বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > পুদিনা চাটনির টক-ঝাল স্বাদে বাড়বে স্বাদ, শরীরও থাকবে সুস্থ, জানুন কীভাবে
পুদিনা পাতায় ক্যালরি কম থাকে। আবার প্রোটিন ও ফ্যাটের পরিমাণও এতে কম।
পুদিনা পাতায় ক্যালরি কম থাকে। আবার প্রোটিন ও ফ্যাটের পরিমাণও এতে কম।

পুদিনা চাটনির টক-ঝাল স্বাদে বাড়বে স্বাদ, শরীরও থাকবে সুস্থ, জানুন কীভাবে

  • পুদিনা পাতা দিয়ে খাবার বা পানীয় সাজিয়ে পরিবেশন করার বিষয়টি প্রায়ই লক্ষ্য করা যায়।

পুদিনা পাতা দিয়ে খাবার বা পানীয় সাজিয়ে পরিবেশন করার বিষয়টি প্রায়ই লক্ষ্য করা যায়। আবার নানান রান্নাতেও এটি ব্যবহৃত হয়। এর সুগন্ধে মন সতেজ হয় অনেকের। পুদিনা পাতার চাটনি খুবই জনপ্রিয় একটি খাবার। টক, ঝাল এই চাটনিটি ভাতের পাতে রাখলে নিরামিষ খাবারের স্বাদ বেড়ে যায় বহুগুণ। শুধু নিরামিষই কেন, কাবাব বা পকোড়ার সঙ্গে মন সতেজ করা এই সবুজ চাটনির জুড়ি মেলা ভার।

কিন্তু স্বাদ বৃদ্ধিই শুধু নয়, এই চাটনি স্বাস্থ্যের পক্ষেও উপকারী। পুদিনা পাতায় ক্যালরি কম থাকে। আবার প্রোটিন ও ফ্যাটের পরিমাণও এতে কম। ভিটামিন এ, সি ও বি কমপ্লেক্সে সমৃদ্ধ পুদিনা পাতা। ত্বক সুস্থ রাখতে ও রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও এটি অধিক উপযোগী। আয়রন, ম্যাঙ্গানিজ ও পটাশিয়ামের মতো খনিজের ভালো উৎস এই পাতা। এর সাহায্যে মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এর ফলে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণও বাড়ে। তাই সামগ্রিক স্বাস্থ্যের জন্য পুদিনার চাটনি উপকারী।

পুদিনার চাটনি তৈরির পদ্ধতি

উপকরণ

  • ২ কাপ পুদিনা পাতা
  • একটা কুচনো পেঁয়াজ
  • ১টা লেবুর রস
  • ১ চামচ শুকনো করে ভাজা জিরে গুঁড়ো
  • ২টি ছোট কাঁচালঙ্কা
  • স্বাদ মতো নুন 

প্রণালী

লেবু ছাড়া বাকি সমস্ত উপকরণ মিক্সারে দিয়ে এর পেস্ট বানিয়ে নিন। প্রয়োজন অনুযায়ী জল দেওয়া যেতে পারে। পেস্ট হয়ে গেলে এতে লেবুর রস মিশিয়ে দিন। বাড়িতে শিল-নোড়া থাকলে তাতে এই সমস্ত উপকরণ দিয়ে বেটে নিন। শিল-নোড়ায় বাটা চাটনির স্বাদই আলাদা।

দুচামচ পুদিনার চাটনির গুণাগুণ জানা আছে কী?

ক্যালরি- ২.২৪ গ্রাম

প্রোটিন- ০.১২ গ্রাম

কার্বোহাইড্রেট- ০.৪৮ গ্রাম

ফ্যাট- ০.০৩ গ্রাম

ফাইবার- ০.২৬ গ্রাম

এবার জানুন পুদিনার চাটনির উপকারীতা সম্পর্কে—

হজম শক্তি উন্নত করে- হিলিং ফুডস নামক এক গ্রন্থ থেকে জানান যায়, পুদিনা পাতায় অ্যান্টিসেপ্টিক ও কীটাণুনাশক গুণ থাকে। এটি বদহজম থেকে স্বস্তি দেয়। পুদিনার চাটনি পেটের নানান সমস্যার হাত থেকে মুক্তি দিতে পারে।

সর্দি-কাশি দূর করে- নাক, গলা, ফুসফুস পরিষ্কার করতে পুদিনা পাতা সাহায্য করে। এতে উপস্থিত অ্যান্টি ইনফ্ল্যামেটারি গুণ পুরনো কাশির কারণে হয়ে থাকা জ্বালা থেকে স্বস্তি দেয়।

মাথা ব্যথা ঠিক করে- হিলিং ফুডস অনুযায়ী, পুরনো মাথা ব্যথা ঠিক করতে পুদিনা উপযোগী। এই পাতার তীব্র ও সতেজ সুগন্ধ মাথা ব্যথা কম করতে সক্ষম।

ওরাল হেল্থের জন্য উপকারী- পুদিনা পাতা চিবিয়ে খেলে নিঃশ্বাস সতেজ হয়। মুখের ভিতরের ব্যাক্টিরিয়ার বংশবৃদ্ধি আটকাতে সক্ষম পুদিনা। এ ছাড়াও দাঁতের প্লাক পরিষ্কার করে এই পাতাটি।

ওজন কমাতে সাহায্য করে- পাচন প্রক্রিয়ায় উপযোগী উৎসেচককে উত্তেজিত করে পুদিনা। এর ফলে খাবারের পুষ্টিগুণ ভালো ভাবে শোষণ সম্ভব হয়। ভালো মেটাবলিজম ওজন কমাতে সাহায্য করে।

বন্ধ করুন