বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Boycott Himalaya Controversy: হিমালয় কোম্পানির ক্রিম-শ্যাম্পুতে মাংস! হালাল সার্টিফিকেট Viral হতেই এই অভিযোগ
হিমালয় কোম্পানির দ্রব্যে নাকি মাংস রয়েছে! 

Boycott Himalaya Controversy: হিমালয় কোম্পানির ক্রিম-শ্যাম্পুতে মাংস! হালাল সার্টিফিকেট Viral হতেই এই অভিযোগ

  • #BoycottHimalaya। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই এই ডাক দিয়েছেন। এই তালিকায় আছেন অভিনেতা পরেশ রাওয়ালও। কী বলছে কোম্পানিটি?

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপুলভাবে ট্রেন্ডিং হয়ে উঠেছে #BoycottHimalaya স্লোগান। কারণ এই কোম্পানির ক্রিম, শ্যাম্পু, মাজন, এমনকী ওষুধেও নাকি মাংস রয়েছে। আর তাই এই কোম্পানির দ্রব্য বয়কট করতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়াতে এই দাবি বিরাট জোরদার হয়ে উঠেছে।

এই দাবিতে সরব হয়েছেন অভিনেতা পরেশ রাওয়ালও। তিনিও টুইট করেছেন #BoycottHimalaya। তার পর থেকেই এই কোম্পানির বিরুদ্ধে নানা মত প্রকাশ হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ভেষজ নানা দ্রব্যের কোম্পানি হিসাবে রীতিমতো জনপ্রিয় এই হিমালয়। শুধু দেশে নয়, দেশের বাইরেও তাদের নানা দ্রব্য রফতানি করা হয়। কিন্তু কেন এমন ঘটনা ঘটেছে?

হালে একটি Certificate বা শংসাপত্র Viral হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কী এই শংসাপত্র? সেটিতে লেখা রয়েছে হিমালয় কোম্পানির যাবতীয় প্রোডাক্ট হালালের নিয়ম মেনে তৈরি।

আর এই শংসাপত্রের ছবিটি Viral হওয়ার পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ধ্বনি উঠেছে।

সেই শংসাপত্র।
সেই শংসাপত্র।

শেষ পর্যন্ত এই ধ্বনির উত্তর দিয়েছে হিমালয় কোম্পানিও। তাদের সোশ্যাল মিডিয়ার তরফে বলা হয়েছে, প্রায় ১০০টি দেশে তাদের দ্রব্য রফতানি করা হয়। সে সব দেশে দ্রব্য রফতানি করার জন্য হালাল শংসাপত্র বাধ্যতামূলক।

এর পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানের তরফে স্পষ্টভাবে বলে দেওয়া হয়েছে, তাদের কোনও দ্রব্যেই কোনও প্রকার মাংস থাকে না। লেখা হয়েছে, হালাল শুধুমাত্র মাংসের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য— এমন ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। ভেষজ বা উদ্ভিজ্জ বস্তুও হালাল নিয়মের আওতায় আসতে পারে।

বন্ধ করুন