বাংলা নিউজ > কথা ও কাহিনি > মা-বাবার বিবাহবার্ষিকীতে ‘নাতজামাই’-এর সঙ্গে উদ্দাম নাচ ‘রানিমা’ দিতিপ্রিয়ার
পর্দায় সাবলীলায় প্রৌঢ়া রানিমার ভূমিকা পালন করেন দিতিপ্রিয়া। লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের বাইরে অষ্টাদশী এই অভিনেত্রীর জীবন কিন্তু একদম অন্যরকম।  1/9

মা-বাবার বিবাহবার্ষিকীতে ‘নাতজামাই’-এর সঙ্গে উদ্দাম নাচ ‘রানিমা’ দিতিপ্রিয়ার

বাবা-মা'র ২২তম বিবাহবার্ষিকী স্মরণীয় করে রাখলেন দি... more


রবিবার ছিল দিতিপ্রিয়ার বাবা-মা'র ২২তম বিবাহবার্ষিকী। আর তাঁদের এই বিশেষ দিনটা একদম খাস করে তুলেছিল ‘রানিমা’। বাড়ির একমাত্র আদুরে মেয়ে সে।  2/9
রবিবার ছিল দিতিপ্রিয়ার বাবা-মা'র ২২তম বিবাহবার্ষিকী। আর তাঁদের এই বিশেষ দিনটা একদম খাস করে তুলেছিল ‘রানিমা’। বাড়ির একমাত্র আদুরে মেয়ে সে। 
এদিন সাদা রঙের শর্ট ড্রেসে পাওয়া গেল দিতিপ্রিয়াকে। পার্টির ফাঁকে জমিয়ে নাচলেন অভিনেত্রী। পর্দার নাতজামাই রাঘবেন্দ্র অর্থাত্ অমিতাভ দাসের সঙ্গে কখনও ‘খলি বলি’ তো কখনও ‘জানু মেরি জান’ গানে উদ্দাম নাচলেন দিতিপ্রিয়া।  3/9
এদিন সাদা রঙের শর্ট ড্রেসে পাওয়া গেল দিতিপ্রিয়াকে। পার্টির ফাঁকে জমিয়ে নাচলেন অভিনেত্রী। পর্দার নাতজামাই রাঘবেন্দ্র অর্থাত্ অমিতাভ দাসের সঙ্গে কখনও ‘খলি বলি’ তো কখনও ‘জানু মেরি জান’ গানে উদ্দাম নাচলেন দিতিপ্রিয়া। 
এদিন রাসমণি পরিবারের অপর সদস্যরাও হাজির ছিলেন দিতিপ্রিয়ার ঘরোয়া সেলিব্রেশনে। পৌঁছেছিলেন বিশ্বাবসু বিশ্বাস,সৌরভ সাহারা।  6/9
এদিন রাসমণি পরিবারের অপর সদস্যরাও হাজির ছিলেন দিতিপ্রিয়ার ঘরোয়া সেলিব্রেশনে। পৌঁছেছিলেন বিশ্বাবসু বিশ্বাস,সৌরভ সাহারা।