বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Summer Anger Control Ways: গরমে কি খিটখিটে হয়ে যাচ্ছেন আরও! রাগকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে এই ডায়েট কার্যকরী
গরমে কীভাবে নিজের মেজাজকে ঠাণ্ডা রাখবেন, জেনে নিন। ছবি সৌজন্য- Pixabay

Summer Anger Control Ways: গরমে কি খিটখিটে হয়ে যাচ্ছেন আরও! রাগকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে এই ডায়েট কার্যকরী

  • ফলে তার চাহিদার দরুন, শরীরে মেজাজ পরিবর্তনের সমস্যা হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রোদের জেরে হিট লাগার সমস্যা থেকে রেহাই পেতে শরীরকে সব সময় হাইড্রেট করে রাখা প্রয়োজন। ফলে রোজের নানান খাওয়া দাওয়ার মাঝে প্রয়োজন জল।

অনেকেই খুব সহজ-সরল কথার প্রত্যুত্তরে ঝাঁঝিয়ে উত্তর দিতে অভ্যস্ত। যে কথা অনেক ভালভাবে বলা যায়, তাকে বেঁকিয়ে, অন্যপক্ষকে খোঁচা দিয়ে বলতে অনেকেই ভালবাসেন। আবার অনেকে পরিস্থিতির শিকার হয়ে ক্রমাগত খিটখিটে হয়ে ওঠেন। আর খিটখিটে মানুষের থেকে সকলেই দূরে থাকতে চান! দেখা যায়, আমাদের স্বভাব বা অভ্যাসের ওপর পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতির যথেষ্ট প্রভাব রয়েছে। প্রভাব রয়েছে, আবহাওয়ারও। গরমকালে মেজাজ হারানোর সমস্যা অনেকের মধ্যেই দেখা যায়। দেখে নেওয়া যাক, এই সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়ার উপায়।

চিকিৎসকরা বলছেন,গরমে পারদের উত্থানের ফলে শরীরে বহু পুষ্টি ও ভিটামিনের অভাব হয়। ফলে তার চাহিদার দরুন, শরীরে মেজাজ পরিবর্তনের সমস্যা হয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রোদের জেরে হিট লাগার সমস্যা থেকে রেহাই পেতে শরীরকে সব সময় হাইড্রেট করে রাখা প্রয়োজন। ফলে রোজের নানান খাওয়া দাওয়ার মাঝে প্রয়োজন জল। এছাড়াও, মাথা ঠাণ্ডা রাখতে গরমের ডায়েট কেমন হওয়া উচিত দেখে নিন।

গরমে মাথা ঠাণ্ডা রাখার উপায়:-

- গরমের দিনে পেট বেশিক্ষণ খালি রাখবেন না। তাপের কারণে খিদে সবসময় না পেলেও, জল বা ফলের জুস জাতীয় কিছু খেতে থাকবেন।

-মেডিটেশনে রয়েছে একাধিক উপায় মাথা ঠাণ্ডা রাখার। আর তা করতে পারলে মেজাজ ধরে রাখতে পারবেন সহজেই। গরমে পাবেন উপকার। বলছেন ডক্টর প্রিয়া কল।

-দিনে হোক বা রাতে খাবারের সঙ্গে খান প্রচুর স্যালাড। গরমের দিনে ডায়েট থেকে বাদ দেবেন না স্যালাড।

- জেরোপ্যাথির বিশেষজ্ঞ কাম্যাণ্যী নরেশ বলছেন,গরমে এমনই আমরা খুবই অলস হয়ে পড়ি। এই সময় ভোরবেলা বা বিকেলের দিকে ব্যায়াম খুবই কাজে দেয়।

- কাম্যাণ্যী নরেশ বলছেন, গরমে নিজের শরীরের ফিটনেসকে ধরে রাখা প্রয়োজন। এমনকি বিকেলে হাঁটা প্রয়োজন এক্ষেত্রে কিম্বা মর্নিং ওয়াক এক্ষেত্রে আপনাকে সমস্যা থেকে উদ্ধার করতে পারে। এই সমস্ত কাজ করলে সারাদিন মেজাজ যেমন ভাল থাকবে, তেমনই আপনি থাকবেন ফিট।

-গরমে অল্পেই ক্লান্তি লাগার কথা বলছেন বিশেষজ্ঞ সঞ্চিতা পাঠক। তাই তিনি বলছেন, যাতে গরমে বেশি করে ফল খাওয়া হয়, আরও বেশি জল জাতীয় জিনিসপত্র পান করা হয়। তিনি বলছেন এই সময়ে ভিটামিন সি ও ভিটামিন এ সমৃদ্ধ ফল খাওয়া জরুরি। এতে কেটে যাবে অলসভাব। সারাদিন থাকবেন ফুরফুরে।

-দিন ভালভাবে শুরু করলে গোটা দিন ভাল কাটে। এমন পন্থায় যাঁরা বিশ্বাসী তাঁরা ব্রেকফাস্টে গুরুত্ব দেন। গরমের দিনে পরোটা বা তেলজাতীয় খাবার ব্রেকফাস্টে না রেখে চিঁড়ে, ব্রেড জাতীয় খাবার বা অল্প তেলের রান্না দিয়ে দিন শুরু করুন।

-এছাড়াও সময় সময় গরমের তাপ লাগলে গা ধুয়ে নিলে বা সকালের দিকে স্নান করলেও মেলে স্বস্তি। আরও পড়ুন- গ্রীষ্মের তাপে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়তে পারে! কোন লক্ষণ দেখলে সতর্ক হবেন?

গর্ভবতী মহিলাদের জন্য গরমের ডায়েট

মহিলারোগ বিশেষজ্ঞ নিশী সিং জানিয়েছেন,গর্ভবতী মহিলাদের জন্য 'গরমে মেজাজ ঠাণ্ডা রাখতে, আর গর্ভধারণের সময় বিনা ঝঞ্ঝাটে নিজেকে সুস্থ রাখতে বেশি করে জল খাওয়া প্রয়োজন।' এছাড়াও গর্ভবতী মহিলাদের এক্ষেত্রে হালকা ডায়েটে জোর দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে। এছাড়াও প্রয়োজন শারীরিক সক্রিয়তা।

বয়স্কদের জন্য ডায়েট

গরম গোটা বছরের এই সময়ই প্রবল কষ্ট হয় গরমের জেরে। গরমের দিনে বয়স্কদের শরীরকে চাঙ্গা রাখা খুবই জরুরি। অনেক সময়ই তাপের জেরে বয়স্কদের শরীরে হিট ক্র্যাম্প শুরু হয়। দেখা যায় শরীরে ডিহাইড্রেশন। ফলে এমন পরিস্থিতিতে বহু বয়স্কই খিটখিটে হয়ে যান। আর এই সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে তাঁদের ডায়েটে রাখতে হবে প্রয়োজন মতো ফল, শাক সবজি। যা পেট ঠাণ্ডা রাখে তেমন খাবার চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে তাঁদের দেওয়া উচিত।

 

বন্ধ করুন