বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > পঞ্চাশের 'তরুণ' Milind Soman শেয়ার করলেন ডায়েট চার্ট, জেনে নিন ফিটনেসের রহস্য!
মিলিন্দ সোমান। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
মিলিন্দ সোমান। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

পঞ্চাশের 'তরুণ' Milind Soman শেয়ার করলেন ডায়েট চার্ট, জেনে নিন ফিটনেসের রহস্য!

  • মিলিন্দের ডায়েট চার্ট ও শরীরচর্চা ফলো করলে আপনিও পঞ্চাশ পেরিয়ে মাত দিতে পারবেন সকলকে।

দেশের অন্যতম 'ফিটনেস আইকন' তথা সুপারমডেল মিলিন্দ সোমান। বয়স তাঁর কাছে একটা সংখ্যামাত্র। নেটমাধ্যমে প্রায়ই নিজের ফিটনেস ভিডিও পোস্ট করে জনসাধারণকে স্বাস্থ্য ও শরীরচর্চার ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করেন ৫৫-র এই অভিনেতা। তাঁর ফিগারে ঘায়েল হন সকলে। সঙ্গে, সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায়ই প্রশ্ন করে থাকেন, ‘আচ্ছা আপনি কী খান বলুনতো?’

এবার সেই প্রশ্নের উত্তর নিয়েই ইনস্টাগ্রামে এলেন মিলিন্দ। জানালেন তাঁর রোজের ডায়েট চার্ট। দিনভর কী খান তিনি, তা নিয়ে অনুরাগীদের কৌতূহল এবার মিচল বলে! খালি গায়ে হাতে খাবারের প্লেট নিয়ে ছবি পোস্ট করে মিলিন্দ লিখেছেন, ‘যেহাতু অনেকদিন ধরেই আপনারা জানতে চাইছিলেন, আমি কী খাই, তাই এই পোস্ট। সাধারণত এগুলোই থাকে আমার খাবারে। তবে কোথায় রয়েছি, আর কী কী পাওয়া যাবে তার ওপর নির্ভর করে মেনু বদলে যায়।’

চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক মিলিন্দের ডায়েট চার্ট— 

ঘুম থেকে উঠে: ৫০০ লিটার জল। 

ব্রেকফাস্ট (সকাল ১০টা নাগাদ): কিছু বাদাম, একটা পেপে, একটা মেলন, যে কোনও ঋতুকালীন ফল ৪টি।   

লাঞ্চ (দুপুর ২টো নাগাদ): ভাত-ডাল বা খিচুরি সঙ্গে সবজি। যার মধ্যে একভাগ ভাত-ডাল থাকলে ২ ভাগ থাকে সবজি। সঙ্গে ঘরে পাতা ঘি ২ চা চামচ। আর ভাত না খেলে ৬টি রুটি খান সবজি ও ডাল দিয়ে। খুব কম ওই মাসে একবার চিকেন/মটন বা ডিম খান তিনি।

বিকেল (৫টে): লাল চা, গুড় দিয়ে।

ডিনার (বিকেল ৭টা): এক বাটি সবজি। খুব খিদে পেলে খিচুরি। কিন্তু রাতে খান না আমিষ খাবার। 

ঘুমনোর আগে: গরম জল হলুদ দিয়ে। মিষ্টি করার জন্য এখানেও ব্যবহার করেন গুড়।

মিলিন্দ ইনস্টাগ্রাম পোস্টে জানিয়েছেন, তাঁর সমস্ত ডেজার্ট তৈরি হয় গুড় দিয়ে। প্যাকেটজাত খাবার, ভাজাভুজি, অতিরিক্ত তেলমশলা থেকে দূরে থাকেন তিনি। খান না সফট ড্রিঙ্ক। বছরে একদিন হয়তো মদ্যপান করেন। পরিমাণমতো জল খান, তবে তা কখনই ঠান্ডা না। আর এতেই সুস্থ, সুন্দর রয়েছেন তিনি।

বন্ধ করুন