বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > মদ্যপান করুন বুঝেশুনে! শরীর খারাপ বা হ্যাংওভার এড়াতে মাথায় রাখুন এই নিয়মগুলি
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই (PTI)
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই (PTI)

মদ্যপান করুন বুঝেশুনে! শরীর খারাপ বা হ্যাংওভার এড়াতে মাথায় রাখুন এই নিয়মগুলি

  • সত্যি বলতে, মদ্যপান এড়িয়ে চলাই ভাল। তবে নেহাত্ই পান করলে সেক্ষেত্রে মাথায় রাখুন এই নিয়মগুলি। 

বিজয়া দশমীর দিন অনেকেই সুরা পান করেন। কিন্তু মাত্রারিতিক্ত পান করলে কিন্তু আসল মজাই মাটি। তাছাড়া তার পরের দিন থেকে তো সেই অফিস। হ্যাংওভার থাকলে কী হবে বলুন তো?

সত্যি বলতে, মদ্যপান এড়িয়ে চলাই ভাল। তবে নেহাত্ই পান করলে সেক্ষেত্রে মাথায় রাখুন এই নিয়মগুলি:

১. নিজের ক্ষমতা বুঝে পান করুন: প্রত্যেকের শরীরে অ্যালকোহলের রিঅ্যাকশান আলাদা। অনেকের এক পেগেই এক বোতলের প্রভাব হয়ে যায়। আবার কারও কারও উল্টোটা হয়। 

তাই আপনার ক্ষমতা বুঝে পান করুন। মাথা ঝিম লাগলে, শরীর খারাপ বা বমি বমি ভাব মনে হলে সঙ্গে সঙ্গে থেমে যান।

২. পান করার আগে এবং পানের সময়ে পর্যাপ্ত খাওয়াদাওয়া করুন: খালি পেটে পান করবেন না। আগে হালকা জলখাবার জাতীয় খাবার খেয়ে নিন। পান করার সময়ে সঙ্গে রাখুন আনসলটেড ছোলা, বাদাম। 

ডিপ ফ্রায়েড, অতিরিক্ত তেল মশলাদার খাবার সঙ্গে না খাওয়াই শ্রেয়। আবার পেট ভরে খাবারও খাবেন না।

প্রেশার, সুগার নার্ভের অসুখের মতো রোগ থাকলে পান না করাই শ্রেয়। ছবি : ইনস্টাগ্রাম
প্রেশার, সুগার নার্ভের অসুখের মতো রোগ থাকলে পান না করাই শ্রেয়। ছবি : ইনস্টাগ্রাম (Instagram )

৩. চিনি নৈব নৈব চ: অনেকে মদ্যপানের সময়ে বা পরে দশমীর মিষ্টিমুখ করেন। সেটা মোটেও বুদ্ধিমানের কাজ নয়। কোল্ড ড্রিংকসও কার্যত চিনির জল। তাতেও মিশিয়ে মদ্যপান না করাই ভাল।

৪. প্রচুর জল পান করুন: অ্যালকোহল শরীরকে ডিহাইড্রেট করে দেয়। তাই প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন। অ্যালকোহলকে শরীর থেকে বের হয়ে যেতে দিন।

৫. পান করে ড্রাইভিং, মোটরসাইকেল চালানোর কথা ভুলেও ভাববেন না: এটা বলাই বাহুল্য। কিন্তু বহু ব্যক্তিই এমনটা করে থাকেন। তার ফলে মারাত্মক দুর্ঘটনা হয়। পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবহার করাও বিপদজনক হতে পারে। ট্যাক্সি করে নেওয়াই সঠিক উপায়।

৬. সঙ্গে থাকুক পান না করা বন্ধু : একজন সুস্থ কাউকে দায়িত্ব দিন। প্রয়োজনে তাঁর কাছেই মানিব্যাগ, চাবি, ফোনের মতো জিনিস জমা রাখুন। অসুস্থ লাগলে সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে জানান।

৭. না বলতে শিখুন : অনেকেই শুধুমাত্র বন্ধুবান্ধবের চাপে পড়ে সঙ্গ দিতে পান করেন। আপনার যদি শরীর খারাপ, অস্বস্তি বা শারীরিক জটিলতা থাকে, সেক্ষেত্রে সরাসরি না বলুন। সবাই ঠিকই বুঝবেন।

বন্ধ করুন