ কুমার মল্লিক। যক্ষ্মা তাকে কেড়ে নেওয়ার পর প্রকাশিত হয়েছিল আটটি কাব্যগ্রন্থ।

সুকান্ত ভট্টাচার্য কি বাংলার জন কিটস ছিলেন? দুজনের চলে যাওয়ার মধ্যে অদ্ভুত মিল, একজন একুশ আর আরেকজন পঁচিশ, আর দুজনের চলে যাওয়া যক্ষ্মায়। দারিদ্র্য আর ব্যক্তিগত উপলব্ধি দুজনের লেখনী জুড়ে রয়েছে। সুকান্ত ভট্টাচার্যের মধ্যে যে স্পর্ধা, দুরন্তপনা বা নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার যে প্রত্যয় ছিল, তা সুকান্ত পরবর্তী কবিদের মধ্যে দেখা যায়নি। আশপাশের সব সাধারণ বস্তু উঠে এসেছে তার কবিতায়, এমনকি কবি সিড়ি নিয়েও যা লিখেছেন, মনে হয়েছে যেন ক্ষুধা থেকে পুঁজিবাদ কিম্বা বিপ্লবের স্বপ্ন, বারবার এসেছে তার কাছে। স্বাধীনতা আন্দোলনের শেষার্ধে তার জন্ম। কবির লেখনীতে এক অন্য স্বাধীনতার স্বপ্ন ছিল। এখানেই তার লেখনী, তার ঐতিহ্য বা তার ভাবনা স্বতন্ত্র। শুধু তাই নয়, গণআন্দোলন বা গণনাট্য আন্দোলনের সম সাময়িক তিনি। তার প্রভাব কিন্তু অস্বীকার করা যায়। না। শুধু কবি নয়, একজন সংবেদনশীল সমাজ সচেতন গীতিকার, গল্পকার, প্রাবন্ধিক হিসেবেও তাকে মনে রাখবে ইতিহাস।

আগামী স্মার্টফোন প্রজন্ম হয়তো টিবি হাসপাতাল কিম্বা তার বিখ্যাত রাজনৈতিক ভাইপো বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য দিয়ে চেনার চেষ্টা করতে পারে। কিন্তু সুকান্ত ভট্টাচার্য হওয়া যায় না, চাইলেই তার মত কবিতা লিখে ফেলা যায় না।

আপনাকে বিনম্র শ্রদ্ধা, কবি সুকান্ত ভট্টাচার্য।

বন্ধ করুন