বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > World Diabetes Day 2022: ডায়াবিটিস নিয়ে বহু ভুল ধারণা অনেকের আছে, দেখে নিন সেগুলি কীকী? কী বলছেন বিশেষজ্ঞ

World Diabetes Day 2022: ডায়াবিটিস নিয়ে বহু ভুল ধারণা অনেকের আছে, দেখে নিন সেগুলি কীকী? কী বলছেন বিশেষজ্ঞ

অনেক চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদও এমন মিথের মধ্যে থাকেন (Unsplash)

World Diabetes Day: বিশ্ব ডায়াবিটিস দিবস পালিত হয় ১৪ নভেম্বর। ডায়াবিটিস নিয়ে মানুষের মধ্যে রয়েছে বেশ কিছু মিথ। তারই কয়েকটি শুধরে দিচ্ছেন পুষ্টিবিদ রুজুতা দিবাকর।

সঠিক ডায়েটই ডায়াবিটিস রোগের মোক্ষম ওষুধ। প্রতিদিনের ডায়েট থেকে কিছু নির্দিষ্ট খাবার বাদ দিলে এই রোগ নিয়ন্ত্রণে থাকে। সারা বিশ্ব জুড়ে ১৪ নভেম্বর পালিত হয় আন্তর্জাতিক ডায়াবিটিস দিবস। প্রতিবছরই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে এই দিন কোনও না কোনও অভিনব থিম ঠিক করা হয়। তেমনই এই বছরের থিম ডায়াবিটিস সংক্রান্ত শিক্ষা।

ডায়াবিটিস নিয়ে মধ্যে প্রচলিত রয়েছে নানারকম মিথ। মূলত সেগুলোর বিষয়ে রোগীদের সচেতন করতেই এমন পদক্ষেপ।

বিখ্যাত পুষ্টিবিদ রুজুতা দিবাকর তাঁর অডিওবুকে তেমনই কয়েকটি মিথের কথা জানাচ্ছেন। এই মিথগুলো শুধু রোগীর মধ্যেই দেখা যায় তা নয়। অনেক চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদও এমন মিথের মধ্যে থাকেন। তাঁর ‘ইটিং ইন দ্য এজ অফ ডায়েটিং’-অডিওবুকে রুজুতা জানাচ্ছেন সেসব মিথের কথাই।

১. হাঁটা না ব্যায়াম? ডায়াবিটিস হলে অনেক চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদই নিয়মিত হাঁটতে বলেন। এতে রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকে। তবে রুজুতার কথায়, হাঁটার থেকেও বেশি উপকারী নিয়মিত ব্যায়াম। নিয়মিত ব্যায়াম শরীরের পেশি শক্ত রাখে। পাশাপাশি ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্সও নিয়ন্ত্রণ করে। এর ফলে ডায়াবিটিস আয়ত্তে রাখা সম্ভব হয়।

২. ডায়াবিটিস কমবে তো? ডায়াবিটিস একবার হলে তা আর কমবে না এমনটা ভাবা ভুল। বরং নিয়মিত ডায়েট মেনে চললে ডায়াবিটিস সহজেই নিয়ন্ত্রণে রাখা যেতে পারে। এই রোগ আয়ত্তে রাখার সবচেয়ে ভালো ও সাশ্রয়ী উপায় হল মরশুমি ফল ও শাকসবজি ডায়েটে রাখা। এগুলো ডায়েটে থাকে না বলেই রক্তে শর্করার মাত্রা সহজে স্বাভাবিক হয় না। চিকিৎসকরা সবসময় মরশুমি ফল খাওয়ার পরামর্শ দেন না।

৩. ঘি খাওয়া উচিত নয়? ঘি ও ফ্যাটজাতীয় খাবার এড়িয়ে চলতে বলেন অনেক চিকিৎসক। তবে নারকেল ও ঘি-এর মধ্যে রয়েছে শরীরের জন্য উপকারী কিছু ফ্যাটি অ্যাসিড। এই ফ্যাটি অ্যাসিড হৃদযন্ত্র ভালো রাখার পাশাপাশি ইনসুলিনও নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৪. কলা এড়িয়ে চলা উচিত? অনেকেই আপেল খাওয়ার পরামর্শ দেন। অথচ কলা এড়িয়ে চলতে বলেন। রুজুতার মতে, ডায়াবিটিসে কলার মতো ভালো খাবার খুব কম হয়। কলার মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে খনিজ পদার্থ। এছাড়া এটি শর্করার পাশাপাশি রক্তচাপও ঠিক রাখে।

৫. চায়ে চিনি না বিস্কুট? ডায়াবিটিস হলেই চায়ে চিনি খাওয়া বারণ। অথচ মেরি বিস্কুট খাওয়ার থেকে চায়ে এক চামচ চিনি খাওয়া অনেক ভালো, তেমনটাই মত রুজুতার। বিস্কুটে থাকে ট্রান্স ফ্যাট, নিম্নমানের শর্করা ও ইম্যালসিফায়ার। এগুলো চায়ে এক চামচ চিনি খাওয়ার থেকে বেশি বিপজ্জনক।

বন্ধ করুন