বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Ramzan 2022 Timings: ভারতে কবে রমজান মাস শুরু? সেহরি ও ইফতার কখন হবে?

Ramzan 2022 Timings: ভারতে কবে রমজান মাস শুরু? সেহরি ও ইফতার কখন হবে?

আগামী ২ এপ্রিল থেকে ভারতে 'রমজান' শুরু হতে পারে। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

পবিত্র রমজানের সময়: কোথায়, কখন সেহরি ও ইফতার হবে, তা দেখে নিন। 

আগামী ২ এপ্রিল থেকে ভারতে 'রমজান' মাস (Ramazan বা Ramzan বা Ramzaan বা Ramadan) শুরু হতে পারে। সেইমতো পরদিন অর্থাৎ ৩ এপ্রিল থেকে ‘রোজা’ শুরু হওয়ার সম্ভাবনা আছে। তবে কবে চাঁদ দেখা যাবে, তার উপর রমজানের দিনক্ষণ নির্ভর করছে। 

সাধারণত প্রথমে সৌদি আরব, ভারতের কয়েকটি অংশ এবং কয়েকটি পশ্চিমী দেশে চাঁদ দেখা যায়। পরদিন ভারতের বাকি অংশ, পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং অন্যান্য দেশে চাঁদ পরিলক্ষিত হয়। যেদিন চাঁদ দেখা যায়, তার পরদিন থেকে ‘রোজা’ থেকে উপবাস শুরু হয়। সাধারণত ২৯ থেকে ৩০ দিনের উপবাসের পর ‘ইদ-উল-ফিতর’ বা ‘ইদ’ পালন করেন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরা।

শহরসেহরির সময়ইফতারের সময়
কলকাতাভোর ৪ টে ১৭ মিনিটবিকেল ৫ টা ৫১ মিনিট
হায়দরাবাদভোর ৫ টা ১ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ৩০ মিনিট
দিল্লিভোর ৪ টে ৫৬ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ৩৮ মিনিট
সুরাটভোর ৫ টা ২১ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ৫৩ মিনিট
মুম্বইভোর ৫ টা ২২ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ৫২ মিনিট
পুণেভোর ৫ টা ১৯ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ৪৮ মিনিট
বেঙ্গালুরুভোর ৫ টা ৭ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ৩২ মিনিট
চেন্নাইভোর ৪ টে ৫৬ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ২১ মিনিট
কানপুরভোর ৪ টে ৪৬ মিনিটসন্ধ্যা ৬ টা ২৫ মিনিট

রোজার নিয়ম

রমজানের সময় রোজাদারদের (যাঁরা রোজা বা উপবাস রাখেন) দিন শুরু হয় সেহরি বা সুহুরের মাধ্যমে। সূর্যোদয়ের আগে সেহরি খেয়ে থাকেন রোজাদাররা। তার পর সারা দিন ধরে চলে নির্জলা উপবাস। সূর্যাস্তের পর নমাজ ও ইফতারের মাধ্যমে সেদিনের রোজা ভঙ্গ করা হয়।

রোজা রাখার নিয়ম

১) অসুস্থ, গর্ভবতী, কোনও মহিলা যদি স্তনদুগ্ধ পান করিয়ে থাকেন, ডায়বেটিক, বয়স্ক ব্যক্তিদের জন্য রোজা পালন আবশ্যক নয়। এর পরিবর্তে ফিদিয়ার মাধ্যমে রোজার কর্তব্য পালন করতে হয়। ফিদিয়া অর্থাৎ রমজানের সময় প্রতিদিন দরিদ্র ব্যক্তিদের খাবার দান করা যায়। আবার কোনও দিন যদি কেউ রোজা পালন করতে অক্ষম থাকেন, সেক্ষেত্রেও ফিদিয়ার মাধ্যমে ক্ষতিপূরণ করা যেতে পারে।

রমজান (Ramzan 2022) সংক্রান্ত যাবতীয় খবরের জন্য চোখ রাখুন এখানে

২) ঋতুস্রাব চলাকালীন বা সন্তান প্রসবের পর ঋতুস্রাব হলে রোজা রাখা উচিত নয়। পরে সেই ক্ষতিপূরণ করতে হয়।

৩) পাঁচবার নমাজ পড়তে হয়। এছাড়াও রোজার সময় ইচ্ছাকৃতভাবে কিছু খাওয়া বা পান করা নিষিদ্ধ। আবার ধূমপান বা মদ্যপান করলে রোজা বাতিল হয়ে যায়।

৪) তবে ভুলবশত কিছু খেয়ে ফেললে উপবাসের উপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে না বা সেই রোজদারের রোজাও বাতিল সাব্যস্ত হয় না। এক্ষেত্রে ভুল বোঝার সঙ্গে সঙ্গে প্রায়শ্চিত্ত করে রোজা পূর্ণ করা যেতে পারে।

বন্ধ করুন