বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Lumpy Skin Disease: দুধের আকাল দেখা দেবে নাকি? লাম্পি স্কিন রোগে পরপর গরুর মৃত্যুতে আতঙ্ক! কী এই রোগ
লাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত গরু। 

Lumpy Skin Disease: দুধের আকাল দেখা দেবে নাকি? লাম্পি স্কিন রোগে পরপর গরুর মৃত্যুতে আতঙ্ক! কী এই রোগ

  • Lumpy Skin Disease: রাজস্থান এবং গুজরাটে ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে এই রোগ। এটির কারণে ৩ হাজারের বেশি গরুর মৃত্যু হয়েছে বলে আশঙ্কা।

ব্যাপক হারে বাড়ছে লাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত গরুর সংখ্যা। গুজরাটের পরে রাজস্থানেও ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে এই রোগ। ইতিমধ্যেই এই রোগে মৃত্যু হয়েছে বেশ কয়েক হাজার গরুর। আর তার ফলেই দুধের মারাত্মক আকাল দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন অনেকেই।

কী এই রোগটি? কাকে বলে লাম্পি স্কিন ডিজিজ?

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এটি এক ধরনের ভাইরাসঘটিত সংক্রমণ। বিভিন্ন পতঙ্গ থেকে এটি ছড়ায়। এই তলিকায় রয়েছে মশা এবং বিশেষ প্রজাতির মাছি। এই ধরনের পতঙ্গের মধ্যে যেগুলির শরীরে এই রোগের জীবাণু রয়েছে, তারা রক্তপানের জন্য গরু বা অন্য গবাদি পশুর শরীরে বসলে, সেখান থেকে ছড়িয়ে পড়ে সংক্রমণ।

কী কী সমস্যা হতে পারে লাম্পি স্কিন ডিজিজের কারণে?

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, প্রাথমিক অবস্থায় জ্বর হল এই রোগের লক্ষণ। তার পরে ত্বকের উপরে বড় মাপের ফোঁড়া বা গোটা তৈরি হয়। বিষয়টি অনেকটা মানুষের পক্স হলে যেমন হয়, তার কাছাকাছি। সারা শরীর জুড়েই তৈরি হতে থাকে এই গোটাগুলি। সেগুলি কয়েক দিনের মাথায় ফেটে গিয়ে তা থেকে তরল নিঃসৃত হতে পারে। এর কিছু দিন পরে ওই গোটা বা ঘাগুলি শুকোতে শুরু করে।

এই রোগে ইতিমধ্যেই আক্রান্ত হয়েছে প্রচুর গরু। তবে সকলের অবস্থাই যে একই রকম খারাপ, তাও নয়। জানা গিয়েছে, কোনও কোনও গরুর ক্ষেত্রে এই লাম্পি স্কিন ডিজিজ মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে। বিশেষত যে সব গরুর এর আগে এই রোগের সংক্রমণ হয়নি, তাদের ক্ষেত্রে এটি মারাত্মক আকার নিতে পারে। এবং এমন ক্ষেত্রেই মৃত্যুর হার বেশি।

লাম্পি স্কিন ডিজিজের চিকিৎসা কীভাবে করা হয়?

এই রোগের কোনও টিকা এখনও পর্যন্ত নেই। ফলে এটি আটকানোর উপায় নেই বলেও জানা গিয়েছে। তবে এই রোগে আক্রান্ত হওযার পরে সেই পশুটির সমস্যা কমানোর জন্য চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে। ইতিমধ্যেই রাজস্থান এবং গুজরাটে সেই ধরনের চিকিৎসাই করা হচ্ছে।

লাম্পি স্কিন ডিজিজ আ কী কী সমস্যা ডেকে আনছে?

উত্তর ভারত এবং উত্তর-পশ্চিম ভারতের বেশ কিছু এলাকায় যেহেতু এই রোগ ছড়িয়ে পড়েছে এবং এই রোগে আক্রান্ত হয়ে বহু গরুর মৃত্যু হচ্ছে, তাই এর ফলে দুধের আকাল দেখা দিতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য সরকার এবং চিকিৎসকরা পুরোদস্তুর চেষ্টা চালাচ্ছেন। কিন্তু এখনও আশঙ্কা কাটছে না।

বন্ধ করুন