বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > মেশিন থেকেই বের হচ্ছে ফুচকা! দিতে হচ্ছে না হাত, খাবেন আপনিও?
পানিপুরি, গোল গাপ্পা, ফুচকা। নাম যাই হোক না কেন, দেশের প্রায় সব প্রান্তের মানুষই এটি খেতে পছন্দ করেন। (ছবি সৌজন্য, ইউটিউব FOODY VISHAL)
পানিপুরি, গোল গাপ্পা, ফুচকা। নাম যাই হোক না কেন, দেশের প্রায় সব প্রান্তের মানুষই এটি খেতে পছন্দ করেন। (ছবি সৌজন্য, ইউটিউব FOODY VISHAL)

মেশিন থেকেই বের হচ্ছে ফুচকা! দিতে হচ্ছে না হাত, খাবেন আপনিও?

নয়া এক উপায় করলেন দিল্লির এক ইঞ্জিনিয়ার। বানিয়ে ফেললেন ফুচকা ভেন্ডিং মেশিন। তাঁর এই উদ্ভাবনের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

পানিপুরি, গোল গাপ্পা, ফুচকা। নাম যাই হোক না কেন, দেশের প্রায় সব প্রান্তের মানুষই এটি খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে হাতে করে ফুচকা মাখা বা বানানো নিয়ে চিন্তিত অনেকে। সেই ভাবনা থেকেই নয়া এক উপায় বের করলেন দিল্লির এক ইঞ্জিনিয়ার। বানিয়ে ফেললেন ফুচকা ভেন্ডিং মেশিন। তাঁর এই উদ্ভাবনের ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

একজন ফুড ব্লগার YouTube-এ এই ফুচকা মেশিনের ভিডিয়ো আপলোড করেছেন। মোবাইলে QR কোড স্ক্যান করেই পেমেন্ট করতে পারবেন গ্রাহকরা। এরপর ভেন্ডিং মেশিন থেকে বের হয়ে আসবে ফুচকা।

তবে মেখে পুর ভরে নয়। গোটা বাক্স বের হবে। তাতে থাকবে ফুচকা ও এক প্যাকেট আলুর পুর। সঙ্গে একটি পচনশীল প্লাস্টিকের গ্লাস। সেই গ্লাস ব্যবহার করে ভেন্ডিং মেশিন থেকেই টক জল নিয়ে নিতে হবে।

কত দাম?

এটি প্রস্তুতকারী ইঞ্জিনিয়ার জানিয়েছেন, ১ লক্ষ টাকা দাম হবে এই ভেন্ডিং মেশিনের। যে কেউ চাইলে তাঁর থেকে এরকম মেশিনের অর্ডার করতে পারেন।

তবে বাক্স ভরা হয় হাতেই!

ফুচকা কনট্যাক্ট-লেস বলা হলেও আদতে তা নয়। প্রকৃতপক্ষে নির্দিষ্ট সংখ্যক বাক্সে ফুচকা, আলুর পুর ভরেই রাখতে হয়। সেটাই বের হয়ে আসে। অর্থাত্ কাউকে না কাউকে হাত দিয়েই বানাতে ও ভরতে হয়।

বন্ধ করুন