বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > Solution of Chicken or Egg Paradox: মুরগি আগে নাকি ডিম আগে? এত দিনে বিজ্ঞানীরা খুঁজে বার করলেন তার উত্তর
মুরগি নাকি ডিম— বিতর্ক শেষ (প্রতীকী ছবি)
মুরগি নাকি ডিম— বিতর্ক শেষ (প্রতীকী ছবি)

Solution of Chicken or Egg Paradox: মুরগি আগে নাকি ডিম আগে? এত দিনে বিজ্ঞানীরা খুঁজে বার করলেন তার উত্তর

  • মুরগি নাকি ডিম— কোনটা আগে এসেছিল? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে কত সন্ধ্যার কত আড্ডাই না কেটে গিয়েছে। এবার তার যুক্তিযুক্ত উত্তর এল বিজ্ঞানীদের হাতে। 

মুরগি আগে এসেছে, নাকি আগে এসেছে ডিম? এই প্রশ্ন তো শুধু আর একটা বিতর্কের জায়গায় নেই, এটা অনেক ক্ষেত্রেই পরিণত হয়েছে ঠাট্টার অলঙ্কারেও। ঢুকে পড়েছে ভাষার প্যাঁচের মধ্যেও। কিন্তু যদি হঠাৎ এর সঠিক উত্তরটা জেনে ফেলে যায়? বলুন তো, মুরগি আগে নাকি ডিম আগে— এরকম একটা প্রশ্ন কাউকে করা হলে, তিনি যদি মুখের ওপর ফটাস করে উত্তরটা দিয়ে দেন? কেমন হবে? 

বিষয়টি আর ভবিষ্যতের হাতে তোলা নেই। এখনই এর উত্তর পাওয়া গিয়েছে। ইংল্যান্ডের কয়েক জন বিজ্ঞানী সম্প্রতি প্রমাণ করে দিয়েছেন ডিম আগে নাকি মুরগি আগে। কী বলছেন তাঁরা? কীভাবে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছোলেন তাঁরা?

ইংল্যান্ডের শেফিল্ড এবং ওয়ারউইক বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক জন গবেষক দীর্ঘ দিন ধরেই এই বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করছিলেন। অবশেষে তাঁরা এই প্রশ্নের উত্তর পেয়েছেন। তাঁদের উত্তর হল— মুরগি আগে, তার পরে ডিম। কীভাবে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছোলেন তাঁরা?

তাঁরা বলছেন মুরগির ডিমের খোলায় এক বিশেষ ধরনের প্রোটিন থাকে। এই প্রোটিনটির নাম Ovocleidin, এটি ছাড়া ডিমের খোলা তৈরি হবে না। আর এই প্রোটিনটি শুধুমাত্র মুরগির জরায়ুতেই তৈরি হয়। এখন মুরগি যদি আগে না আসত, তাহলে এই বিশেষ প্রোটিনটিও তৈরি হত না। ফলে আসত না ডিমও। 

এই যুক্তিতেই গবেষকরা বলেছেন, পৃথিবীতে অবশ্যই আগে এসেছে ডিম। তার জরায়ুতে Ovocleidin উৎপাদন শুরু হওয়ার পরেই পৃথিবীতে এসেছে ডিম। ফলে এত দিনের অমীমাংসিত প্রশ্নের উত্তর অবশেষে হাতের সামনে।

বন্ধ করুন