বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > পশ্চিমবঙ্গে উপস্থিতি আরও জোরদার করার পথে এগোচ্ছে দিল্লির সংস্থা মাদার ডেয়ারি
সঞ্জয় শর্মার সঙ্গে নামজাদা ব্যক্তিত্বরা
সঞ্জয় শর্মার সঙ্গে নামজাদা ব্যক্তিত্বরা

পশ্চিমবঙ্গে উপস্থিতি আরও জোরদার করার পথে এগোচ্ছে দিল্লির সংস্থা মাদার ডেয়ারি

  • বর্তমানে সংস্থার ডেয়ারি প্রোডাক্টগুলো পশ্চিমবঙ্গের প্রায় ১০টা জেলায় পাওয়া যাচ্ছে। কোম্পানির উদ্দেশ্য আগামী ৫ বছরে সংখ্যাটাকে দ্বিগুণ করা, অর্থাৎ ২০টা জেলার ৩০,০০০-এর বেশি আউটলেটকে ব্যবহার করা।

রণবীর ভট্টাচার্য

দিল্লির নামজাদা সংস্থা মাদার ডেয়ারি পয়লা বৈশাখ উপলক্ষ্যে তাদের মিষ্টি দইয়ের জন্য এই প্রথম কোনো প্রোডাক্টের আঞ্চলিক মেগা TVC প্রকাশ করল। এই ক্যাম্পেনে রয়েছেন অভিনেতা আবির চ্যাটার্জি।

মাদার ডেয়ারি ফ্রুট অ্যান্ড ভেজিটেবিল প্রাইভেট লিমিটেড আগামী ৫ বছরে পূর্ব ভারতের বাজার থেকে ৩০%-এর বেশি CAGR বজায় রেখে মূল্যযুক্ত পোর্টফোলিওর জন্য প্রায় ৫০০ কোটি টাকার টার্নওভার কন্ট্রিবিউশন তোলার এক পরিকল্পনা তৈরি করেছে। তাদের বৃহত্তর লক্ষ্য হল পোর্টফোলিও তৈরি করা এবং শক্তিশালী করা। এর সাথে সাথে সংস্থার সরবরাহ, উৎপাদন ক্ষমতা এবং গোটা অঞ্চলে চোখে পড়ার প্রক্রিয়াকে আরও শক্তিশালী করা। পাশাপাশি সংস্থার তরফ থেকে ব্র্যান্ড উপস্থিতি এবং ব্যবসার এলাকা বৃদ্ধি করার ব্যাপারেও পরিকল্পনা রয়েছে।

বর্তমানে সংস্থার ডেয়ারি প্রোডাক্টগুলো পশ্চিমবঙ্গের প্রায় ১০টা জেলায় পাওয়া যাচ্ছে। কোম্পানির উদ্দেশ্য আগামী ৫ বছরে সংখ্যাটাকে দ্বিগুণ করা, অর্থাৎ ২০টা জেলার ৩০,০০০-এর বেশি আউটলেটকে ব্যবহার করা। এখন আউটলেটের সংখ্যাটা ১৭,০০০। মাদার ডেয়ারির ডেয়ারি প্রোডাক্টের উপাদেয় পোর্টফোলিও এই রাজ্যের জন্য কিছু নির্দিষ্ট প্রথাগত প্রোডাক্টসহ বাঙালির স্বাদকোরকের প্রয়োজন মেটায়। মিষ্টি দই, আম দই আর নলেন গুড় ফ্লেভারের আইসক্রিম অন্যতম শ্রেষ্ঠ আকর্ষণ হিসেবে তুলে ধরা হচ্ছে।

সংস্থার দৃষ্টিভঙ্গি ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শ্রী সঞ্জয় শর্মা, বিজনেস হেড, জানান “এত বছর ধরে আমরা পূর্বাঞ্চলের ক্রেতাদের সেবার করার জন্য উৎপাদন এবং সরবরাহ ক্ষমতাসহ সমস্ত পরিকাঠামোর উন্নয়ন ঘটানোর চেষ্টা করেছি। আজ উত্তরাঞ্চলের পরেই পূর্বাঞ্চল আমাদের মূল্যযুক্ত ডেয়ারি প্রোডাক্টগুলোর জন্য সবচেয়ে দ্রুত বেড়ে চলা বাজারগুলোর একটা। গত ৫ বছরে এর CAGR প্রায় ৩৫%। আমাদের প্রোডাক্টের সম্ভার, বিশেষ করে স্থানীয় খাবারগুলো, পছন্দ করার জন্য আমরা কলকাতা আর পশ্চিমবঙ্গের ক্রেতাদের ধন্যবাদ জানাই। মিষ্টি দই হল তাঁদের ভালবাসার সবচেয়ে বড় প্রমাণ। এখানকার মানুষের মধ্যে ওটা প্রবল জনপ্রিয় হয়েছে। এবার আরেক ধাপ এগিয়ে আমরা এই রাজ্য এবং অঞ্চলের জন্য একটা সার্বিক কার্যপদ্ধতি অনুসরণ করতে চলেছি, যাতে আগামী ৫ বছরে ৩০%-এর বেশি বৃদ্ধির লক্ষ্য পূরণ করতে পারি। দেশের মোট দুগ্ধজাত দ্রব্যের খাদ্যগ্রহণের প্রায় ৫০% হয় ৫টা রাজ্যে, পশ্চিমবঙ্গ তার মধ্যে একটা। সুতরাং আগামীদিনে এই অঞ্চলটা সবসময়েই আমাদের প্রসারণের স্ট্র্যাটেজির কেন্দ্রে থাকবে।"

বন্ধ করুন