বাংলা নিউজ > টুকিটাকি > কথায় কথায় আপনি হেসে ফেলেন বলে অন্যের ধমক খেতে হয়? সকলকে জানান হাসির এই উপকারিতাগুলি
রবিবার ১ মে রয়েছে বিশ্ব হাসি দিবস।
রবিবার ১ মে রয়েছে বিশ্ব হাসি দিবস।

কথায় কথায় আপনি হেসে ফেলেন বলে অন্যের ধমক খেতে হয়? সকলকে জানান হাসির এই উপকারিতাগুলি

  • অন্যের হাসিমুখ কার না দেখতে ভাল লাগে! কথায় বলে যাঁরা হাসিখুশি থাকেন, তাঁদের মনে জটিলতা কম থাকে। চিকিৎসা শাস্ত্র বলছে, হাসলে শরীর থেকে এন্ড্রোফিনস নির্গত হয়। যার ফলে পেশীর চাপ কমে, শরীরে নানা ব্যথা কমিয়ে দেয়।

অনেকেই কথায় কথায় হেসে ফেলেন! কাউকে ছোট করতে বা অপমান করতে নয়, তবে হাসি তাঁদের সহজাত! এক্ষেত্রে বহু পরিস্থিতিতেই অন্যরা বিরক্ত হন এমন হাসির জেরে। তবে হাসির যে কত উপকারিতা রয়েছে, তা শুনলে অনেকেই অবাক হবেন। রবিবার ১ মে রয়েছে বিশ্ব হাসি দিবস। তাই রবিবাসরীয় সকালে ঘুম ভাঙুক এক গাল হাসি দিয়ে। আর তারই সঙ্গে দেখে নেওয়া যাক হাসির উপকারিতা, শরীরকে চাঙ্গা রাখতে হাসি কতটা কার্যকরি দেখে নিন।

অঙ্গ চাঙ্গা রাখে

হাসলে তাজা অক্সিজেন স্টিমুলেট করে পেশীকে। পেশীর সঙ্গে ভাল থাকে ফুসফুস ও হার্ট। বহু কার্ডিওভ্যাসকুলার সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে হাসি। শরীরে রক্ত চলাচল ভাল রাখে এই হাসির গুণ।

স্ট্রেস কমায়

হাসলে কমে যায় স্ট্রেস। যতই হাসবেন ততই স্ট্রেস হরমোন কমতির দিকে যাবে। এতে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যেতে থাকবে।

ক্যালোরি কমায়

আপনি জানেন কি ক্যালোরি কমাতে হাসি কতটা উপকারি? মন মরা হয়ে থাকলে বা হাসি বন্ধ হলেই ঘিরে ধরবে অবসাদ আর তার সঙ্গে ক্যালরি ঝরে যাওয়া বন্ধ হবে। ১০ থেকে ১৫ মিনিট হাসলে কমে যায় ৪০ ক্যালোরি। আরও পড়ুন- পিরিয়ডের সময় অতিরিক্ত ব্লিডিং? শরীরে এই মারাত্মক রোগটি নীরবে দানা বাঁধছে না তো!

মেজাজ ভাল রাখে

ডিপ্রেশন কমিয়ে দিয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেয় হাসি। ফলে নেগেটিভ আবেগগুলি মন থেকে সরিয়ে দেয় হাসি। আর মেজাজকেও ভাল রাখে অই উপায়টি।

ব্যথা কমায়

অন্যের হাসিমুখ কার না দেখতে ভাল লাগে! কথায় বলে যাঁরা হাসিখুশি থাকেন, তাঁদের মনে জটিলতা কম থাকে। চিকিৎসা শাস্ত্র বলছে, হাসলে শরীর থেকে এন্ড্রোফিনস নির্গত হয়। যার ফলে পেশীর চাপ কমে, শরীরে নানা ব্যথা কমিয়ে দেয়।

 

বন্ধ করুন