বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > মাত্রাতিরিক্ত চা খাওয়ার অভ্যেস? জানুন কী বিপদ অপেক্ষা করছে আপনার জন্য
মাত্রাতিরিক্ত চা কেন ভালো নয় শরীরের পক্ষে।  (i.pinimg)
মাত্রাতিরিক্ত চা কেন ভালো নয় শরীরের পক্ষে।  (i.pinimg)

মাত্রাতিরিক্ত চা খাওয়ার অভ্যেস? জানুন কী বিপদ অপেক্ষা করছে আপনার জন্য

  • সুস্থ থাকতে দিনে ১-২ বারের বেশি চা না খাওয়াই ভালো!

সকালে বা সন্ধ্যায় চা খাওয়ার অভ্যাস অনেকেরই রয়েছে। তবে তা যদি মাত্রাতিরিক্ত হয়ে যায় তাহলেই মুশকিল। অনেকেই আছেন দিনে ৪-৫ বার চা খান। খালি পেটে যেমন খান, তেমনই খাওয়ার পরেও বসে পড়েন চায়ের কাপ হাতে। তবে আপনার এই স্বভাবের ফলে অজান্তেই বড় ক্ষতি হচ্ছে আপনার শরীরের। কোষ্ঠকাঠিন্য, হৃদরোগ এমনকি প্রস্টেট ক্যান্সার বা মূত্রথলির ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণ বেড়ে যেতে পারে অতিরিক্ত চা পানে।

১. চায়ের মধ্যে থাকা ক্যাফেইন একদিকে যেমন চাঙ্গা করে তোলে, তেমনই অতিরিক্ত চা খেলে বাড়ে উৎকণ্ঠা, উদ্বেগ আর শারীরিক অস্থিরতা।

২. রাত ৮টার পর চা না খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। এতে করে ব্যঘাত ঘটতে পারে ঘুমে। 

৩. চায়ে থাকা থিওফাইলিন নামের রাসায়নিক পরিপাকের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় বাধা দান করে। তাই বেশি চা খেলে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা বেড়ে যেতে পারে। বদহজমও হতে পারে। 

৪. অনেকে ডাক্তারই গর্ভাবস্থায় চা বা কফি বেশি না খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কারণ, চায়ে থাকা ক্যাফেইন গর্ভস্থ শিশুর জন্য ক্ষতিকারক হিসেবে ধরা হয়। খুব ইচ্ছে বা চায়ের নেশা থাকলে দিনে ১ বার চা বা কফি খাওয়া চলতে পারে। 

৫. হার্টের সমস্যা থাকলে যতটা সম্ভব কম চা খাওয়াই ভালো।

৬. অনেকেই আবার দাবি করে থাকেন অতিরিক্ত মাত্রায় চা খেলে পুরুষদের প্রস্টেট ক্যান্সার বা মূত্রথলির ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকটাই বেড়ে যায়।

বন্ধ করুন